Today 17 Oct 2019
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

আমি ভোট কেন দেব?

লিখেছেন: আলমগীর কবির | তারিখ: ০৬/০১/২০১৪

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 812বার পড়া হয়েছে।

আমি ভোট কেন দেব?
আমি ভোট কেন দেব? যে দলের চেতনায় আমি উদ্বুদ্ধ সেই চেতনার আলোয় সবাই যাতে আলোকিত হতে পারে সেই আশা থেকেই বোধ হয়। যদি তাই হয়ে থাকে তাহলে যাদের জন্য ভোটের মাঠে যাব তাদের চেতনা কি জানতে হবে। আমি জানলাম তাদের চেতনা কি। জানলাম তাদের একটি চেতনা আছে যার সাথে বিবেক ও বাস্তবতার আপোষকামীয়তা একাত্মতা পোষণ করা যায়। সেটা না হয় করলাম। অতঃপর দেখলাম চেতনার চর্চার পরিবর্তে ইতিহাসের স্বর্ণাক্ষরে লেখা পাতাগুলো চরম নির্লজ্জতায় সার্বজনিন মালিকানাকে স্ব-মালিকানার করায়ত্ত করার নিমিত্তে স্বর্ণলগ্নগুলোর সহস্রবর্ষী পরমায়ূকে গলাটিপে সমাধীস্থ করার সকল আয়োজন সাঙ্গ করেছে। তখন সহমতী চেতনার অমোঘ স্বার্থ কিভাবে কামনা করি? না হয় আর একটু আপোষ করলাম। দেখলাম যে চেতনা আমাকে এই সহমতি চেতনার হাত ধরে পথ চলতে শিখিয়েছে সেই চেতনার চর্চা চিরায়ত রূপেই সে ধরা ছোঁয়ার বাইরে রেখেছে। তাহলে কিভাবে আমি তার পক্ষে ঐতিহাসিক রায় দেব।

এবার ঐ চেতনাকে না হয় বাদ দিলাম। আর একটু বেশি আপোষকামীতায় লিপ্ত হই। সেখানে খুজে পেলাম ইতিহাসরে সাথে বিশ্বাসঘাতীদের। তাহলে আমি কেন ইতিহাস তাদের সাথে যাতে বিশ্বাস ঘাতকতা করে সেই ইতিহাসের সাক্ষ্য হবনা। কেননা আমি ইতিহাস সৃষ্টি করিনা আমাকে ইতিহাস জন্ম দিয়েছে।

ইতিহাসের পথ ধরেতো আপনাকে চলতে হবেই। কেননা ইতিহাস আপনাকে জন্ম দিয়েছে, ইতিহাস আপনাকে পথ চলতে শিখিয়েছে। আবার আপনি যদি ইতিহাসের হাত না ধরে সামনে এগোতে চান সেটাও তে ইতিহাসের অংশ। সুতরাং ইতিহাস আপনার নিত্যসঙ্গী হবেই হবে।

আশার কথা হলো-ইতিহাস কোন সমস্যারই সমাধান না করে থাকেনি। অপেক্ষা করি, দেখি ঐতিহাসিক সমস্যাগুলো সমাধান করার জন্য ইতিহাস আবার কোন ইতিহাস সৃষ্টি করে।

৮৫৩ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
আমি আলমগীর কবির , জন্ম 1979 সালের 25 জানুয়ারী , গ্রাম-চাঁদপুর, ডাক-কন্যাদহ, হরিণাকুন্ডু, ঝিনাইদহ। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে হিসাব বিজ্ঞানে এমকম করার পর একাউন্টিং এন্ড ইনফরমেশন সিস্টেম-এ এমবিএ করি। বর্তমানে একটি বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে চাকুরী করি, প্রতিষ্ঠানের নাম ওয়েভ ফাউন্ডেশন। যখন কলেজে পড়তাম তখন থেকেই লেখালেখির খুব ইচ্ছা ছিল কিন্তু আত্ম বিশ্বাসের অভাবে হয়ে উঠেনি। রবীন্দ্র নাথ ঠাকুরের ছোট গল্প এবং হুমায়ুন আহম্মেদ, সুনীল গঙ্গোপধ্যায়, মানিক বন্দোপধ্যায় সহ বেশ কিছু লেখাকের উপন্যাস পড়তে খুব ভাল লাগে। আগে কবিতা পড়তে ভাল লাগত না তবে এখন ভাল লাগে।
সর্বমোট পোস্ট: ৬১ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ৩৪১ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৭-২৭ ০৯:৩৯:৩৮ মিনিটে
banner

৯ টি মন্তব্য

  1. আমির হোসেন মন্তব্যে বলেছেন:

    সুন্দর লিখছেন।

  2. আরজু মন্তব্যে বলেছেন:

    আশার কথা হলো-ইতিহাস কোন সমস্যারই সমাধান না করে থাকেনি। অপেক্ষা করি, দেখি ঐতিহাসিক সমস্যাগুলো সমাধান করার জন্য ইতিহাস আবার কোন ইতিহাস সৃষ্টি করে।

    ভাল লাগল আপনার আশার কথা।চমৎকার লেখা।ধন্যবাদ।

  3. এস এম আব্দুর রহমান মন্তব্যে বলেছেন:

    ভাল লাগল লেখাটি । দেখা যাক ইতিহাস কি সমাধান দেয় । শুভ কামনা ।

  4. দীপঙ্কর বেরা মন্তব্যে বলেছেন:

    ভাবার দরকার
    ভাল লাগল

  5. এই মেঘ এই রোদ্দুর মন্তব্যে বলেছেন:

    সুন্দর লিখেছেন…. ভোট দেই না অনেক বছর

  6. Crown. মন্তব্যে বলেছেন:

    সুন্দর একটা লেখা !

  7. সবুজ আহমেদ কক্স মন্তব্যে বলেছেন:

    চমৎকার ভাবনা বেশ সুন্দর

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top