Today 01 Jun 2020
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

এ নির্বাচন দিয়ে কি হবে?

লিখেছেন: আমির ইশতিয়াক | তারিখ: ০৬/০১/২০১৪

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 1143বার পড়া হয়েছে।

সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে শেষ হলো দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন। কিন্ত এ নির্বাচন আমাদেরকে কি উপহার দিয়েছে। যে নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ১৫৩জন প্রার্থী নির্বাচিত হয়ে যায়। যে নির্বাচনে ৫৯ জেলায় বাকি ১৪৭ আসনে যে চারকোটি ৩৯ লাখ ৩৮ হাজার ৯৩৮ জন ভোট দেওয়ার সুযোগ পেয়েও তারা বেশির ভাগই ভোট দিতে যায়নি। যে নির্বাচনে দেশের ৩৯টি কেন্দ্রে একটিও ভোট পড়েনি। যে নির্বাচনে দেশে ১৬টি কেন্দ্রে ভোট পড়েছে ১ থেকে ৬৩টি। যে নির্বাচনে দেশে ৫২ শতাংশ লোক প্রত্যক্ষ ভোট দিতে পারে নাই। যে নির্বাচনে জনগণকে তাদের ভোটের সাংবিধানিক অধিকার হরণ করা হয়। যে নির্বাচনে বিদেশী কোন পর্যবেক্ষক নেই। যে নির্বাচনে ভারত ছাড়া উল্লেখযোগ্য কোন দেশের সমর্থন নেই। যে নির্বাচনে ভোট গ্রহণের পূর্বেই নির্বাচিত হয়ে যায় কে হবে পরবর্তী সরকার। যে নির্বাচনে রাষ্ট্রপ্রতি, প্রধানমন্ত্রী, প্রধান নির্বাচন কমিশনার, বিরোধীদলীয় নেত্রী ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেন মোহাম্মদ এরশাদ ভোট দেয়নি। যে নির্বাচনে সহিংসতায় ভোটের দিন ২৫ জন নিহত হয়েছে ও আহত হয়েছে শতাধিক নেতাকর্মী। যে নির্বাচনে ভোটের দিন স্বাধীনতার পর এটাই সবচেয়ে বেশী নিহতের ঘটনা। ১৯৯৬ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি ভোটের দিন সারা দেশে সহিংসতায় মারা যায় ১২ জন। যে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সারাদেশে ১১১টি ভোট কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত স্কুল কলেজ আগুনে পুড়েছে। যে নির্বাচনে বিবেকবান সচেতন মানুষ ভোট দিতে যায়নি। যে নির্বাচনে কোথাও কোথাও প্রতি ছয় সেকেন্ডে একটি ভোট পড়েছে! যে নির্বাচনে ভোট কারচূপির অভিযোগ উঠে। যে নির্বাচনে দেশের জনগণ মিডিয়ার মাধ্যমে জালভোট প্রত্যক্ষ করে। যে নির্বাচনে আঠার বছরের কম বয়সী কিশোরদেরকে ভোট দিতে দেখা যায়।  যে নির্বাচনে পাবনা-১ আসনে (বেড়া-সাঁথিয়া) দুটি স্থানে চারটি কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ প্রার্থী স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শামসুল হক টুকুর ছেলে ৪৭৫ ভোট দিয়ে বিশ্ব রেকর্ড করেছেন!

সেই কলঙ্কিত নির্বাচন দিয়ে কি হবে দেশ ও জাতীর? রক্তের গঙ্গা পাড়ি দিয়ে যে নির্বাচন সম্পন্ন হলো সে নির্বাচন কতটুকু সুফল বয়ে নিয়ে আসবে জনগণের জন্য? ৩০০ কোটি টাকা ব্যয়ে যে নির্বাচন সম্পন্ন হলো সে নির্বাচন দেশের মানুষকে কতটা স্বস্থ্যি দিতে পারবে? যে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এত রক্ত ঝরলো বাংলাদেশের শরীর থেকে। এত সম্পদহানী হলো বাংলাদেশের সে নির্বাচন আর্ন্তজাতিকভাবে কতটা গ্রহণযোগ্য হবে?

৫ জানুয়ারি ২০১৪ সাল ইতিহাসের পাতায় লেখা থাকবে কলঙ্কিত একটি দিন হিসেবে। যেমনিভাবে লেখা ছিল ১৯৯৬ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারির নির্বাচন। এ নির্বাচনে বিপুল সংখ্যাগরিষ্টার ফলে আবারও আওয়ামীলীগ সরকার গঠন করলে এ সরকার হবে আর্ন্তজাতিকভাবে একঘরে সরকার। বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা পিছিয়ে যাবে বহুদূরে। এর সরকারের ভবিষ্য‍ৎ কি জানি না। কতদিন টিকবে এ সরকার এ নিয়ে এখন সর্বমহলে প্রশ্ন। নতুন সরকার শপথ নেয়ার পর সহিংসতা কমবে না বাড়বে এ নিয়ে জনগণ উদ্বেগ উৎকণ্ঠায় দিনযাপন করছে। কতিপয় উ‍ৎসাহি আওয়ামীলীগের অনেক নেতা এখন বলাবলি করছে আগামী ২০১৯ সালের আগে বিরোধীদলের সাথে কোন সমঝোতা হবে না। এসব কথা বলে দেশের মানুষকে আরো উৎকণ্ঠায় রাখছে সরকারীমহল। যা আমরা কখনো কামনা করি না। আমরা চায় যত সম্ভব দুই নেত্রীকে এক টেবিলে বসে এর একটা সুষ্ঠু সমাধান। এজন্য সরকারকে উদ্যোগী হতে হবে। তা না হলে এদেশের সামনে ভয়াবহ সংকট অপেক্ষা করছে।

