Today 19 Jun 2018
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

গরমে শিশুদের সুস্থ রাখার ৭টি টিপস

লিখেছেন: ড. মাহফুজ পারভেজ: | তারিখ: ০৬/০৫/২০১৫

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 349বার পড়া হয়েছে।

গরমে হাসফাঁস দশা সকলেরই। নিজেদের শরীর ঠিক রাখতেই যেখানে কাবু, সেখানে বাচ্চাদের প্রতি একটু বেশি খেয়াল তো রাখতেই হয়। গরমে শিশুরা তাড়াতাড়ি ক্লান্ত হয়ে পড়ে। পড়াশোনার চাপ, স্কুল, খেলাধুলা সবকিছু বজায় রাখতে শিশুরা গরমে নাজেহাল হয়ে পড়ে। তাই গরমে শিশুদের যত্ন নেওয়ার জন্য রইল কিছু টিপস-

১. শিশুকে সবসময় সঙ্গে পানির বোতল দিন-গরমে সকলেরই সারাদিন প্রচুর পানি খাওয়া উচিত্। বাচ্চারা খেলাধুলা করার কারণে ঘাম বেশি হয় ফলে ওদের পানির প্রয়োজনও হয় বেশি। পানি বেশি খেলে শরীরে টক্সিনের মাত্রা কমে শরীর যেমন সুস্থ থাকে, তেমনই রক্ত সঞ্চালন ঠিকঠাক থাকে। আবার পরিশোধিত পানি না খেলে এই পানি থেকেই রোগ সংক্রমণের সম্ভাবনা থাকে সবথেকে বেশি। তাই বাচ্চাদের যখনই বাড়ির বাইরে পাঠাবেন সবসময় সঙ্গে পানির বোতল দিন।

২. টাটকা ফল ও লেবুর রস-বাচ্চাদের টাটকা ফলের রস, ডাবের পানি, বাটারমিল্ক বা লেবুর রস রিফ্রেশমেন্ট হিসেবে খেতে দিন। এতে শরীরে পানির সাম্য বজায় থেকে শিশুদের ক্লান্তি দূর হবে।

৩. হালকা রঙের জামাকাপড় পরান-গরমে বাচ্চাকে সবসময় হালকা রঙের জামাকাপড় পরানোর চেষ্টা করুন। হালকা রঙ গরম তাড়াতাড়ি শুষে নিয়ে শরীর ঠান্ডা রাখতে সাহায্য করে।

Kids

৪. সানস্ক্রিন-বাচ্চাদের ত্বক নরম ও সংবেদনশীল হওয়ায় গরমকালে র্যাশের সমস্যা দেখা দেয়। তাই বাইরে খেলতে পাঠানোর সময় চেষ্টা করুন ভালো সানস্ক্রিন লাগিয়ে রোদে পাঠাতে। ভালো এসপিএফ যুক্ত সানস্ক্রিন শিশুদের ত্বক সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মির থেকে রক্ষা করবে।

৫. জাঙ্ক ফুড থেকে দূরে রাখুন-পিজা, পাস্তা, বার্গার থেকে শিশুদের দূরে রাখুন। তার বদলে তরমুজ, শশা জাতীয় ফল, বাড়িতে তৈরি হালকা খাবার খেতে দিন শিশুকে।

৬. ইনসেক্ট রিপেল্যান্ট-গরম কালে পোকামাকড়ের কামড়, লালা থেকে অনেক সময় ইনফেকশন হয়। ঘামে বাড়তে পারে সেই ইনফেকশন। তাই বাচ্চাকে বাইরে পাঠানোর সময়, বিশেষ করে সন্ধ্যাবেলা ইনসেক্ট রিপেল্যান্ট লাগিয়ে পাঠান। রাতে সবসময় মশারি টাঙিয়ে শোওয়ান। গরমে মশারি টাঙাতে না ইচ্ছা না করলে অবশ্যই মসকিটো রিপেল্যান্ট লাগিয়ে দিন বাচ্চাকে।

৭. দুপুরে বাচ্চাকে বাড়ির বাইরে বের করবেন না-দুপুর বেলা, মূলত ১২-৪ টার মধ্যে শিশুকে বাড়িতে রাখার চেষ্টা করুন। বিকাল বেলা খেলতে পার্কে নিয়ে যেতে পারেন। কিন্তু দুপুরের রোদে বাচ্চাকে বাইরে না বের করাই ভালো।

৩৪৮ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
অধ্যাপক, রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়।
সর্বমোট পোস্ট: ২০ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ০ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৯-২৯ ১১:০৬:২৭ মিনিটে
banner

৪ টি মন্তব্য

  1. সবুজ আহমেদ কক্স মন্তব্যে বলেছেন:

    বেশ উপকার ই হবে
    আপনাকে ধন্যবাদ
    সুন্দর ভাবনার প্রয়াস
    ,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,নাইস

  2. অনিরুদ্ধ বুলবুল মন্তব্যে বলেছেন:

    বেশ উপকারী তথ্য
    শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ

  3. মাজেদ হোসেইন মন্তব্যে বলেছেন:

    সচেতন মূলক এবং উপকারি তথ্য। অনেক অনেক ধন্যবাদ।

  4. টি. আই. সরকার (তৌহিদ) মন্তব্যে বলেছেন:

    ভালো লাগলো বাচ্চাদের জন্য উপকারী এবং অভিভাবকদের জন্য সচেতনতামূলক পোস্ট !
    আশা করি অনেকেই উপকৃত হবেন ।
    শেয়ার করার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা জানবেন ।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top