Today 13 Dec 2019
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

আন্তর্জাতিক নারী দিবস এবং আমাদের সমাজ

লিখেছেন: টি. আই. সরকার (তৌহিদ) | তারিখ: ০৮/০৩/২০১৫

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 682বার পড়া হয়েছে।

***চলন্তিকায় যাত্রা শুরু……(প্রথম পোস্ট)***

নারী দিবস ! অনেক ঘটা করেই পালিত হয় বিভিন্ন দেশে ! আমাদের দেশেও ! কিন্তু গ্রামের যে সকল নারীরা কর্মমুখর সময় পার করছে দিনের পর দিন- তাদের কাছে কি পৌছায় নারী দিবসের বার্তা ?

মনে হয় না ! বোঝা উচিত… নারী বলতে শুধুমাত্র সম্ভ্রান্ত আর উঁচু সমাজের নারীদেরকেই বোঝানো হয় না, নারী বলতে গ্রামের হতদরিদ্র, সুবিধাবঞ্চিত অসংখ্য নারীকেও বোঝায় ! শুধুমাত্র শহর এলাকায় দু’চারটা সেমিনার করেই নারীদের সঠিক অধিকার আর উপযুক্ত মর্যাদা দেয়া সম্ভব নয় ! এক্ষেত্রে নারীর পাশাপাশি পুরুষদেরও ভূমিকা থাকা প্রয়োজন ! আর প্রয়োজন নারীদের সম্পর্কে উপযুক্ত কর্তৃপক্ষের সঠিক পরিকল্পনা গ্রহণের মাধ্যমে তাঁর সঠিক বাস্তবায়ন !

আমাদের সমাজে নারীর অধিকার প্রতিষ্ঠিত করার লক্ষ্যে বিভিন্ন মহল থেকে বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করতে দেখা যায় ঠিকই- তবে এর বেশিরভাগ সিদ্ধান্তই নারীদের জন্য ফিরে আসে বুমেরাং হয়ে ! আমাদের সমাজে নারীদেরকে তাদের ন্যায্য অধিকার দেয়ার জন্য প্রয়োজন সারা দেশব্যাপী গণসচেতনতা সৃষ্টি ! কিন্তু এ ব্যাপারে রাষ্ট্রীয় কিংবা সামাজিক কোন উদ্যোগ নেই বললেই চলে ! আর যা উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়, তাঁর বেশিরভাগের পেছনেই লুকিয়ে থাকে পুরুষশাসিত সমাজের মধ্যে নারীর প্রতি আদিম কোন মোহ কিংবা লোভের তাড়না ! নারীদের ঘর থেকে বাইরে বের হওয়ার নামই যদি হয় নারী অধিকার কিংবা নারীদের বাইরে কাজ করার অধিকারই যদি হয় নারী অধিকার, তবে আমাদের দেশে নারীদের অধিকার একেবারে খারাপ নয় বৈকি ! কিন্তু, নারী অধিকার মানে যদি হয় নারীদের নির্বিঘ্নে পথ চলার নিরাপত্তা, বাইরের পরিবেশে নির্বিঘ্নে কাজ করার নিরাপত্তা কিংবা শুধুমাত্র পুরুষের পণ্যরূপে ব্যবহৃত না হবার নিশ্চয়তা- তবে এ দেশে নারী অধিকার নেই বললেই চলে !

আর এ জন্য এ সমাজের পুরুষরা যেমন দায়ী, তেমনি নারীরাও কম দায়ী নয় ! নারীদেরকেই আসলে ঠিক করতে হবে সমাজে তারা কি ধরণের অধিকার নিয়ে বাঁচতে চায় ! ন্যায্য অধিকার নিয়ে বাঁচতে হলে নিজেদের অধিকারটা হওয়া চাই নিজেদের মতো ! পুরুষশাসিত সমাজে আর যাই হোক- পুরুষদের দ্বারা রচিত এজেন্ডায় নারীদের প্রাপ্য অধিকারের সঠিক প্রতিফলন ঘটবে বলে কখনোই মনে হয় না আমার ! নারীরা পুরুষদের খেলনা হয়ে যেমন তাদের অধিকার ফিরে পাবে না, তেমনি উগ্র কিংবা বেহায়াপনার আদর্শেও নারী ফিরে পাবে না তাঁর প্রকৃত মর্যাদা ! তাই নারীকেই বুঝতে হবে- এ সমাজ তাদের কিসের কারণে মর্যাদা দেয় আর কিসের কারণে অমর্যাদা করে ! তাই সঠিক অধিকার আর মর্যাদার লক্ষ্যে নারীকেই ঠিক করতে হবে সমাজে তাঁর অবস্থান এবং আচরণ কি হবে ! তাছাড়া, নারীর সঠিক অধিকারের ক্ষেত্রে পূর্ণ সমর্থন দিতে হবে সমাজের পুরুষদেরও ! আর, এর সঠিক বাস্তবায়নে নারীর পূর্ণ অধিকার আর মর্যাদা পাওয়া তো কেবল সময়ের ব্যাপার !

