Today 21 Jul 2019
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

আজ শরতের পহেলা দিন

লিখেছেন: রফিক আল জায়েদ | তারিখ: ২৪/০৬/২০১৪

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 399বার পড়া হয়েছে।

আজ শরতের পহেলা দিন, সকাল থেকেই বৃষ্টি বর্ষার বিদায় বার্তা পৌছে দিচ্ছে ঘরে ঘরে। ঋতুবৈচিত্রের এদেশে আমরা দিনে দিনে যান্ত্রিক হয়ে যাচ্ছি। শুধু নাম জানা ছাড়া কিছুই জানি না। অনেকে আছে যারা নামগুলোও সঠিকভাবে বলতে পারবে কিনা সন্দেহ।কোন ঋতু কখন আসে কখন শেষ হয় তা নিয়েও রয়েছে চরম অনীহাভাব।
দিনভর রিমঝিম
টুপটাপ শব্দ,
কখনো দমকা হাওয়া আর
বিদ্যুৎ চমকের
সঙ্গে ভারী বৃষ্টি,
আবার পরক্ষণেই
কালো মেঘে ঢাকা আকাশ।
বর্ষা ঋতুর এ
চিরচেনা রূপ পার
করে বাংলার
ঋতুচক্রে আজ আবার
ফিরে এলো শরৎকাল।
মেঘমুক্ত আকাশ শুভ্র
শিউলির মন
মাতানো ঘ্রাণ আর
দিগন্ত বিস্মৃত ফসলের
মাঠে ফসলের নিরন্তর
ঢেউ খেলানো দোলই
জানান দিচ্ছে আজ ভাদ্র
মাসের
সঙ্গে সঙ্গে এসেছে
শরৎও।
জলবায়ুর পরিবর্তনের
প্রভাবে ষড়ঋতুর এ
দেশে এখন
আলাদা করে ছয়টি ঋতুর
অস্তিত্ব
খুঁজে পাওয়া কঠিন।
তবে শরৎ তার রূপ ও
বৈশিষ্ট্য নিয়ে সহজেই
ধরা দেয় সকলের নিকট।
আর এ জন্যই
কবি সাহিত্যিক
থেকে শুরু করে সবার
মনেই বিশেষ
স্থানজুড়ে আছে এ ঋতু।
বসন্ত,
বর্ষা কিংবা গ্রীষ্ম
ঋতুকে বরণ করে নেয়ার
জন্য বিশেষ আয়োজন
থাকলেও শরৎকে বরণের
তেমন
কোনো আনুষ্ঠানিকতা
থাকে না।
তবে দেশের ঐতিহ্য,
সংস্কৃতিকে তুলে ধরার
পাশাপাশি নতুন
প্রজন্মকে বৈচিত্র্য
সম্পর্কে সচেতন
করতে বইয়ের
বাধা ধরা নির্দিষ্ট
পাঠের পাশপাশি এ ঋতুর
বৈশিষ্ট্য ও সার্বিক
দিক জানান
দিতে বিশেষ
ব্যবস্থা গ্রহণ প্রয়োজন
বলে মনে করেন
বিশিষ্টজনেরা।
তারা মনে করেন ১
বৈশাখের দিন
ছাড়া বাংলা মাস
কিংবা সাল
সম্পর্কে দিন দিন আগ্রহ
হারাচ্ছে সবাই।
বাংলা ঋতুর ধারণা আর
বাংলা সালের দিন
তারিখ
সম্পর্কে আগ্রহের
বিলুপ্তি থেকে রক্ষা
পেতে এখনই
ব্যবস্থা নেয়া জরুরি।

৪০১ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
আমি বিখ্যাত কোন লেখক নই। সখের বশে কিবোর্ড স্পর্শ করি। আর সখের বশে কখনও লেখক, কবি, গল্পকার, কখনও আরও অনেক কিছু..... প্রিয় ব্যাক্তিত্ব: হযরত মুহাম্মাদ (সা.) যাদের লেখা ভাল লাগে কবি: মুহিব খান লেখক: তামীম রায়হান, সালাহউদ্দীন জাহাঙ্গীর, ভালবাসি মা মাটি ও মানুষকে....
সর্বমোট পোস্ট: ২৭ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ১৭৮ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৬-০৯ ১৬:২৭:৪৭ মিনিটে
banner

৩ টি মন্তব্য

  1. এস কে দোয়েল মন্তব্যে বলেছেন:

    শরত মানেই আকাশ পড়ে সাদা শাড়ী। বক উড়ে বেড়ায় দিগন্ত জুড়ে সাদা ডানা মেলে দিয়ে। কাশবন তার ফুলের সৌন্দর্য্য ছড়িয়ে দিতে দখিনা-পূর্বানের বাতাসে দোল খায়। কবি এই সৌন্দর্য্য উপভোগ করতে ছুটে যায় সেখানে। গোটা কাশবন, সাদা মেঘের আকাশ হয়ে উঠে তার কাছে কাব্যবস্তু।

  2. সাখাওয়াৎ আলম চৌধুরী মন্তব্যে বলেছেন:

    চমৎকার শরৎ বন্দনা। খুবই ভালো লাগলো।

  3. দীপঙ্কর বেরা মন্তব্যে বলেছেন:

    Sundar bornona Chitra
    bhalo laglo

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top