Today 17 Jan 2020
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

নস্টালজিয়া

লিখেছেন: নির্ঝরের স্বপ্নভঙ্গ | তারিখ: ০২/০৭/২০১৪

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 767বার পড়া হয়েছে।

বড় অদ্ভুত লাগে জীবনটাকে মরুভূমির বুকে মরিচিকার নীল স্বপ্ন, কখনো মনে হয় অন্তর্জাতিক রেখার মতো সরল, কখনোবা আধুনিক গদ্য কবিতার লাইনের মতো দুর্বদ্ধ. তবুও নিরন্তর ছুটে চলা জীবনের অসমাপ্ত সমীকরণ মিলাতে..ছুটতে ছুটতে কবে যে পিছনে ফেলে এসেছি সেই সোনালি শৈশব,দুরন্ত কৈশোর….একবার পিছনে ফেরার ও অবকাশ নেই…

আজকাল কার বাচ্চাদের জন্য খুব কস্ট হয় কম্পিউটার গেম এ ডুবে থাকা এই বাচ্চারা কী জানে অবারিত সবুজ ঘাসে পা ডুবিয়ে হাটা কত আনন্দের? একা একা প্লাস্টিকের ফিশিং গেম এ মাছ ধরা এই বাচ্চারা কী কখনো বুঝবে দুপুর রোদে মায়ের চোখ এড়িয়ে পুকুর পাড়ে বড়শি হাতে মাছ ধরা যে কী আনন্দের, প্রথম বাসাতে ফ্রিজ আসলে কতো আনন্দ, কত বিস্ময় নিজেদের ফ্রিজ এ বানানো প্রথম আইসক্রিম দেখতে, বাসায় প্রথম রঙ্গিন টিভি আসলে কতো ভালো লাগে রঙ্গিন টম আর রঙ্গিন জেরিকে দেখতে, ঘন সবুজ বনে লুকুচুরি খেলতে গিয়ে ছোট একটা টিয়ার বাচ্চা খুজে পেতে কী আনন্দ, ওরা কী জানে বৌচি খেলার সময় কিভাবে নিশ্বাস চুরি করতে হয়? সেই বাঘ বন্দী খেলায় মিছে-মিছি বলা একটা বাজে টিং টিং, দুটা বাজে টিং টিং তিনটা বাজে টিং টিং করতে করতে জীবন থেকে খুব নীরবে কতো সময় পার হয়ে গেলো……..

এখন আর কোনো অলস দুপুর আসে না, খেলার কিংবা আড্ডার আমেজ নিয়ে বিকেল আসেনা, আমার নাগরিক জানালায় শুধু কড়া নাড়ে ব্যাস্ত সকাল আর ক্লান্ত রাত…শুধু অনেক দিন পর বাবার সফেদ দাড়ি, মায়ের শাড়ির হালকা রঙ কিংবা অনেকদিন পর দেখা হয়ে যাওয়া শৈশবএর বন্ধু বড্ড মনে করিয়ে দেয় অনেক বেলা হয়েছে…

তবু মাঝে মাঝে ক্লান্ত মন খুব কাদে সেই ডোরাকাটা লাল ফরিং এর জন্য, আইসক্রিমওয়ালার টুনটুন ঘন্টার জন্য মনটা খুব আনচান করে…..

৮৪০ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
ঔষুধের কারিগর, পেশায় ফার্মাসিস্ট. এই ব্লগেই শুরু করলাম লেখার হাতে-খড়ি.......
সর্বমোট পোস্ট: ৪ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ৫ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৪-০৬-২৯ ০৮:৩৮:৩১ মিনিটে
banner

৯ টি মন্তব্য

  1. শওকত আলী বেনু মন্তব্যে বলেছেন:

    নষ্টালজিয়ায় নিজেকেও জড়িয়ে দিলেন যে !! চমত্কার হয়েছে ছোট্ট লেখাটি… অনেক শুভ কমনা রইলো…

  2. ব্যবস্থাপনা সম্পাদক মন্তব্যে বলেছেন:

    লেখাটি পড়ে আমারাও অনেক কিছু মনে এসে গেল। অঞ্জন দত্তের একটা গান আছে, “শুনতে কি চাও”। তোমার ভাবনার সাথে অঞ্জন এর ভাবনার অনেক মিল আছে। আমাদের সবারই আছে। মাঝে মাঝে এখনও সেই গান শুনি।
    শুনতে কি চাও তুমি সেই অদ্ভুত বে-সুরো সুর
    ফিরে পেতে চাও কি সেই আনচান করা দুপুর
    দেখতে কি চাও তুমি সেই খেলনাওয়ালাটা কে
    তার খেলনা দোতারা সে বাজাচ্ছে কবে থেকে

    স্কুলের টিফিনের পয়সা বাঁচিয়ে কেনা
    সেই অদ্ভুত ফাটা বাঁশ আর মাটির সুর টানা টানা
    দু’দিনের সম্পদ দু’টাকার বাজনার বিষ্ময়
    তারপর কখন হঠাৎ সুখের মানে পাল্টে যায়

    তারপর টিফিনের পয়সা দিয়ে সিগারেট
    কলেজ কেটে সিনেমা বান্ধবীর সাথে কাটলেট
    আসে দশটা পাঁচটা সেই একরুটের বাসটা তারপর
    সবার মতই পড়তে হয় যে কাগজের টোপর

