Today 23 Feb 2018
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

একখানা ডিগ্রী ও আপনার পূন্যে ক্রয়ের হিসেব-নিকেশ

লিখেছেন: নিঃশব্দ নাগরিক | তারিখ: ২৫/০৬/২০১৫

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 359বার পড়া হয়েছে।

 

জগতে নিজ সর্ম্পকে আমার সন্দেহ জ্ঞান হবার পর থেকেই । আমি সজ্ঞান যে উদাসীনতা নিজের চালচরিত্রে স্হান দিয়েছি তাতে সহসা আমার মুক্তি নেই । এমনকি জগতের সকল দ্বার মুক্ত করে দিলেও নয় । স্কুল জীবন শুরু করেছি ক্লাশ ফোর থেকে । এইচএসসি পাস করে পড়ালেখাকে টা টা জানিয়েছিলাম দু’বৎসরের জন্য । তারপর ডিগ্রী পাসকোর্সে ভর্তি ভিন্ন অন্য কোন পথ আমার জন্য উন্মুক্ত ছিল না । সমগ্র শিক্ষাজীবনে আমার ক্লাশ উপস্হিতি রীতিমত আতংকের পর্যায়ে । জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্ন্তভুক্ত কলেজসমূহ নিতান্ত ভদ্র বলেই আমি ফরম ফিলআপ করতে পেরেছিলাম । ডিগ্রী জীবনের তিন বৎসর কোর্সের আড়াই বৎসর অতিবাহিত হওয়ার পর আমার ক্লাশ উপস্হিতি যখন ২.৫% তখন শিক্ষক সমাজ আমার ফরম ফিলআপের আশা প্রায় ছেড়েই দিয়েছিলেন । সৃষ্টিকর্তা এবং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বদৌলতে আমি কিছু টাকা কাফফারা দিয়ে ঠিকই উতরে যাই । এবং এমন ধারাবাহিকতা উওরোওর অব্যাহত রেখে দু’বৎসরের মাষ্টার্স কোর্সে একদিনের জন্যও নিজেকে ক্লাশ নামক বদ্ধ চৌদেয়ালে নিজেকে স্হান দেয়নি । আমার এমন ভয়াল ছাত্রজীবনের প্রতি বাবার আশংকা ছিল সরল স্বাভাবিক । তাই বাধ্য হয়ে উনি বলতেন আমি যেন প্রেম করার জন্য হলেও অন্ত:ত কলেজে যাই । প্রেম আমার কাছে আরাধ্য ছিল বটে, কিন্তু ক্লাশ ছিল দুর্বোধ্য । তাই বাবার এমন আস্কারাও আমার মাঝে কোন প্রলোভন জাগায়নি ।

বিদ্যা অর্জন ! সে আমার কম্ম নয় । আমি যা কিছু সময় পুস্তিকাকে দিয়েছি তার সবটাই ক’খানা সনদ বগলদাবা করার জন্য । আমার উদ্দেশ্য রীতিমত সার্থক । কোন প্রকার জ্ঞান বিজ্ঞান মস্তকে আশ্রয় না পেলেও স্নাতকোওরের সনদ বগলদাবা করে ফেলি ঠিকই । এবং তার বদৌলতে ও নিয়োগকর্তার ধারাবাহিক অজ্ঞানতায় বেশ ক’খানা চাকুরী ইস্তফা দিয়ে আজকের জায়গায় স্হির হয়ে পড়েছি ।

এতসব আবোল-তাবোল পূর্বেও লিখেছি । এবং মানুষকে যথাসম্ভব যন্ত্রনা দিয়েছি । এ নিয়ে আমার আফসোস নেই । আমার আফসোস একখানা ব্যাংকিং ডিপ্লোমা নিয়ে । কেননা কি করে যেন এই ডিগ্রীখানা ব্যাংকিং পেশায় একেবারে গড়গড় করে ঢুকে পড়েছে । আর আমরা একেবারে উঠে পড়ে লেগেছি জাতিকে উদ্ধার দেওয়ার জন্য । কেননা এই ডিগ্রীখানা হস্তগত হলেই ব্যাংকিং পেশা একেবারে জাতে পৌঁছে । রাষ্ট্রও উদ্ধার পায় । আমি বেকুব অবশ্য এর কোন উপকারিতা খুঁজে পাই না । তবে উপকার থাকুক আর না থাকুক এর প্রয়োজনীয়তা বোধ করছি ইদানীং । জ্ঞান বিজ্ঞান নয়’রে ভাই । ভবিষৎত প্রমোশনে ইহা কাজ দিতে পারে । প্রমোশনটা যে সবারই দরকার ভাই ।

** সস্তায় অর্জনের কি পথ জানা থাকলে বাতলাবেন । মনুষ্য উপকার একেবারে বৃথা যায় না । ইহকাল না হোক পরকালে’তো আপনার বিশ্বাস আছে, তাই না ?

 

……………নিঃশব্দ নাগরিক ।

 

৩৫৮ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
an impossible one with the maximum possibility to be a possible one.
সর্বমোট পোস্ট: ১২৬ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ৩১৬ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৭-৩১ ১৭:৪৬:৩৭ মিনিটে
banner

৩ টি মন্তব্য

  1. অনিরুদ্ধ বুলবুল মন্তব্যে বলেছেন:

    লেখাগুলো মনকাড়া
    শুভেচ্ছা বন্ধু

  2. সবুজ আহমেদ কক্স মন্তব্যে বলেছেন:

    হাছা লিখা গুলোেন মনকাড়া

    পড়ে বেশ ভালো লাগলো

    ভালো ,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,
    শুভ কামনা থাকলো

  3. টি. আই. সরকার (তৌহিদ) মন্তব্যে বলেছেন:

    আপনার আবেগঝরা কথামালা সবসময়ই দারুণ কিছুর অনুভূতি দেয় ! এটাও ব্যতিক্রম নয় ।
    চমৎকার আবেগের বহিঃপ্রকাশ । শুভেচ্ছা জানবেন ।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top