Today 21 Jul 2019
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

দুর্বলেরাই অভিশাপ দেয়

লিখেছেন: শওকত আলী বেনু | তারিখ: ১৫/০৭/২০১৪

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 754বার পড়া হয়েছে।

স্বগৃহে মানুষেরা উদ্বাস্তু। ধ্বংসস্তুপে জমা হচ্ছে লাশের কংকাল ।গাজার আকাশ ভারী মানব কান্নায়। আরব সাগর এখন লাল দরিয়া।এদেরকে দেখার কেউ নেই।ওরা নিশ্চিহ্ন করেই ক্ষ্যান্ত হবে ফিলিস্তিনী মানুষের স্বপ্ন । তাদের স্বদেশে বসবাসের অধিকার। সংঘ নামের বিশ্ব বিবেক এখন নীল পাহাড়ের চূড়ায় ডগওয়াচ! শিশুদের ধর্ম নেই, বর্ণ নেই, বিশ্ব ভূখন্ডের তাঁদের কোনো জাত নেই। কারণ তারা অবুঝ। তবু কেন ধর্মহীন, বর্ণহীন, জাতহীন কুঁড়িগুলো পাশবিক হত্যাযজ্ঞের স্বীকার? ধিক্কার জানানোর ভাষা নেই সুস্থ্য বিবেকের। স্তম্ভিত বিশ্ব বিবেক। মোড়লদের খামখেয়ালিপনায় পিশাচদের খোঁয়াড়ে বন্দি মানবতা। দানবটাকে সামলাতে হবে। ওটাকে থামাতে এগিয়ে আসার কেউ নেই। মোড়ল-দানবের মহব্বতে সংঘ এখন রতিক্রিয়ায় ব্যস্ত।

কোথায় আজ মুসলিম উম্মাহ? তাজ্জব বনে যাওয়া ছাড়া উম্মাহর কিছুই করার নেই। আর আছে অভিশাপ দেয়া। সংকীর্ণ দৃষ্টিভঙ্গি এবং বিভাজিত গোষ্ঠী কোনো জাতিকেই শ্রেষ্ঠত্ত্ব এনে দিতে পারেনা । উম্মাহর বিভাজিত দৃষ্টিভঙ্গি আজ অসার এটা সর্বত্র প্রমানিত।

একমাত্র উপায়, প্রয়োজন উম্মাহর দৃষ্টিভঙ্গিতে ব্যাপক পরিবর্তন, সংস্করণ।ক্ষুদ্র অহংবোধ পরিহার করে গোষ্ঠীবদ্ধ হয়ে বৃহত্তর এজেন্ডায় হাজির হওয়া। প্রয়োজন জ্ঞান ভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে শত্রুর মোকাবেলা করা । নতুবা অভিশাপ দেয়া ছাড়া আর কীই বা করার আছে ? দুর্বলেরাই অভিশাপ দেয়। মুসলমানরা শুধু অভিশাপ-ই দিতে জানে।

 

