Today 19 Oct 2019
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

প্রান্তের শেষ (দ্বিতীয় অংশের পর)

লিখেছেন: এম আর মিজান | তারিখ: ২০/০৯/২০১৪

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 541বার পড়া হয়েছে।

আর সংগঠনটি যেভাবে পরিচিতি লাগ করেছে তাতে তাদের ভাগ্যোন্নয়ন হতে দেরি লাগবেনা। সাওকি ও মাহমুদ ক্লাস নাইন থেকে সমাজের দ্যুস্থ মানুষের পাশে দাঁড়ানো শুরু করে।আজ মাহমুদ নেই।জীবনের প্রোয়োজনে অনেক দূরে। প্রথমে ওরা বিভিন্ন স্কুলে গিয়ে টাকা কালেকশন করে অসহায়ের পাশে যেত।দেখতে দেখতে আজ প্রাতিষ্ঠানিক রুপ লাভ করেছে।প্রতি বছর লক্ষ্য লক্ষ্য টাকার অনুদান আসে এই প্রতিষ্ঠানের নামে।কিন্তু সাওকি থাকাতে তা গর্ভস্থ হচ্ছেনা একটি মহলের।সবাইই সাওকিকে সমর্থন দিয়ে যাচ্ছে কৃত্রিম হাসি হেসে।হয়তো নিদৃষ্ট সময় পর্যন্তই হবে এই হাসি আর সমর্থন।কে জানে,এই রঙিন মেঘও হয়তো একদিন কালো মেঘে রুপান্তরিত হয়ে বজ্রসহ ঝরবে।আবার দীর্ঘ নিশ্চুপতা।হঠাৎ পাশের একটা ঘরে লাইট জ্বলে ওঠে।এবার বব্ধু দুজন উঠে পড়ে।
– আচ্ছা ঠিক আছে।ঘুমা তাহলে। আমরা যাই।সাবধানে থাকিস।আর বেশি রাত জাগিসনা।তাহলে কাল অনুষ্ঠান পরিচালনায় সমস্যা হবে।সাওকি বিহবল
– আচ্ছা। তোরাও সকাল সকাল কলেজ মাঠেচলে আসিস।আর মালগুলোর জন্য বাবুল চাচাকে বলেছি।উনিই আরো কিছু ভ্যান সহ চলে আসবেন।
– ঠিক আছে দোস্ত।তোর কাজের আসলে তুলনা হয়না।সাওকির কাধে হাত চাপড়ে চলে যায় ওরা।পেছনে কোমরে কি যেন ফোলা কিছু একটার আচ করে সাওকি।জানতে চায়না সাওকি।ওরা বেরুতেই দরজাটা এঁটে দেয়।টাকাগুলোর জন্য সংকা হতে থাকে সাওকির।ভাবতে থাকে কি করা যায়।সাওকি হন্তদন্ত হয়ে আবার কাচারিতে চলে যায়।কোন অজানা ভয়ে সাওকির ঘুম আসেনা।বড় অনুদান এবারই প্রথম। সিংগাপুরের হোম নামে একটা এন জি ও প্রায় অর্ধ কোটি টাকার একটা অনুদান ঘোষনা করেছে।খুব শীঘ্রই সেটার জন্য কাজ শুরু করতে হবে।এবারের প্ল্যানটা ভিন্ন সাওকির।বেছে বেছে কিছু পরিবারকে আমৃত্যু সচ্ছল করার মত কিছু করে দিবে।অনেক বেশি স্বচ্ছভাবে কাজ করতে হবে।কালই সে ব্যাপারে ঘোষনা দেবে।বাহিরে মনে হচ্ছে হাটার শব্দ হচ্ছে।এক লাফে সাওকি শোয়া থেকে উঠে বসে।নাহ,আজ আর কোন ঘুম না।

৫২৮ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
এম আর মিজান।শরীয়তপুর জেলার নড়িয়া থানায় জন্ম।১৯৮৯ সালের ০৫ ই ফেব্রুয়ারি। লেখালেখিতে হাতে খড়ি ক্লাস সেভেন থেকে।আশাহত হওয়াতে ছোট বেলার কোন লেখাই অবশিষ্ট নেই।গান লিখাই ছিল প্রধান। গাইতে চাইতাম, সুযোগ হয়ে ওঠেনি। বিভিন্ন নাট্যদল ছিল প্রিয় সংগ।মনের তাড়নায় লিখি।প্রিয় স্থান :বরিশাল। প্রিয় সৃতি:জান্নাতুল ফেরদৌস। দু:খময় সৃতি:জান্নাতুল ফেরদৌস। প্রিয় ডাক:নানুর নিঝু ডাক।প্রিয় বন্ধু:আতিকুর রহমান। প্রিয় উক্তি:নিজের"পৃথিবীর সবাই তোমাকে কোন না কোন কারনেই ভালো বাসে,তুমিই তোমাকে কারনে অকারনে বোঝ এবং ভালো বাস।প্রিয় প্রত্যাশা :মৃত্যুর অপেক্ষা....
সর্বমোট পোস্ট: ৫৭ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ২৩ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৪-০৬-১২ ১৪:০৬:৩১ মিনিটে
banner

২ টি মন্তব্য

  1. গোলাম মাওলা আকাশ মন্তব্যে বলেছেন:

    হুম , চিন্তা চেতনা ভাল লাগছে। মানুষ দাঁড়াবে মানুষের পাশে।

  2. এই মেঘ এই রোদ্দুর মন্তব্যে বলেছেন:

    কঠিন অবস্থা এত টাকার লোভ বন্ধুরা হয়তো সামলাতে পারেনি। ভাল হচ্ছে লিখে যান

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top