প্রশ্ন হচ্ছে- এমন এজেন্ডার বাস্তবায়নে কতটুকু প্রস্তুত আমাদের এ রাষ্ট্র, সমাজ আর সমাজের মানুষ ?

৬৭১ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
কবিতার প্রতি ভালোলাগা থেকেই আমার লিখার হাতেখড়ি । কবিতার ছন্দ আমাকে ভীষণ টানে । আর তাই কবিতা পড়া কিংবা লিখায় ছন্দ খুঁজে ফিরি প্রতিনিয়ত । সে কারণেই কি না আহসান হাবীব, জীবনানন্দ কিংবা জসীম উদ্দিনের মতো কবিদের লিখা আমাকে একটু বেশিই টানে ! বিরহের কবিতাও ভীষণ ভালো লাগে । লিখাটা অবশ্য আমার শখের একটা অংশ । লিখায় আমি যে খুব একটা পারদর্শী নই সেটা কেউ সরাসরি না বললেও বুঝতে পারি । তাছাড়া আমার শব্দভাণ্ডার কতটা সীমিত তা আমার লিখা পড়লে যে কেউ বুঝতে পারবেন । তবুও নিজের মনের ক্ষুধা নিবারণ করতে লিখে যাই । লিখতে ভালো লাগে । খুব কঠিন করে লিখতে পারিনা । অবশ্য সেরকম চেষ্টাও যে খুব একটা করা হয় তেমনটাও নয় ! অনলাইন ব্লগে লিখায় হাতেখড়ি এই (২০১৫ সাল) ফেব্রুয়ারিতে, নক্ষত্র ব্লগে । (২০১৫ সাল) মার্চে যুক্ত হলাম চলন্তিকায় । অবশ্য ফেসবুকে বছর দুয়েক আগে থেকেই মাঝে-মধ্যে লিখা হয়েছে । বলতে পারেন নগণ্য এক লেখক আমি- যে কি না শুধু নিজের মনের আনন্দের জন্যই লিখে । আর তাই এখনো (০৮-০৩-২০১৫) পর্যন্ত কোন প্রিন্ট মিডিয়াতে আমার লিখা জমা দেইনি কিংবা দেবার চেষ্টাও করিনি । স্বাভাবিকভাবেই, আমার কোন লিখা কোন প্রিন্ট মিডিয়াতে আজ পর্যন্ত ছাপার অক্ষরে মুদ্রিত হবার সুযোগ পায়নি । ইদানিং অবশ্য এ (প্রিন্ট মিডিয়া) ব্যাপারে একটু আগ্রহ জন্মেছে । সম্ভবত নবম শ্রেনিতে প্রথম কবিতা লিখি । এক বড় ভাই দেখে বলল, "তুমি তো খুব ভালো লিখ । তোমার কবিতাটা দিও ! আমি কম্পিউটারে কম্পোজ করে দেব ।" ছাপার অক্ষরে লিখা হবে আমার কবিতা... ভাবতেই আনন্দ লাগছিল ! সেই থেকে মূলত কাগজ-কলমের সাথে যোগাযোগ । নিয়মিত লিখা হয়নি কখনোই । তবে মাঝে-মধ্যে কিছু ভাবনা মনে এমনভাবে উথালপাতাল শুরু করে যে না লিখা পর্যন্ত মনে শান্তি আসে না । না চাইলেও তাই মাঝে মাঝে লিখতেই হয় । ইদানিং অবশ্য কিছুটা সময় দিচ্ছি এক্ষেত্রে । তবুও সেটা মনের ভাবকে গুছিয়ে তোলার জন্য যথেষ্ট নয় । লিখার ব্যাপারে কবি নজরুলের একটি কথা ভীষণ প্রিয় আমার -"বনের পাখির মতো স্বভাব আমার- কারো ভালো লাগলেও গাই, না লাগলেও গাই !" কবিতা লিখার পাশাপাশি খেলাধুলা করা, খেলা দেখা, পত্রিকা পড়া, টিভি দেখা এমনকি ছোটদের সাথে সময় কাটানোও আমার অন্যতম শখ । তবে সবচেয়ে বড় শখ ভ্রমণ । প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলের খুব সাধারণ এক পরিবারের ছেলে আমি । ব্যক্তি হিসেবেও খুব সাধারণ । হিসাববিজ্ঞানে মাস্টার্স (২০১২) শেষ করে ব্যক্তিমালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানে কাজ করছি । জীবনে তেমন কোন উচ্চাশা নেই । সবাইকে নিয়ে একটু ভালো থাকা... এই তো চাওয়া !
সর্বমোট পোস্ট: ১১৩ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ১৯০০ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৫-০৩-০৮ ০৩:০৩:৫৯ মিনিটে
banner