১,২০৬ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
আমির ইশতিয়াক ১৯৮০ সালের ৩১ অক্টোবর ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর থানার ধরাভাঙ্গা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। বাবা শরীফ হোসেন এবং মা আনোয়ারা বেগম এর বড় সন্তান তিনি। স্ত্রী ইয়াছমিন আমির। এক সন্তান আফরিন সুলতানা আনিকা। তিনি প্রাথমিক শিক্ষা শুরু করেন মায়ের কাছ থেকে। মা-ই তার প্রথম পাঠশালা। প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা শুরু করেন মাদ্রাসা থেকে আর শেষ করেন বিশ্ববিদ্যালয়ে। তিনি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে নরসিংদী সরকারি কলেজ থেকে সমাজবিজ্ঞান বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি ছাত্রজীবন থেকেই লেখালেখি শুরু করেন। তিনি লেখালেখির প্রেরণা পেয়েছেন বই পড়ে। তিনি গল্প লিখতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করলেও সাহিত্যের সবগুলো শাখায় তাঁর বিচরণ লক্ষ্য করা যায়। তাঁর বেশ কয়েকটি প্রকাশিত গ্রন্থ রয়েছে। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য উপন্যাস হলো- এ জীবন শুধু তোমার জন্য ও প্রাণের প্রিয়তমা। তাছাড়া বেশ কিছু সম্মিলিত সংকলনেও তাঁর গল্প ছাপা হয়েছে। তিনি নিয়মিতভাবে বিভিন্ন প্রিন্ট ও অনলাইন পত্রিকায় গল্প, কবিতা, ছড়া ও কলাম লিখে যাচ্ছেন। এছাড়া বিভিন্ন ব্লগে নিজের লেখা শেয়ার করছেন। তিনি লেখালেখি করে বেশ কয়েটি পুরস্কারও পেয়েছেন। তিনি প্রথমে আমির হোসেন নামে লিখতেন। বর্তমানে আমির ইশতিয়াক নামে লিখছেন। বর্তমানে তিনি নরসিংদীতে ব্যবসা করছেন। তাঁর ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা একজন সফল লেখক হওয়া।
সর্বমোট পোস্ট: ২৪১ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ৪৭০৯ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৬-০৫ ০৭:৪৪:৩৯ মিনিটে
Visit আমির ইশতিয়াক Website.
banner

১২ টি মন্তব্য

  1. আরজু মন্তব্যে বলেছেন:

    সরকারী দল এখন ও দাবী করছে সুষ্ঠু অবাধ নির্বাচন হয়েছে আমির ভাই।
    ধন্যবাদ সময়পোযোগী চমৎকার একটি লেখা লিখেছেন।ভাল থাকবেন সবসময়।

  2. আমির হোসেন মন্তব্যে বলেছেন:

    যে যাই বলুক আমি বলবো, বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় একটি তামাশার নির্বাচন বিশ্ববাসী প্রতক্ষ্য করলো গতকাল। ধন্যবাদ আপনাকে।

  3. আজিম মন্তব্যে বলেছেন:

    সমাধানের দিক নিয়ে চিন্তা-ভাবনা করা উচিৎ আমাদের সকলের ।

  4. শওকত আলী বেনু মন্তব্যে বলেছেন:

    লেখাটি ভালো লেগেছে। আজ বেঙ্গলি নিউস ২৪ ডট কম এ লেখাটি পড়েছি।ভাই আমির হোসেন আপনাকে শুভেচ্ছা।

  5. আমির হোসেন মন্তব্যে বলেছেন:

    আমি আপনার লেখার একজন ভক্ত। বেঙ্গলিনিউজ২৪ ডট কম প্রায়ই আপনার লেখা পড়ি। ধন্যবাদ শওকত ভাই।

  6. এম, এ, কাশেম মন্তব্যে বলেছেন:

    এ নির্বাচন দিয়ে কিছু না হোক
    অন্তত একটা জিনিষ পরিষ্কার হলো
    জাতির কাছে – বাংলাদেশে তত্ববধায়ক
    ছাড়া কেউ নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে
    পারবে না। আর ও একটা জিনিষ পরিষ্কার হলো
    সবাই গদীতে গেলে ভোট চুরি করে ।

    বাস্তব লেখাটির জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

  7. আহমেদ রুহুল আমিন মন্তব্যে বলেছেন:

    খুব ভালো লাগলো সময়োপযোগী আপনার মুল্যবান লেখাটি পড়ে৷ এই ভোটের পরোক্ষ প্রভাব যে জাতীর জন্য কী বয়ে আনবে তা বাংলাদেশের সবাই জানলেও
    আমাদের মহামনিষিরা তা মানতে নারাজ ! অদ্ভত সেলুকাস এই দেশ !!

  8. আমির হোসেন মন্তব্যে বলেছেন:

    তাদের শেষ পরিণতি দেখার অপেক্ষায় আছে দেশবাসী। এখনও সময় আছে আল্লাহ যেন সঠিক বুঝ দেন। ধন্যবাদ ভাই

  9. কে এইচ মাহবুব মন্তব্যে বলেছেন:

    আরজু
    January ৬, ২০১৪ at ২:১৯ pm

    সরকারী দল এখন ও দাবী করছে সুষ্ঠু অবাধ নির্বাচন হয়েছে আমির ভাই।
    আপু তারা সব সময়ই মিথ্যা বলে আর আর এখন আগের থেকে অনেক বেশী বলছে।
    লেখার জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ আমির ভাইকে । আপু ভালো থেকো ?

  10. এস এম আব্দুর রহমান মন্তব্যে বলেছেন:

    নির্বাচনতো দেখলাম । একন দেখি এর পর কি হয় । শুভ কামনা ।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top