৭৪৩ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
লেখালেখি করি।সংবাদিকতা ছেড়েছি আড়াই যুগ আগে।তারপর সরকারী চাকর! চলে যায় এক যুগ।টের পাইনি কী ভাবে কেটেছে।ভালই কাটছিল।দেশ বিদেশও অনেক ঘুরাফেরা হলো। জুটল একটি বৃত্তি। উচ্চ শিক্ষার আশায় দেশের বাইরে।শেষে আর বাড়ি ফিরা হয়নি। সেই থেকেই লন্ডন শহরে।সরকারের চাকর হওয়াতে লেখালেখির ছেদ ঘটে অনেক আগেই।বাইরে চলে আসায় ছন্দ পতন আরো বৃদ্বি পায়।ঝুমুরের নৃত্য তালে ডঙ্কা বাজলেও ময়ূর পেখম ধরেনি।বরফের দেশে সবই জমাট বেঁধে মস্ত আস্তরণ পরে।বছর খানেক হলো আস্তরণের ফাঁকে ফাঁকে কচি কাঁচা ঘাসেরা লুকোচুরি খেলছে।মাঝে মধ্যে ফিরে যেতে চাই পিছনের সময় গুলোতে।আর হয়ে উঠে না। লেখালেখির মধ্যে রাজনৈতিক লেখাই বেশি।ছড়া, কবিতা এক সময় হতো।সম্প্রতি প্রিয় ডট কম/বেঙ্গলিনিউস২৪ ডট কম/ আমাদেরসময় ডট কম সহ আরো কয়েকটি অনলাইন নিউস পোর্টালে লেখালেখি হয়।অনেক ভ্রমন করেছি।ভালো লাগে সৎ মানুষের সংস্পর্শ।কবিতা পড়তে। খারাপ লাগে কারো কুটচাল। যেমনটা থাকে ষ্টার জলসার বাংলা সিরিয়ালে। লেখাপড়া সংবাদিকতায়।সাথে আছে মুদ্রণ ও প্রকাশনায় পোস্ট গ্রাজুয়েশন।
সর্বমোট পোস্ট: ২০৩ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ৫১৯ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৬-১৭ ০৯:২৪:৩১ মিনিটে
banner

৮ টি মন্তব্য

  1. আরজু মূন মন্তব্যে বলেছেন:

    স্বগৃহে মানুষেরা উদ্বাস্তু। ধ্বংসস্তুপে জমা হচ্ছে লাশের কংকাল ।গাজার আকাশ ভারী মানব কান্নায়। আরব সাগর এখন লাল দরিয়া।এদেরকে দেখার কেউ নেই।ওরা নিশ্চিহ্ন করেই ক্ষ্যান্ত হবে ফিলিস্তিনী মানুষের স্বপ্ন । তাদের স্বদেশে বসবাসের অধিকার। সংঘ নামের বিশ্ব বিবেক এখন নীল পাহাড়ের চূড়ায় ডগওয়াচ! শিশুদের ধর্ম নেই, বর্ণ নেই, বিশ্ব ভূখন্ডের তাঁদের কোনো জাত নেই

    বেনু ভাই অনেক অনেক শুভেচ্ছা দিয়ে গেলাম লেখায়। ভাল লেগেছে। শুভেচ্ছা জানবেন।

  2. সারমিন মুক্তা মন্তব্যে বলেছেন:

    ভাল লেগেছে সত্যি।

  3. জসীম উদ্দীন মুহম্মদ মন্তব্যে বলেছেন:

    আপনার সাথে পুরো সহমত —-বেনু ভাই !!

  4. আজিম মন্তব্যে বলেছেন:

    আপনার লেখার সাথে আমিও পুরোপুরি একমত প্রকাশ করছি। একটা শান্তির প্রস্তাব এসেছিল, হামাসের কারনে নাকি সেই শান্তির প্রস্তাবটা ভেস্তে গেল। তাদের মতে ওটা নাকি আত্মসমর্পনের নামান্তর ছিল।
    একজন মুসলমান হিসেবে আমি মুসলমানদের আধুনিক শিক্ষা-দীক্ষায় দীক্ষিত হওয়া আশু প্রয়োজন বলে দৃঢ়ভাবে মনে করি। কারন ইসরাইলসহ পশ্চিমা দেশগুলো এভাবেই শুধু এগিয়েই যায়নি, অন্যকেও বশে রেখেছে। যুদ্ধবিগ্রহে বিশ্বের মুসলমানরা যত অর্থ ব্যয় করে, তা ঞ্জানভিত্তিক শিক্ষার্জনে ব্যয় করলে আজ মুসলমানদেরকে পড়ে পড়ে মার খেতে হোতনা।
    আবারও ধন্সযবাদ এবং সহমত প্রকাশ করছি বেনু ভাই সুন্দর এই পোষ্টটির জন্য।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top