Today 15 Nov 2018
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

ছোটখাট আনন্দ ভ্রমণ………..

লিখেছেন: এই মেঘ এই রোদ্দুর | তারিখ: ২৯/০৯/২০১৩

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 370বার পড়া হয়েছে।

ঋতু আর লিমা ওরা আমার অনলাইন ফ্রেন্ড । ওদের সাথে আগেও আমার মিট হয়েছে । ওরা আমাকে অনেক পছন্দ করে এবং আমিও তো অনেকদিন যাবত ওদের সাথে দেখা হয় না । তাই ফোন করে বললাম একদিন আস আবার দেখা করি । ঋতু বলল আপু তাহলে আমাকে অফিস থেকে ছুটি নিতে হবে । ইশ তুমি যদি শুক্র বা শনিবারে আসতে তাহলে সারাদিন ঘুরাঘুরি করা যেত । আমি বললাম আপুরে শুক্র শনিবারে আমি তো বাসা হতে বের হতে পারি না । কোন অনুষ্টানেই এই দুইদিন দেখা করতে পারি না বা কোন অনুষ্ঠানে যোগও দিতে পারি না।

শেষ পর্যন্ত ঋতু ছুটি নিল বৃহস্পতিবারে মানে ১২-০৯-১৩ তারিখে । আর লিমা আর আমি অফিস থেকে অর্ধবেলা অফিস করে সেখানে যাওয়ার কথা । শেষ পর্যন্ত দুপুর একটায় লিমা আসল আমার  অফিসের সামনে । ও লিমার অফিস আবার মতিঝিলেই মধুমিতার কাছে ।

দুইজন রিক্সা করে রওয়ানা হলাম টিএসসির উদ্দেশ্যে ।

যাওয়ার পথে……. গুলিস্তান

http://i.imgur.com/NcxUg79.jpg

সেদিন এত জ্যাম ছিল না । খুব তাড়াতাড়ি পৌঁছে গেলাম । ঋতুরা তখনো আসেনি । তারা তখন মিরপুর-১০ এ জ্যামে আটকা । কি আর করা লিমা আর আমি হাটা শুরু করলাম গেলাম পাবলিক লাইব্রেরী এদিক সেদিক ঘুরে আসলাম টিএসসিতে । এসে বসলাম আর অপেক্ষার শুরু……
টিএসসি (আচ্ছা এই ভাস্কর্যের নাম ভুলে গেছি)

http://i.imgur.com/a5ZOQDx.jpg

এক সময় আমাকে অবাক করে দিয়ে ঋতু নিয়ে আসল মেহেরুন্নেসা আপু যিনি আমার জি প্লাস আর ফেবু ফ্রেন্ড । এই আপুটা ডাক্তার উনার হাব্বিও ডাক্তার । এক ছেলে এক মেয়ে । মেয়ে ও লেভেল পরীক্ষা দিয়েছে আর ছেলে মনে হয় ইন্টারে পড়ে ।

আপুকে দেখে তো আমি অবাক আগে থেকে আমাকে বলেনি ঋতুরা । আমি ম্যাজেন্ডা জামা পড়ছি ওরাও দেখি মেজেন্ডা জামা পড়ে আসছে তাই আরো মজা লাগছিল ।

আপু আসল একটু পর দেখি জি প্লাসের পিচ্চি বাপ্পিটাও উপস্থিত । ওয়াও আমি সারপ্রাইজড ।  আমি ভাবছিলাম আমি ঋতু আর লিমা মিট করব এখন আমরা পাঁচজন । সবাই পার্কে গিয়ে ঢুকলাম । আমরা এমন সময় গেছি । লোকজন খুবই কম । তবে মাশাল্লাহ গরমও পরছিল মারাত্মক একফোটা বাতাসের দেখা নাই । ঘেমে নেয়ে একাকার । সাজগোজ সব শেষ ।

ফটোসেশনের দায়িত্ব পেল বা্প্পিটা…… প্রথমেই পুচকা খাব সবাই । বসলাম এক জায়গায় … পাঁচজনে মিলে খেলাম । অনেক গল্প অনেক হাসাহাসি হল । তারপর বললাম চলেন হাটি বসে থেকে তো লাভ নাই ।

আবার হাঁটা শুরু । বাপিটা ক্যামেরা ক্লিকাইয়াই যাচ্ছে ।

হাঁটতে হাঁটতে গিয়ে পৌঁছলাম মুক্ত মঞ্চের কাছে । এখানে আমি আগে কখনো যাইনি । মুক্ত মঞ্চের নাম শুনি কিন্তু দেখি না । অনেক বড় জায়গা । সামনে একটা লেক যদিও ময়লা তবুও অনেক ভাল লাগতেছিল ।

http://i.imgur.com/wb2zxKe.jpg

এরা জানি কিতা করে…… আমি জানি না কিন্তু

http://i.imgur.com/STnIF1y.jpg

এখানে ছোট একটা ডিঙ্গি থাকলে মজা হতো ।
http://i.imgur.com/Inec9iE.jpg

লোকজন কম থাকাতে ভালই হইছিল
http://i.imgur.com/2bEKBey.jpg

এখান থেকে উঠে আবার হাঁটা শুরু
কি সুন্দর সাদা মুসান্ডা ফুল ফুটে আছে । একদল পুলাপান দেখি গাছের নিচে বইয়া গাঁঞ্জা টানে
http://i.imgur.com/HWlrTY7.jpg

