Today 17 Dec 2017
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

অপূর্ব সৌন্দর্যের বোয়ালিয়াকুল সমুদ্র সৈকত

লিখেছেন: মুহাম্মদ আনোয়ারুল হক খান | তারিখ: ১০/০৬/২০১৩

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 331বার পড়া হয়েছে।

boali

চট্টগ্রাম থেকে ২৮কিঃমিঃ উত্তরে বাঁশবাড়িয়া নামক বাজারের পশ্চিম দিকে গ্রামের মাঝ দিয়ে প্রবাহিত আঁকা-বাঁকা পিচঢালা এক কিঃ মিঃ পথ অতিক্রম করলেই ধরা দিবে এই বোয়ালিয়াকুল সমুদ্র সৈকত। সমুদ্র তীরে বিশাল ঝাউ বনের পাশে এখানে আছে বিস্তীর্ণ বেলাভূমি। এ সৈকতটির সৌন্দর্যও সহজেই দৃষ্টি কাড়তে সক্ষম পর্যটকদের। চট্টগ্রাম শহর থেকে বেবি টেক্সি কিংবা বাসে সহজেই আসা যায় জায়গাটিতে। শহরের অলঙ্কার মোড় থেকে সীতাকুণ্ডগামী যেকোনো বাসে উঠে আসতে পারেন।

 

এখানে এসে নির্বিঘে ঘুরে বেড়ানো যাবে, আহরন করা যাবে প্রকৃতির শোভা। উত্তরে কেওড়া ও ঝাইগাছের বনাঞ্চল, দক্ষিণে ঝাউ বাগান ও নতুন জেগে উঠা বিশাল বালির মাঠ। ২০০৪ সালে ২৮ফুট প্রশস্ত দুই কিলোমিটার এলাকা জুড়ে উপকুলীয় বন বিভাগ ঝাউগাছ লাগায়। আর্কিটেকচারার পদ্ধতিতে লাগানো এ ঝাউবাগান দর্শনার্থীদের দারুণ বিমোহিত করে। সমুদ্রের তীর ঘেঁষে এ মাঠে দাঁড়িয়ে পশ্চিমে দৃষ্টি দিলে দেখা যাবে সমুদ্রের পানির হৃদয় ছোঁয়া ঝিকিমিকি, সন্দ্বীপ থেকে আসা লঞ্চ-ষ্টিমার কিংবা জেলেদের ছোট ছোট ডিঙ্গি নৌকা। ঝাউ বাগানের সারি সারি ঝাউ গাছ সব মিলিয়ে এ এক অপূর্ব সৌন্দর্য অপেক্ষা করছে দর্শনার্থীদের জন্য।

 

তবে সৌন্দর্য্য পিয়াসুরা মনে করেন, এখানে কিছু শোভা বর্ধনকারী বৃক্ষরোপন, প্রয়োজনীয় স্থানে ফুলের বাগান, শৌচাগার নির্মাণ, নিরাপত্তা ও পানি সরবরাহের ব্যবস্থা করা হলে এই স্থানটি কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতকে ছাড়িয়ে যাবে। এবিষয়ে প্রয়োজন শুধু সরকারী উদ্যোগ, সরকারের একটু ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি বদলে দিতে পাবে বোয়ালিয়াকুল সমুদ্র সৈকতের দৃশ্যপট।

 

