Today 09 Dec 2019
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

ফুলের নাম ফিউসা বা ফুসিয়া (Fuchsia)

লিখেছেন: রুবাইয়া নাসরীন মিলি | তারিখ: ২০/১১/২০১৪

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 2168বার পড়া হয়েছে।

বেশ কিছুদিন আগে কলকাতার সানন্দা  ম্যাগাজিন  এ  এক ডিজাইনারের সাক্ষাৎকার পড়েছিলাম ।উনি বলেছিলেন তার ডিজাইন আর রঙের খেলা সবই প্রকৃতি থেকে পরোক্ষ বা প্রত্যক্ষ ভাবে নেয়া। আসলেই যদি একটু খেয়াল করে দেখি তাহলে দেখব প্রকৃতির মাঝেই আছে সব রঙ আর রুপের মেলা।

সময়টা সেপ্টেম্বর এর শেষ অক্টোবর এর শুরু ।খুব সংক্ষিপ্ত একটা ট্যুর এ আমি আর মাহমুদা আপা গেলাম নেপাল। হাতে সময় ছিল খুব কম তারপরও দু একটা জায়গায় কি না গেলে চলে? শত হোক বিদেশে এলাম । সেবার লুম্বিনি আর কাঠমান্ডুর আশেপাশে একটু ঘুরেছিলাম।

কাঠমান্ডুর কাছেই আছে লালিতপুর জেলা আর সেখানে আছে ফুলচকি পাহাড়। সেই পাহাড়ের পাদদেশে প্রকৃতি তার  রূপের ডালি বিছিয়ে বসে আছে । সে পথে যাওয়ার সময় আমি প্রথম এই ফুল দেখি।

 

fuchsia

fuchsia

আমার তো বিশ্বাস হচ্ছিল না এটা প্রকৃতির সৃষ্টি । প্রথমে ভেবেছিলাম মানুষের হাতে তৈরি ফুল।  একটা মাচার মত স্থানে নিচে মুখ করে ঝুলে ছিল এই ফুল।

আমার অনুরোধে  ড্রাইভার গাড়ি থামালে আমি নিচে নেমে ভাল করে দেখলাম । নাহ এটা মানুষের তৈরি না আসল ফুল ই। রানি গোলাপি আর বেগুনির কন্ট্রাস্টে গড়া অসাধারন সুন্দর এক ফুল।

 

8797681582110

সে সময় এর নাম ওরা বলতে পারে নাই ,আর যে নেপালি নাম বলেছিল তা আমি বুঝি নাই । পরে যখন আবার থাইল্যান্ড যাই তখন পাতায়ার মাদাম নং নুচ বাগানে গিয়ে জানতে পারি এই ফুলের নাম ।

10398708_358172091029041_371344786662827264_n

 

 

ফুলটির নাম ফিউসা বা ফুসিয়া ।

1794675_263231377189780_1450803556_n

ফরাসি উদ্ভিদবিদ ও সন্ন্যাসী  সর্ব প্রথম এই ফুলটি কারাবিয়ান দ্বীপ হিস্পানিওালা যা  কিনা বর্তমানে  ডমিনিকান রিপাবলিক এবং হাইতি, সেখানে ১৬৯৬ থেকে ১৬৯৭ এর মাঝামাঝি সময়ে আবিস্কার করেন ।

 

9044                                 1597678_482756275186725_722534665878681116_o

 

পরবর্তীতে  ফরাসি উদ্ভিতবিদ চার্লস প্লুমিয়ার এই ফুলের নাম জার্মান  উদ্ভিদবিদ লেওহারত ফুচস এর নামে নামকরন করেন ফুসিয়া ।

 

fuchsia

fuchsia

আসল জার্মান ভাষায় এর উচ্চারণ হয় ফুক্সিয়া (“fook-sya” /ˈfʊksja)  কিন্তু ইংরেজি উচ্চারণে বলা হয় ফিউসা (fyusha” /ˈfjuːʃə) ।

 

lilac-fuchsia

 

বর্তমান  পৃথিবীতে  প্রায় ১১০ জাতের ফুসিয়া দেখতে পাওয়া যায় । এদের বেশির ভাগ প্রজাতি  দক্ষিন আমেরিকায় দেখা গেলেও কিছু কিছু প্রজাতি মধ্য  আমেরিকা থেকে মেক্সিকো আর নিউজি ল্যান্ড  থেকে তাহিতি পর্যন্ত দেখা যায় ।

 

10689759_338278266351757_7511390627599046485_n

উষ্ণ  ক্রান্তিয় আর উপক্রান্তিয় অঞ্চল এই ফুল এর আদি আবাসস্থল ।   এই ফুল জাপান চিন নেপাল এ দেখা যায়  তবে দুই একটা প্রজাতি ।

 

1461699_278579995654918_907449648145963713_n - Copy

বাগানের জন্য আদর্শ অসাধারন রঙের বৈচিত্রে ভরপুর এই ফুল পুস্পপ্রেমীদের মনে আলাদা স্থান করে নিয়েছে ।

10309056_283261795186738_5890690434527768137_n

 

বিশ্বায়নের এই যুগে তাই ফুসিয়া/ফিউসা  তার আদি আবাস স্থল ছাড়াও অন্যান্য অঞ্চলেও দেখা যায় ।

 

 

 

২,১৩১ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
আমি মিলি ,ভাল লাগে বই পড়তে,ঘুরে বেড়াতে আর বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিতে ।
সর্বমোট পোস্ট: ৩৮ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ৩৯৩ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৪-০৯-০৩ ১৫:৫৪:৫০ মিনিটে
banner

৬ টি মন্তব্য

  1. হরিশঙ্কর রায় মন্তব্যে বলেছেন:

    ফুসিয়া সম্পর্কে জানতে পেরে ভালো লেগেছে । পরবর্তীতে আর অনেক কিছু জানতে পারব বলে আশা করছি । ধন্যবাদ

  2. সহিদুল ইসলাম মন্তব্যে বলেছেন:

    খুব সুন্দর তথ্যবহুল পোষ্ট, আপা আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

  3. এই মেঘ এই রোদ্দুর মন্তব্যে বলেছেন:

    অসম্ভব সুন্দর পোস্ট আপি। এই ফুল আগে দেখিনি। ধন্যবাদ আপি

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top