হাঁটতে হাঁটতে তৃষ্ণা প্রচন্ড লেগে গেল । সবাই মিলে ললি লেমন খেলাম । শুধু বাপি খায়নি
http://i.imgur.com/IdSvGCF.jpg

একসময় অগ্নিশিখা চিরন্তনে এসে গেলাম । এ জায়গাও আমি দেখিনি আগে । শুধু টিভিতে দেখেছি
http://i.imgur.com/T7qu78c.jpg

কিছু মিষ্টি জাতীয় দ্রব্যাদি কিনতে চেয়েও শেষে কেউ খাবে না তাই কিনা হল না আর ।
ঢাকার রাস্তাঘাটে যেমন খুঁড়াখুড়ি চলে তেমনি দেখি পার্কেও চারদিকে শুধু খুঁড়াখুঁড়ি চলছে ।
http://i.imgur.com/taDRLDb.jpg

এক জায়গায় এসে দেখি বেলুন ফুটানো স্যুটিং……. শখ জাগলো মনে আমিও ফুটামো । আমি আর লিমা ১০+১০ টাকা দিয়ে শুরু করলাম ফুটানো । বন্ধুকের ওজন দেখি আমার চেয়েও ভারি বাপরে তুলতে আমার খবর হয়ে গিয়েছে । তবে তেমন মিস হয় নাই ৮ টা ফুটাইছি
http://i.imgur.com/gQOn0tN.jpg

লিমার ও মিস হইছে কম (এইটা লিমা)
http://i.imgur.com/pkDy4PU.jpg

পার্কে এখানে সেখানে শালিকদের আনাগুনা । ক্লিকাইতে মিস নাই …… অবশ্য পাখির ছবি তোলা কষ্টকর । ওড়া মারে বজ্জাতরা
http://i.imgur.com/gRfFPEY.jpg

ঘুরে ঘুরে আবার অগ্নিশিখায় । এখানে সবে মিলে ছবি তুললাম অনেক্ষন
http://i.imgur.com/F6ruXvE.jpg

শুধু আমাদের বিশ্রাম নাই ক্লান্তি নাই….. শুধু মজাই মজা । কিন্তু পার্কের জোড়ায় জোড়ায় কুকুরগুলো বিশ্রাম নিচ্ছে.
লাল কুত্তা জোড়া
http://i.imgur.com/GYLBdwB.jpg

কালা কুত্তা জোড়া
http://i.imgur.com/fPd8mrU.jpg

আমাদের মন যেমন আড্ডায় আর আনন্দে নেচেছিল তেমনি শালিখটাও আমাদের দেখে সেদিন ডাঞ্চ করেছিল
http://i.imgur.com/UAHwkX8.jpg

ফুল ওয়ালী……… একখান পোজ দিছে… চেহারাটা কি মিষ্টি না
http://i.imgur.com/BSqYrVK.jpg

এটা জি প্লাসের বন্ধুদের জন্য ঋতু বানাইছে
http://i.imgur.com/0Dt9DGe.jpg

প্রায় পাঁচটা বেজে গেছিল । এবার ফেরার পালা । তো এক জায়গায় বসে জিরিয়ে নিচ্ছিলাম । হঠাৎ আমার সামনে দেখি নাগরদোলা ঠিক করছে । আমি এমনিতেই বলতেছি ইশ আমি কখনো নাগরদোলায় উঠিনি । লিমা লাফ দিয়ে উঠল বলল আপু চল আজ প্রথম তোমাকে নিয়ে নাগরদোলায় উঠি । আমি বললাম আপু আমি ভয় পাই তো । লিমা বলল কিছুই হবে না তুমি আমাকে ধরে রেখ । লিমা নাকি এর আগেও উঠেছে নাগরদোলায় । যেই কথা সেই কাজ লিমা আর আমি গিয়ে বসলাম । কিন্তু কোন লোক পাওয়া যাচ্ছিল না উঠার জন্য । ব্যাটার বুদ্ধি করে আমাকে আর লিমাকে বসিয়ে উপরে উঠাইয়া থামাইয়া রাখছিল । অনেকক্ষন উপরে বসা আমি আর লিমা । আর ঋতুরা বসে বসে মশকরা করছে আমাদের অবস্থা দেখে । অবশেষে পাওয়া গেল কয়েকজন । ঘুরানো শুরু নাগরদোলা জীবনের প্রথমবার । এক ঘুরানদিতেই আমি শেষ হাত ঘেমে ভয়ে চিৎকার দেয়া শুরু । এক সময় চেয়ে দেখি ছেলেরা হাসতাছে আমার অবস্থা দেখে লজ্জায় আমি চোখ বন্ধ করে থাকলাম । পরে দেখি আর ভয় লাগছে না…….ওফ ফাটাফাটি ফিলিংসসসসসসসস । অনেক মজা পাইছি………
http://i.imgur.com/XfB6i7N.jpg

