Today 12 Dec 2018
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

আবরাহা ধ্বংসলীলা (পর্ব-১)

লিখেছেন: সহিদুল ইসলাম | তারিখ: ১৪/০১/২০১৫

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 440বার পড়া হয়েছে।

রাসুল (সাঃ) এর দাদা আঃ মুত্তালিবের সময়,
ঐতিহাসিক এক মস্ত বড় আপতন ঘটে যায়।
যাকে আজো স্মরনীয় করে রেখেছে কুরআন,
সেটি হচ্ছে হাতি ও হাতি ওয়ালার উপাখ্যান।
‘আবরাহা আল-হাবশী’ নামে ছিল এক রাজা,
তৈরি করেন তিনি ১ “আল-কুল্লায়েস” গির্জা।
এটি তৈরি করার পেছনে উদ্দেশ্য ছিল তাঁর,
হাজীগণ যেন গির্জায় যায় পরিবর্তে কা’বার।
যার কারণে আরবের লোকেরা খুব কুপিত হয়ে,
জনৈক ব্যক্তি মল ত্যাগ করে ঐ গির্জায় গিয়ে।
মল ত্যাগের খবর যখন আবরাহা জানতে পারে,
অতিশয় রাগান্বিত হয়ে এই বলে কসম করে,
তিনি অবশ্যই এসে কাবাকে করবেন ধ্বংস,
হাতী সঙ্গে নিয়ে রওয়ানা কর হাবশী বংশ।
যখন তারা তায়েফে মুগাম্মাস নামক স্থানে যায়,
আল-আসওয়াদ বিন মাকসুদকে মক্কাতে পাঠায়।
সে তাহামা এলাকায় কুরাইশদের মাল করে লুট,
এমনকি নিয়ে যায় আব্দুল মুত্তালিবের দু’শত উট।
কুরাইশ ও অন্যান্য গোত্র তারা করতে চায় প্রহত,
প্রবীণ আ: মুত্তালিবের কুরাইশ বংশে ছিল নেতৃত্ব।

মোহাম্মদ সাহিদুল ইসলাম ( সিঙ্গাপুর প্রবাসী )

চলবে…….

৪২৮ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
আমার পরিচিতিঃ আমি, মোহাম্মদ সহিদুল ইসলাম, পিতাঃ ডাঃ মোঃ সফি উদ্দিন, ১৯৭৭ সালের ১লা জানুয়ারী, আমার জন্ম-ঢাকা জেলার ধামরাই থানার বেলীশ্বর গ্রামে নানা আলী আজগর মুন্সির বাড়ীতে । পৈত্রিক নিবাস, ঢাকা জেলার ধামরাই থানার অর্জ্জুন-নালাই গ্রামে, কিন্তু বাবার চাকরী জনিত কারনে আমি ছোটবেলা থেকেই মানিকগঞ্জ জেলার, সাটুরিয়া থানার বরুন্ডী গ্রামে বড় হই। বর্তমানে এই গ্রামেই আমি স্থায়ী ভাবে বসবাস করছি। দুই ভাই এক বোনের মধ্যে আমি বাবা-মার প্রথম সন্তান। আমার লেখাপড়া শুরু হয় উমানন্দপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে এবং এই বিদ্যালয় থেকে ৪র্থ শ্রেণী ও বরুন্ডী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে পঞ্চম শ্রেণী পর্যন্ত লেখাপড়া করি, পরে কোলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক মঞ্জুরীকৃত ধানকোড়া গিরীশ ইনস্টিটিউশন (হাই স্কুল) হতে ১৯৯২ সালে সাফল্যের সহিত এস,এস,সি পরীক্ষা পাশ করি । সরকারী দেবেন্দ্র কলেজ হতে ১৯৯৪ সালে আই,কম, ১৯৯৬ সালে বি,কম এবং একই কলেজ থেকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়_বাংলাদেশের অধীনে ১৯৯৮ সালে ব্যবস্থাপনা বিষয়ের উপর এম,কম সমাপ্ত করি। এম,কম শেষ পর্বের পরীক্ষা শেষ করার আগেই আমি ১৯৯৮ সালে একটি বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা হিসেবে যোগদান করি এবং চাকুরীরত অবস্থায় এম,কম সমাপনী পর্ব সাফল্যের সাথে সমাপ্ত করি। ২০০৮ সাল পর্যন্ত আমি বিভিন্ন বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করি। ২০০৯ সাল হতে আগস্ট/২০১৪ সাল পর্যন্ত জুরং শিপইয়ার্ড_ সিঙ্গাপুরে কম্পিউটার অপারেটর হিসেবে এবং সেপ্টেম্বর/২০১৪ হতে অদ্যাবধি প্রজেক্ট সুপারভাইজার হিসেবে _ স্যাম্বক্রপ মেরিন_সিঙ্গাপুরে কাজ করছি। আমি ছোটবেলা থেকে লেখালেখি করি । মানিকগঞ্জ সরকারি দেবেন্দ্র কলেজের আবহমান বাংলা ম্যাগাজিনে প্রথম লেখা শুরু। আমি গল্প, কবিতা, প্রবন্ধ ( রাজনৈতিক এবং সমসাময়িক) এবং উপন্যাস লেখতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করি। আধুনিক বা সাম্প্রতিক পটভূমিকা নিয়ে লেখাই হল আমার অভিগমন। মানুষের দুঃখ-দুর্দশা আমার মনকে সর্বাধিক ক্ষতবিক্ষত করে। আমার প্রথম প্রকাশিত বইয়ের নাম “আবীর”। যৌথভাবে আমার প্রকাশিত বই ১০০ কবির প্রেমের কবিতা ২য় এবং ৩য় খণ্ড। আমি দেশ এবং বিদেশের বেশ কিছু অনলাইন এবং প্রিন্ট মিডিয়ায় নিয়মিত গল্প, কবিতা এবং উপন্যাস লিখছি_ এর মধ্যে রয়েছে _ বাংলারকন্ঠ (সিঙ্গাপুর), দৈনিক সিলেটের আলাপ, আমাদের কিশোরগঞ্জ, বাংলারকন্ঠ(অস্টেলিয়া), সাভার নিউজ ২৪ ডট কম, সংবাদ ২৪ ডট নেট, প্রিয় ডট কম, রাঙ্গুনিয়া ২৪ ডট কম, এবি নিউজ২৪, বিবেকবার্তা ডট কম, বাংলা কবিতা ডট কম, বিডি নিউজ ২৪ ডট কম, গল্প কবিতা ডট কম ইত্যাদি। মোহাম্মদ সহিদুল ইসলাম Sahidul_77@yahoo.com
সর্বমোট পোস্ট: ১৪৪ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ২৫৩৫ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৪-১০-১১ ১৭:০২:১৬ মিনিটে
Visit সহিদুল ইসলাম Website.
banner

৩ টি মন্তব্য

  1. জসীম উদ্দীন মুহম্মদ মন্তব্যে বলেছেন:

    অসাধারন কবি! সালাম জানবেন।

  2. সহিদুল ইসলাম মন্তব্যে বলেছেন:

    সালাম জানবেন , ভালো থাকুন।

  3. এই মেঘ এই রোদ্দুর মন্তব্যে বলেছেন:

    অনেক ভাল হয়েছে

    সূরা ফিল এ এ ঘটনার কথা বলা হয়েছে।

    আবাবিল পাখি পাথর ছুঁড়ে হাতিদের ধ্বংস করেছিল

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top