৭ টি মন্তব্য

  1. হাসান ইমতি মন্তব্যে বলেছেন:

    আমি নারী বা পুরুষকে আলাদা করে না দেখে মানুষ হিসাবেই দেখার পক্ষপাতী, স্বভাবতই ভালো মন্দ মিলেই মানুষ, অবস্থান ও সামর্থ্যগত কারনে এই মানুষের ভেতরে আবার আছে সবল ও দুর্বল শ্রেণী বিভেদ, প্রকৃতির নিয়মেই সবল দ্বারা দুর্বল আক্তান্ত হয়, সৃষ্টিগত ভাবে নারী কিছু দিক দিয়ে দুর্বল তাই তার আক্রান্ত হবার প্রবনতা পুরুষের চেয়ে বেশী – তাই পরিবার, সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় প্রেক্ষাপট থেকে সামগ্রিক ন্যায়বিচার নিশ্চিত করা গেলেই অন্যসব অনাচারের মত Gender Discrimination ও কমে আসবে ।

    • টি. আই. সরকার (তৌহিদ) মন্তব্যে বলেছেন:

      আপনার সাথে আমিও সহমত পোষণ করছি ! আমি মূলত নারীদের অধিকার আদায়ে যে নারীদেরই অধিক সোচ্চার হওয়ার এবং সচেতনতার প্রয়োজন রয়েছে সেই কথাটাই তোলে ধরতে চেয়েছি !
      পুরুষদের দায়িত্বও যে নেই সেরকম বলছি না, কিন্তু তাঁর আগে তো নারীদেরকে জানতে হবে তাদের অধিকার কি ?
      নারীরা তাদের অধিকার সম্পর্কে সচেতন হলে পুরুষরাও তাদেরকে সঠিক অধিকার ও উপযুক্ত মর্যাদা প্রদান করতে বাধ্য থাকবে !
      তবে আমাদের প্রগতিশীল নারীদের এটাও মনে রাখা উচিত যে, নারীর অধিকার মানে নারীদের মনগড়া মতো যা ইচ্ছে তাই করার অধিকারও নয় !
      ধন্যবাদ হাসান ইমতি ভাই, আপনার সুচিন্তিত মতামত শেয়ার করার জন্য !

  2. জসিম উদ্দিন জয় মন্তব্যে বলেছেন:

    apni Shothik Kothagulu Bolochenn.

  3. দীপঙ্কর বেরা মন্তব্যে বলেছেন:

    সঠিক কথা
    সবার জন্য

  4. টি. আই. সরকার (তৌহিদ) মন্তব্যে বলেছেন:

    সঠিক কথা বলার চেয়ে সঠিক কথায় সমর্থন দেয়াটা আরো বেশি জরুরি ! আর সেই কাজে আপনাদের সহযোগিতা আশা জাগানিয়া !
    আশা করি, দেশের প্রতিটি মানুষ তাদের সঠিক করণীয় বুঝতে পারবে এবং সে অনুযায়ী দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে !
    ধন্যবাদ জসিম ভাই ও দীপঙ্কর ভাই সমর্থন দেয়ার জন্য !

  5. এই মেঘ এই রোদ্দুর মন্তব্যে বলেছেন:

    প্রথম পোষ্টটাই মিস গেছিল

    সুন্দ লিখেছো

    • টি. আই. সরকার (তৌহিদ) মন্তব্যে বলেছেন:

      প্রথম পোস্টেও অবশেষে পেয়ে গেলাম আপনাকে আপু ! সুন্দর মন্তব্য পেয়ে ভালো লাগলো ।
      শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা জানবেন আপু ।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top