আমাদের ছোটখাট আনন্দভ্রমণ শেষ পর্যায়ে …… আমি লিমা আর ঋতু এক রিক্সা করে মতিঝিলে আসলাম । আমার হইছে সেইরাম দশা । রিক্সার উপ্রে বইতে হইছিল । তারপরও তিনজন মজা করতে করতে আসছি……… খুব ভাল লাগা মুহুর্তগুলো ছিল ।
==========================================================

ছবির সাইজ একেবারে ছোট করে দিছি । আশাকরি দেখতে অসুবিধা হবে না ।

৪৪২ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
আমি খুবই সাধারণ একজন মানুষ । জব করি বাংলাদেশ ব্যাংকে । নেটে আগমন ২০১০ সালে । তখন থেকেই বিশ্ব ঘুরে বেড়াই । যেন মনে হয় বিশ্ব আমার হাতের মুঠোয় । আমার দুই ছেলে তা-সীন+তা-মীম ==================== আমি আসলে লেখিকা নই, হতেও চাই না আমি জানি আমার লেখাগুলোও তেমন মানসম্মত না তবুও লিখে যাই শুধু সবার সাথে থাকার জন্য । আর আমার ভিতরে এত শব্দের ভান্ডারও নেই সহজ সরল ভাষায় দৈনন্দিন ঘটনা বা নিজের অনুভূতি অথবা কল্পনার জাল বুনে লিখে ফেলি যা তা । যা হয়ে যায় অকবিতা । তবুও আপনাদের ভাল লাগলে আমার কাছে এটা অনেক বড় পাওয়া । আমি মানুষ ভালবাসি । মানুষকে দেখে যাই । তাদের অনুভূতিগুলো বুঝতে চেষ্টা করি । সব কিছুতেই সুন্দর খুঁজি । ভয়ংকরে সুন্দর খুঁজি । পেয়েও যাই । আমি বৃষ্টি ভালবাসি.........প্রকৃতি ভালবাসি, গান শুনতে ভালবাসি........ ছবি তুলতে ভালবাসি........ ক্যামেরা অলটাইম সাথেই থাকে । ক্লিকাই ক্লিকাই ক্লিকাইয়া যাই যা দেখি বা যা সুন্দর লাগে আমার চোখে । কবিতা শুনতে দারুন লাগে........নদীর পাড়, সমুদ্রের ঢেউ (যদিও সমুদ্র দেখিনি), সবুজ..........প্রকৃতি, আমাকে অনেক টানে,,,,,,,,,আমি সব কিছুতেই সুন্দর খুজি.........পৃথিবীর সব মানুষকে বিশ্বাস করি, ভালবাসি । লিখি........লিখতেই থাকি লিখতেই থাকি কিন্তু কোন আগামাথা নাই..........সহজ শব্দে সব এলোমেলো লেখা..........আমি আউলা ঝাউলা আমার লেখাও আউলা ঝাউলা ...................... ======================== এটা হলো ফেইসবুকের কথা........ ========================== কেউ এড বা চ্যাট করার সময় ইনফো দেখে নিবেন এবং কথা বলবেন...........আর আইস্যাই খালাম্মা বলে ডাকবেন না । পোলার মা হইছি বইল্যা খালাম্মা নট এলাউড......... ================ এই পৃথিবী যেমন আছে ঠিক তেমনি রবে সুন্দর এই পৃথিবী ছেড়ে একদিন চলে যেতে হবে ======================= কিছু মুহূর্ত একটু ভালোবাসার স্পর্শ চিত্তে পিয়াসা জাগায় বারবার এই নিদারুণ হর্ষ ....... ছB ========================= এই হলাম আমি........ =================
সর্বমোট পোস্ট: ৬৩৯ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ৮৯৯৭ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৯-১৫ ০৪:৫২:৪০ মিনিটে
banner

৬ টি মন্তব্য

  1. এম, এ, কাশেম মন্তব্যে বলেছেন:

    দারুন একটা বিষয় সাথে চবিতা
    অনেক ভাল লাগা।

  2. শাহ্‌ আলম শেখ শান্ত মন্তব্যে বলেছেন:

    চমত্‍কার লিখেছেন তো ভ্রমণ কাহিনী ! ছবিগুলো বেশ আকর্ষণীয় ।
    ভাল লাগা জানিয়ে দিলাম ।
    ভাল থাকবেন প্রত্যাশা রইল ।

  3. আমির হোসেন মন্তব্যে বলেছেন:

    ভ্রমণকাহিনীটা ভাল লাগল। ছবি গুলো ফুটে উঠেছে।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top