Today 26 May 2020
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

ত্বক থেকে দূর করে নিন রোদে পোড়া দাগ মাত্র ১ টি সহজ উপায়ে!

লিখেছেন: নাজমুল হক ইমন | তারিখ: ০৫/০৫/২০১৫

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 837বার পড়া হয়েছে।

গ্রীষ্মকালের কড়া রোদ উপভোগের চাইতে দুর্ভোগের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। কড়া রোদের কারণে ইতোমধ্যেই অনেকের ত্বকে রোদে পোড়া ছোপ ছোপ দাগ তৈরি হয়ে গিয়েছে। শুধু মুখের ত্বকই নয়, এই সমস্যা থেকে রেহাই পায় নি হাত, ঘাড়, গলা ও পায়ের ত্বকও। এই ছোপ ছোপ রোদে পোড়া দাগ খুব সহসা চলে যেতে চায় না। কিন্তু মাত্র ১ টি উপায়ে খুব সহজেই সম্পূর্ণ প্রাকৃতিকভাবে দূর করে দিতে পারেন রোদে পোড়া এই ছোপ ছোপ দাগ। জানতে চান কীভাবে? চলুন জেনে নেয়া যাক।

2

যা যা লাগবেঃ

– অর্ধেকটা লেবুর তাজা রস

– আধা কাপ বড় দানার চিনি

– ১ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল

– ১ টেবিল চামচ মধু

পদ্ধতি ও ব্যবহারবিধিঃ

– প্রথমে লেবুর রস ও অলিভ অয়েল ভালো করে মিশিয়ে নিন। এরপর এতে দিন মধু। ভালো করে মিশিয়ে নিন।

– সবার শেষে যোগ করুন চিনি। চিনি আধগলা অবস্থায় থাকবে। ব্যস, তৈরি হয়ে গেলো আপনার রোদে পোড়া দাগ তোলার স্ক্রাব।

– ত্বক ভালো করে ধুয়ে পরিষ্কার করে নেবেন। এরপর এই বানানো স্ক্রাবটি ত্বকে লাগিয়ে ২-৩ মিনিট ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে ম্যাসেজ করে নিন।

– তারপর ৫-৭ মিনিট রেখে দিন এভাবেই। এরপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ত্বক ধুয়ে ভালো করে মুছে নিন।

– সবশেষে ময়েসচারাইজার ব্যবহার করুন। কিছুদিনের ব্যবহারেই ফলাফল নজরে পড়বে।

কেন এই পদ্ধতিটি কার্যকরী?

– লেবুর ভিটামিন সি এবং সাইট্রিক অ্যাসিড রোদে পোড়া বা ত্বকের অন্যান্য দাগ তুলতে বিশেষ ভাবে কার্যকরী। এছাড়াও লেবুর রস ত্বকের পোর কমিয়ে আনে ও ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে।

– চিনি একটি প্রাকৃতিক স্ক্রাব হিসেবে কাজ করে এবং ত্বকের মরাকোষ দূর করতে সহায়তা করে।

– অলিভ অয়েল রোদে ক্ষতিগ্রস্ত ত্বকের কোষ নারিশ করে

– মধুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান ত্বকের ক্ষতি পূরণ করে এবং ত্বককে ভেতর থেকে ময়েসচারাইজ করে তোলে।

৮৩৮ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
সর্বমোট পোস্ট: ২২ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ০ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৯-১৭ ০৮:০২:১০ মিনিটে
banner

৫ টি মন্তব্য

  1. অনিরুদ্ধ বুলবুল মন্তব্যে বলেছেন:

    বেশ উপকারি পোস্ট।
    শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ।

  2. দীপঙ্কর বেরা মন্তব্যে বলেছেন:

    বেশ উপকারী

  3. সবুজ আহমেদ কক্স মন্তব্যে বলেছেন:

    খুবই উপকারী মনে হচ্ছে
    দারুন পোষ্ট

  4. এই মেঘ এই রোদ্দুর মন্তব্যে বলেছেন:

    বেশ কষ্ট আর সময় সাপেক্ষ ব্যপার এসব

    বাস্তবে কর্মজীবীদের সময় খুবই অল্প থাকে

    সুন্দর পোষ্টের জন্য ধন্যবাদ

  5. টি. আই. সরকার (তৌহিদ) মন্তব্যে বলেছেন:

    প্রথমে ট্রিটমেন্ট দেয়ার পর তা কেন কার্যকরী ব্যাখ্যা করেছেন সেটাও । আশা করছি যাদের প্রয়োজন তারা অবশ্যই আপনার ফর্মুলা ব্যবাহার করে উপকৃত হবেন ।
    ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা জানবেন ।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top