কীভাবে যাবেন

ঢাকা থেকে সড়ক, রেল ও আকাশ পথে যেতে পারেন চট্টগ্রাম শহরে। ঢাকার বাসগুলো সাধারণত শহরে প্রবেশ করে ফয়’স লেকের সামনের সড়ক থেকেই। শহরের যেকোনো জায়গা থেকে খুব সহজেই ফয়’স লেক আসা যায়। ঢাকা থেকে সড়কপথে গ্রিনলাইন (০২-৭১০০৩০১), সোহাগ (০২-৯৩৩৪১৫২), সৌদিয়া (০১১৯৭০১৫৬১০), টি আর (০২-৮০৩১১৮৯), হানিফ (০১৭১৩৪০২৬৭১) ইত্যাদি পরিবহনের এসি বিলাসবহুল বাস যায় চট্টগ্রামে। ভাড়া ৭৫০-১০৫০ টাকা। আর এস আলম, সৌদিয়া, ইউনিক, শ্যামলী, হানিফ, ঈগল প্রভৃতি পরিবহনের সাধারণ মানের বাসে ভাড়া ৩৫০-৪৫০ টাকা। রেল পথে ঢাকা-চট্টগ্রামের পথে মহানগর প্রভাতী ঢাকা ছাড়ে সকাল ৭টা ৪০ মিনিটে, চট্টলা এক্সপ্রেস সকাল ৯টা বিশ মিনিটে, মহানগর গোধূলী ঢাকা ছাড়ে বিকেল ৩টায়, সুবর্ণ এক্সপ্রেস ঢাকা ছাড়ে বিকেল ৪টা ২০ মিনিটে, তূর্ণা ঢাকা ছাড়ে রাত এগারোটায়। ভাড়া এসি বার্থ ৭৫৬ টাকা, এসি সিট ৪৫৫ টাকা, প্রথম শ্রেণী বার্থ ৪৫৫, প্রথম শ্রেণী চেয়ার ২৯০ টাকা, স্নিগ্ধা শ্রেণী ৩৮০ টাকা, শোভন চেয়ার ১৫০ টাকা, শোভন ১২৫ টাকা, সুলভ ১০০ টাকা। এ ছাড়া ঢাকা থেকে বাংলাদেশ বিমান (০২-৯৫৬০১৫১-১০), জিএমজি এয়ারলাইন্স (০২-৮৯২২২৪৮) ও ইউনাইটেড এয়ার (০২-৮৯৫৭৬৪০), রিজেন্ট এয়ার (০২-৮৯৫৩০০৩)-এর  বিমানে সরাসরি যেতে পারেন চট্টগ্রাম শহরে।

 

কোথায় থাকবেন

চট্টগ্রাম শহরে থাকার জন্য বিভিন্ন মানের প্রচুর হোটেল আছে। এখানে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি হোটেলের যোগাযোগের ঠিকানা দেয়া হলো। শহরের আগ্রাবাদ এলাকায় হোটেল আগ্রাবাদ (০৩১-৭১৩৩১১-৮), হোটেল পেনিনসুলা (০৩১-৬১৬৭২২, ৬১৯৮৫০)। স্টেশন রোডে হোটেল এশিয়ান (০৩১-২৮৫০৩৪৬-৮, ৮০০-২০০০ টাকায় কক্ষ আছে)। স্টেশন রোডে হোটেল সুপার (০৩১-৮৪১৪৫১-২, ৬০০-১৫০০ টাকায় কক্ষ আছে)। খুলশী এলাকায় হোটেল লর্ডস (০৩১-২৫৫২৬৭১-৪)। পাঁচলাইশ এলাকায় রওশন বোর্ডিং (০৩১-৬৫১৪১৬)। জুবিলী রোডে হোটেল টাওয়ার ইন (০৩১-৮৪২৬৯১-২)। এছাড়াও চট্টগ্রাম শহরের প্রতিটি এলাকাতেই আছে বিভিন্ন মানের হোটেল।

