Today 23 Aug 2019
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

প্রান্তের শেষ (প্রথম অংশের পর)- গল্প

লিখেছেন: এম আর মিজান | তারিখ: ১৯/০৯/২০১৪

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 386বার পড়া হয়েছে।

-এইতো ভাবলাম তোর সাথে একটু কথা বলে আসি।তাছাড়া ঘুম আসছিলনা।কাল অনুষ্ঠান তাই।তো ভিতরে আসতে বলবিনা?
-ও হ্যা,আয়।সাওকির ঘোর কাটে।দরজা থেকে সরে দাড়ায়। ওরা দুইজন ভিতরে ঢুকেই পাশের চেয়ার টেনে বসে যায়।সাওকি দরজাটা লাগিয়ে দিয়ে খাটের পাশে বসে।সবাই কিছুক্ষণ চুপচাপ। সাওকির চোখে কিছুটা ভয়েরচিহ্ন উঁকি দেয়।ওর বন্ধুদের চোখে কিছু একটা পাওয়ার আকুলতা স্পষ্ট। তবুও মুখ খুলেনা সাওকি।ওরা রাজনৈতিক প্যানেলের লোক।সাওকি ওদের সাথে কোন বিষয়ে একমত হতে পারেনা।তবুও যাতে সামাজিক কার্যক্রম গুলো চালিয়ে নেওয়া যায়,সেজন্য এই আতাত।কারন খুব সহজ! আঁতাত না করলে কোন কাজই করা যাবেনা।ওরাই প্রথম একজন মুখ খোল্লো।
-কিরে এতো রাতে জেগে আছিস যে,সব কিছু ঠিকতো?
-হ্যা,সবই ঠিক।অনুষ্ঠান সুচিটা একটু আপডেট করলাম।এতেই দেরি হয়ে গেল।কিন্তু তোরা এতো রাতে? কোন জরুরী বিষয়?
-জরুরী তো ছিল।যাক তুইইতো করে ফেলেছিস।
-ও….তাই।সাওকি মুখে শব্দ করলেও তার ভিতর সন্ধেহ আর নিশ্চিত কোন অসনিসংকেতের পাথর জমা হতে দেরি হয়না।এতিপূর্বেও বহুবার সাওকিকে ওরা নিজেদের স্বার্থে প্রলোভিত করতে চেয়েছিল।সাড়া পায়নি।ভিতরে যে দানা বাঁধেনি তার নিশ্চয়তা দেয়া যায়।এবারের সাহায্যটা এসেছে লন্ডনের একটা এন জিও থেকে।বিশ্বের বেশ কিছু ধনী দেশের সামাজিক প্রতিষ্ঠান থেকে বছরের বিভিন্ন সময়ই সাহায্য পায় সাওকির সংগঠন টি।এই বিস্তৃতি এনে দেওয়ার পেছনে টুইটারের ভূমিকাই মৌলিক। জেলা প্রতিনিধি হিসাবে মাহবুবই সাওকিকে সাহায্য করে সবচেয়ে বেশি।এবারের সাহায্যটা তার হাত ধরেই এসেছে।বিভিন্ন পর্যায়ের অতিথিদের তিনিই বরাবরের মত পাওয়ার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। ওরা দুজনেই এসিস্ট্যান্ট ভাইস চেয়ারম্যান পদে আছে।এখানেও টিকে থাকার ভিতিটাই কাজ করেছিল। সাওকির পরে তারাই হবে এর কর্নধার।

৩৭২ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
এম আর মিজান।শরীয়তপুর জেলার নড়িয়া থানায় জন্ম।১৯৮৯ সালের ০৫ ই ফেব্রুয়ারি। লেখালেখিতে হাতে খড়ি ক্লাস সেভেন থেকে।আশাহত হওয়াতে ছোট বেলার কোন লেখাই অবশিষ্ট নেই।গান লিখাই ছিল প্রধান। গাইতে চাইতাম, সুযোগ হয়ে ওঠেনি। বিভিন্ন নাট্যদল ছিল প্রিয় সংগ।মনের তাড়নায় লিখি।প্রিয় স্থান :বরিশাল। প্রিয় সৃতি:জান্নাতুল ফেরদৌস। দু:খময় সৃতি:জান্নাতুল ফেরদৌস। প্রিয় ডাক:নানুর নিঝু ডাক।প্রিয় বন্ধু:আতিকুর রহমান। প্রিয় উক্তি:নিজের"পৃথিবীর সবাই তোমাকে কোন না কোন কারনেই ভালো বাসে,তুমিই তোমাকে কারনে অকারনে বোঝ এবং ভালো বাস।প্রিয় প্রত্যাশা :মৃত্যুর অপেক্ষা....
সর্বমোট পোস্ট: ৫৭ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ২৩ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৪-০৬-১২ ১৪:০৬:৩১ মিনিটে
banner

৪ টি মন্তব্য

  1. গোলাম মাওলা আকাশ মন্তব্যে বলেছেন:

    কে যে হল কি হচ্ছে ভেবে মাথার উপ্পর দিয়া গেল।

  2. ঘাস ফড়িং মন্তব্যে বলেছেন:

    ১ম অংশ পড়িনি তাই এ অংশ পড়ে বেশী কিছু বূঝতে পাৱিনি

  3. দীপঙ্কর বেরা মন্তব্যে বলেছেন:

    ধাপে ধাপে বেশ বুঝলাম
    ভাল কথা
    ভাল লাগল

  4. এই মেঘ এই রোদ্দুর মন্তব্যে বলেছেন:

    এটা না পড়ে পরেরটা পড়েছিলাম।।
    ভাল লাগল লখে যান।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top