    এখন মাসের শেষে মাঝে মধ্যে কান্না পায়
    মিনিবাসে দাড়িয়ে অফিস যাবার সময়
    এখন বুঝেছি সেই অদ্ভুত সুরের কি মানে
    ফিরে তো যাওয়া যায় না যে আর সেখানে

    যেতে হবে যে তোমাকে আমাকে চলে
    লুকোনো টেক্কা সংসারের এক্কা দোক্কা ফেলে
    প্রথমে যাবে ঘর-দোর দোকানপাট তারপর হৃদয়
    কিছুই হলো না বাজানো গেল না সময়

    ইদানিং সে সুরটা শুনতে যে খুব ইচ্ছে হয়
    কিন্তু সেই খেলনাওয়ালা আর আসেনা পাড়ায়
    হয়তো কোন অন্য অলি-গলি ঘুরে
    অন্য কোন কাউকে টানছে সেই অদ্ভুত সুরে…

    অনেক ধন্যবাদ, সুন্দর একটা লেখা উপহার দেবার জন্য।

  3. দীপঙ্কর বেরা মন্তব্যে বলেছেন:

    মনে পড়ে যায় কত কি ।
    ভাল থাকবেন ।
    শুভেচ্ছা নিরন্তর

  4. প্রহেলিকা মন্তব্যে বলেছেন:

    ****বড় অদ্ভুত লাগে জীবনটাকে মরুভূমির বুকে মরিচিকার নীল স্বপ্ন, কখনো মনে হয় অন্তর্জাতিক রেখার মতো সরল, কখনোবা আধুনিক গদ্য কবিতার লাইনের মতো দুর্বদ্ধ. তবুও নিরন্তর ছুটে চলা জীবনের অসমাপ্ত সমীকরণ মিলাতে..ছুটতে ছুটতে কবে যে পিছনে ফেলে এসেছি সেই সোনালি শৈশব,দুরন্ত কৈশোর….একবার পিছনে ফেরার ও অবকাশ নেই…***

    সময়ের কাঁধে করে আমরা যতই সামনে এগুতে থাকি ততই অদৃশ্য হতে থাকে অতীত নামের পথ কিন্তু এই পথ অদৃশ্য হয় শুধু চোখের সামনে তবে মনের ভিতর সতেজ হতে থাকে প্রতি নিয়ত। ফিরে পেতে চাই হারানো দিনগুলো তবে পাব না তা জানি। শুভেচ্ছা।

  5. মুক্তা খানম মন্তব্যে বলেছেন:

    ওহ কোথায় হারালো সেই শৈশব আর কৈশরের দিন গুলো৤

  6. আরজু মূন মন্তব্যে বলেছেন:

    বড় অদ্ভুত লাগে জীবনটাকে মরুভূমির বুকে মরিচিকার নীল স্বপ্ন, কখনো মনে হয় অন্তর্জাতিক রেখার মতো সরল, কখনোবা আধুনিক গদ্য কবিতার লাইনের মতো দুর্বদ্ধ. তবুও নিরন্তর ছুটে চলা জীবনের অসমাপ্ত সমীকরণ মিলাতে..ছুটতে ছুটতে কবে যে পিছনে ফেলে এসেছি সেই সোনালি শৈশব,দুরন্ত কৈশোর….একবার পিছনে ফেরার ও অবকাশ নেই…

    এখন আর কোনো অলস দুপুর আসে না, খেলার কিংবা আড্ডার আমেজ নিয়ে বিকেল আসেনা, আমার নাগরিক জানালায় শুধু কড়া নাড়ে ব্যাস্ত সকাল আর ক্লান্ত রাত…শুধু অনেক দিন পর বাবার সফেদ দাড়ি, মায়ের শাড়ির হালকা রঙ কিংবা অনেকদিন পর দেখা হয়ে যাওয়া শৈশবএর বন্ধু বড্ড মনে করিয়ে দেয় অনেক বেলা হয়েছে…

    তবু মাঝে মাঝে ক্লান্ত মন খুব কাদে সেই ডোরাকাটা লাল ফরিং এর জন্য, আইসক্রিমওয়ালার টুনটুন ঘন্টার জন্য মনটা খুব আনচান করে

    অসাধারণ একটি লেখা পড়লাম। সত্যি আমার ভাবনাটা আমার মনের কথাগুলি আমার মত করে বলে দিলেন। লেখাটি মন স্পর্শ করে গেল। অনেক ধন্যবাদ চমত্কার লিখাটির জন্য। শুভেচ্ছা রইল। ভাল থাকবেন কেমন।

  7. নির্ঝরের স্বপ্নভঙ্গ মন্তব্যে বলেছেন:

    ধন্যবাদ সবাইকে এত সুন্দর সব মন্তব্য আমাকে অনুপ্রাণিত করবে, ভাল থাকবেন সবাই । শুভেচ্ছা রইল।

  8. সবুজ আহমেদ কক্স মন্তব্যে বলেছেন:

    নাইস লিখা

    ভালো লাগলো পড়ে

  9. এই মেঘ এই রোদ্দুর মন্তব্যে বলেছেন:

    খুব সুন্দর করে বাস্তব সমস্যা তুলে ধরেছেন ভাল লাগল

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top