Today 17 Nov 2019
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

তোমাকে দেখার পর একঝাক স্বপ্ন

লিখেছেন: এস কে দোয়েল | তারিখ: ০৬/০৮/২০১৪

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 762বার পড়া হয়েছে।

অনন্তর পথ পারি দিতে দিতে এই ২৮টি বসন্তে এসে
নতুন এক প্রেমের দ্বার গোড়ায় এসে পৌছলাম তোমার
দেখলাম তোমাকে; মুগ্ধ হলাম প্রথম দৃষ্টির ভিতরই আরেক বিমুগ্ধ চমক
হৃদয়ের ভিতর সবার অদৃশ্যে বইতে শুরু করেছিল ভালবাসার তুষারপাত
সমুদ্র ঝড়,লু হাওয়ার মতো ক্ষতিগ্রস্থ কোন বিধ্বংসী ঝড়ের তান্ডব নয়,
ভালোবাসায় দৃষ্টিতে যে অন্যরকম সুখকর,আমেজ অনুভূতি
সদ্য তোলা কোন ফুল কেউ হাতে তুলে দিলে যে অনুভব হয়,
প্রবল বর্ষার বানে উচ্ছল স্রোতের ঢেউ যেভাবে বাঁধ ভেঙে ছোটে,
গ্রীষ্মের দাবদাহে বৃষ্টির জলে ভেঁজা শরীরে যে তৃষ্ণা অনুভব হয়,
মরু ফাটল মৃত্তিকা যেভাবে তৃষ্ণার্ত প্রাণীর মতো শুষে নেয় মেঘের জল,
বৃষ্টির ফোঁটায় ফুলের তনুমনু যেভাবে শিহরনে হেলে দোলে নৃত্যান্দন করে
তোমাকে দেখে সেরকমই মনে হয়েছে আমার,
হৃদয়ের পান্ডুলিপিতে মনের প্রেমো কালির আঁচরে লিখলাম তোমাকে,
মনের রঙ তুলিতে সৃজনীয় সত্তায় রুপময় করে প্রেমাময়ীতে আঁকলাম
এরকম গভীর মন নিয়ে কাউকে জীবন সাথী ভেবে কল্পনা করিনি কখনো।
তুমিই বুঝি আমার স্বপ্নদেখা সেই আজন্ম লালিত রাজ গিন্নী,
পদ্মাবতী,ফুটফোঁটে বর্ষার জলে হেসে উঠা রাজকীয় শাপলা,
পদ্মরাগ,হাসনাহেনা,জুই,চামেলীর সুনয়না তোমার মুখের সুশোভিত চারুকার্য্য
তোমার মুখায়বে সেরকমই মুগ্ধ শুভ্রাজ্জ্বল আভায় বিমুগ্ধ হয়েছি আমি
লক্ষ্য করেছি ত্রিভূজ দৃষ্টিতে আমার কথাগুলো মুগ্ধ শ্রোতার মতো,
প্রফুল্ল চিত্তে শুনতে শুনতে হারিয়ে যেতে চেয়েছিলে স্বপ্নের বিভুমে
ঠোঁট যুগলে দেখেছি তোমার হাসির সাথে ছড়িয়ে পড়েছে প্রজাপতির ডানা
বাগানের রক্তজবা,হাসিতে তোমার চমৎকার একটা শিল্প ছিল
সেই হাস্য শিল্প মুগ্ধতায়-
প্রফুল্ল চিত্ত হরণে আমার ২৮ বছরের বসন্তকে মাদকতার উত্তেজনায়-
যৌবন পৌরুষকে জাগিয়ে তুলেছিল।
মনে হয়েছিল তুমি শুধু আমার,কোন এক সবুজ গ্রহে তুমি-আমি ছিলাম
নির্জন একাকী,কিছুটা বিচ্ছিন্ন
পৃথিবীর বাসভূমে এসে এক প্রান্তিক বিকেলে তুমি-আমি,
মুখোমুখী বসে এক মুহুর্ত সময় কথোপকোথনে কাছাকাছি হযে়ছিলাম।
আমি চেয়েছিলাম একটা প্রেমের নীড় গড়ে তুলতে
অর্থনৈতিক মন্দায় আমার দু’চালা টিনের ছোট্ট ঘরটি প্রেমের নীড় হযে়ছে
আভিজাত্য নেই,বিলাসীতা নেই,আছে এক চিলতে সুখের অনুভূতি
ভালবাসা আছে,
প্রেম আছে
কিন্তু নেই আভিজাত্যের অহংকার,
অলস সময় কাটানোর জন্য কম্পিউটার,বইয়ের তাক আছে,
সপ্তাহে একদিন ঘুরে বেড়ানোর সময়টুকুও তোমার জন্য বরাদ্দ,
বৃহৎ অনুষ্ঠানগুলো আমন্ত্রিত অতিথি হওয়ার আপ্যায়নও আছে,
তোমার এ বর সৃষ্টি নিয়ে অধ্যাপনা করে,নিত্য নতুন সৃষ্টি সৃজন হয়,
একজন সাংবাদিক,লেখকের সধর্মীনী হিসেবে বেশ সম্মানেরও ঘাটতি হবে না কখনো
এইটুকু অর্জন করতে বহু সাধনা করতে হয়েছে আমাকে,
জীবনের অর্থের বিশাল প্রয়োজন আছে,
স্বপ্নও দেখি অর্থ রোজগারের,
যদি সেই স্বপ্নার্থ আমার হাতে এসে যায়,তাহলে আমি কোটিপতি হযে় যাব,
শুধু স্বপ্ন নয়,স্বপ্নকে বাস্তবরুপে গড়ে তুলতে চলছে অক্লান্ত সৃজন পরিশ্রম
বেঁচে থাকার যুগান্তর সাধনা,
আমার মৃত্যুটা হবে এক জ্বলন্ত প্রদীপের মতো উজ্জ্বল ইতিহাস,
তুমি হবে সেই জ্বলন্ত প্রদীপের আলো বহনকারী মহিয়সী নারী,
তোমার-আমার সন্তানরা ততোদিনে পৃথিবীতে বিখ্যাতদের বিখ্যাত হয়ে গেছে।
২০ জুন/১২