৪৯৫ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
আমার জন্ম পিরোজপুরে নানা বাড়িতে। দাদা বাড়িও পিরোজপুরে। পিরোজপুর শহরের সার্কিট হাউজ – ফায়ার সার্ভিস এর মাঝখানে আমাদের বাড়ি। পিরোজপুর আমার কাছে স্বপ্নের শহর। যদিও ক্লাস থ্রী থেকে আমি ঢাকাতে মানুষ। এসএসসি ১৯৯৬ সালে। পড়াশুনা করেছি ফার্মেসিতে, পরে এমবিএ করেছি আন্তর্জাতিক বিপননে। জুলাই ১৫, ২০১১ থেকে সব ধরনের রাজনৈতিক আলোচনা থেকে অবসর নিয়েছি। বিশেষ ব্যক্তিত্বঃ নবিজী রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বঃ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান যে ব্যক্তিত্ব আমাকে টানেঃ ডঃ মুহম্মদ ইউনুস প্রিয় লেখকঃ মুহম্মদ জাফর ইকবাল, হুমায়ুন আহমেদ, হেনরি রাইডার, জুল ভান প্রিয় টিভি সিরিয়ালঃ Spellbinder, Spellbinder 2: Land of the Dragon Lord, The girl from tomorrow, Tomorrows end, Time Trax, MacGyver, Alice in Wonderland, The Chronicles of Narnia প্রিয় টিভি নাটকঃ কোথাও কেউ নেই, অয়োময়, রুপনগর, বহুব্রিহী, বার রকম মানুষ প্রিয় টিভি শোঃ ইত্যাদি, সিসিমপুর, Pumpkin Patch Show লেখালেখি আমার শুধু শখই না, মনে হয় যেন রক্তের টান। বিশেষ করে বিজ্ঞান-কল্পকাহিনি। বিজ্ঞান-কল্পকাহিনি আমার কাছে রঙ্গিন ঘুড়ির মত। কল্পনার সীমানা পেরিয়ে যে ছুটে চলে মহাজগতিক পরিমণ্ডলে। এ যেন সময়টাকে স্থির করে দিয়ে এর আদি-অন্ত দেখার মত। তারপরও এ ঘুড়ি যেমন ইচ্ছে তেমন উড়তে পারে না, সুতোয়ে টান পড়ে বলে। এ টান যুক্তির টান। যৌক্তিক কল্পনা বললে ভুল হয় না। তারপরও নিজ ইচ্ছেয়ে সুতোটাকে ছিঁড়ে দিতে ভাল লাগে মাঝে মাঝে। আমি যেমন নিজে স্বপ্ন দেখি তেমনি সবাইকে স্বপ্ন দেখাতে চাই। অঞ্জন দত্তের ভাষায় বলতে হয়, ‘মাঝরাতে ঘুম ভেঙে যখন-তখন কান্না পায়, তবু স্বপ্ন দেখার এই প্রবল ইচ্ছাটা কিছুতেই মরবার নয়।’ কনফুসিয়াসের এই লাইন টা আমাকে খুব টানে … journey of a thousand miles begins with a single step। আমার প্রথম লেখা প্রকাশ হয় ১৯৯৬ সালে আধুনালুপ্ত বিজ্ঞান সাপ্তাহিক আহরহ তে। আমার নিজের একটা ব্লগ আছে, mahkbd.blogspot.com। আমার ইমেইল mahkbd@gmail.com।
সর্বমোট পোস্ট: ৯৬ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ১৫৫ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৫-১১ ০৩:১৪:৫৫ মিনিটে
banner

১২ টি মন্তব্য

  1. আজিম হোসেন আকাশ মন্তব্যে বলেছেন:

    আপনার পোষ্টগুলো সবই সমুদ্র সৈকত। ভাল লাগে তা পড়তে।

  2. সুমাইয়া বরকতউল্লাহ্ মন্তব্যে বলেছেন:

    fine!! Thank u vaea.

  3. আমির হোসেন মন্তব্যে বলেছেন:

    বাংলাদেশের সব অপরূপ জায়গা গুলো ভ্রমণ করার ইচ্ছে আছে। কিন্তু সময় সুযোগ করে যেতে পারিনা। আপনার লেখাগুলো পড়ে কিছুটা ভ্রমন করার আনন্দ পাচ্ছি।

  4. গৌমূমোকৃঈ মন্তব্যে বলেছেন:

    আনোয়ারুল ভাই,
    বেশ ভাল লাগল বোয়ালিয়াকুল সমুদ্র সৈকতের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য এবং সেখানে যাওয়ার পুর্ণ বিবরণ।

  5. কাউছার আলম মন্তব্যে বলেছেন:

    চালিয়ে যান ভাই।

  6. আরিফুর রহমান মন্তব্যে বলেছেন:

    সমুদ্র সৈকত সম্পর্কে আরো লিখুন। খুব ভাল লাগল। চালিয়ে যান অবিরত . . . . . .

  7. কাউছার আলম মন্তব্যে বলেছেন:

    শুনে ভাল লাগল। ধন্যবাদ আপনাকে।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top