৭৫২ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
এস.কে.দোয়েল সম্পাদক ও প্রকাশক আলোর ভূবন সাহিত্য ম্যাগাজিন এবং জাতীয় পত্রিকার ফিচার ও কলাম লেখক। তেঁতুলিয়া, পঞ্চগড়।
সর্বমোট পোস্ট: ১৯ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ৩২ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৪-০৬-১৮ ১৮:১২:২৬ মিনিটে
Visit এস কে দোয়েল Website.
banner

৬ টি মন্তব্য

  1. আহমেদ রব্বানী মন্তব্যে বলেছেন:

    দারুণ লেখা প্রিয়।ভার লাগা জানবেন।

  2. জসীম উদ্দীন মুহম্মদ মন্তব্যে বলেছেন:

    কিছু উপমা দারুণ লেগেছে দোয়েল ভাই —- !

  3. এস এম আব্দুর রহমান মন্তব্যে বলেছেন:

    ভাল লাগল । কিন্তু দু:খিত এত বড় লেখা পড়ে শেষ করতে পারিনি । শুভ কামনা ।

  4. সোহেল আহমেদ পরান মন্তব্যে বলেছেন:

    আমার মৃত্যুটা হবে এক জ্বলন্ত প্রদীপের মতো উজ্জ্বল ইতিহাস,
    তুমি হবে সেই জ্বলন্ত প্রদীপের আলো বহনকারী মহিয়সী নারী,
    তোমার-আমার সন্তানরা ততোদিনে পৃথিবীতে বিখ্যাতদের বিখ্যাত হয়ে গেছে।
    …………………………..

  5. অনিরুদ্ধ বুলবুল মন্তব্যে বলেছেন:

    আবেগ আর ভাব বর্ণনায় ঠাঁস বুননের দুর্দান্ত কবিতা –
    শুভেচ্ছা কবি।

  6. সবুজ আহমেদ কক্স মন্তব্যে বলেছেন:

    মুগ্ধকার লিখা
    ভালো
    ;;;;;;;;;;;;;;;;;;;;;;;;
    ;;;;;;;;;;;;;;;;;;;;;;;;;;;;;;;;;;

    পড়ে ভালো লাগলো

    শুভ কামনা জানাচ্ছি

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top