Today 26 Aug 2019
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

বর্তমান শিক্ষা ব্যবস্থাই একসময় দুর্নীতির জন্য প্রধানতম দায়ী হবে !

লিখেছেন: সাঈদ চৌধুরী | তারিখ: ০৮/১২/২০১৩

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 651বার পড়া হয়েছে।

৯ই ডিসেম্বর-আন্তর্জাতিক দুর্নীতি প্রতিরোধ দিবস

শিক্ষা, মানুষের মৌলিক অধিকার এবং মূল্যবোধ সৃষ্টির নিয়ামক ।মূল্যবোধ এমন একটি বিষয় যা কিনা শুধু বই পড়া বিদ্যার উপরই বর্তায় না । তবুও বই পড়া দিয়েই এই মূল্যবোধের শিক্ষার শুরু । ছোটবেলায় মা অথবা বাবার কাছে কোন সন্তান প্রথমেই শিখতে পারে- সদা সত্য কথা বলিবে, সকালে উঠিয়া আমি মনে মনে বলি…., অথবা চরিত্রই মানব জীবনের সবচেয়ে বড় সম্পদ ইত্যাদি, ইত্যাদি ।কিন্তু এই পড়াগুলোর সাথে শিক্ষা ব্যবস্থার যদি মৌলিক পার্থক্য সৃষ্টি হয়ে যায় তবে যে কাজটি না হওয়ার সেটাই হবে আর তা হল শিক্ষার মাধ্যমেই কোন মানুষ তার সঠিক বৃদ্ধিতে অবরুদ্ধতার শিকার হবে । যা প্রায় সমাগতই ধরতে গেলে । বর্তমান শিক্ষা ব্যবস্থাকে যতই Communicative আর সৃজনশীল বলা হোক না কেন তবুও এর মধ্যে অনীতিই ঢুকে গেছে অনেক । কাউকে যদি বলা হয় দুর্নীতিকে আপনি ঘৃনা করুন তবে প্রথম কি কথা দিয়ে শুরু করতে হবে ? হ্যা অবশ্যই বলতে হবে যে, আপনি শিক্ষিত, আপনার মুল্যবোধ আছে তাই আপনি নীতি বর্হিভুত কোন কাজ করবেন না ।কিন্তু শিক্ষাই যদি দুর্নীতি শেখায় ? ছোট্ট বাচ্চারাই যদি শিখে যায় দুর্নীতি করে পাশ করা অথবা পাশ করার পর দুর্নীতি করে চাকুরী নিতে হবে এরকম কোন ভাবধারা তবে ?এরকমইতো হচ্ছে । সব ক্ষেত্রেই দুর্নীতিকে উৎসাহ দেওয়া হচ্ছে এমনকি আইনও করা হচ্ছে দুনীর্তিকে প্রশ্রয় দেওয়ার জন্যই । এভাবে দুর্নীতি বন্ধ করা কিভাবে সম্ভব । দুর্নীতি প্রতিরোধে এবার বাংলাদেশের অবস্থান গত বারের তুলনায় দুইধাপ অগ্রগতি হলেও বাংলাদেশের দুর্নীতি কমেনি একটুও বরং বাংলাদেশের চেয়েও বেরেছে অন্য দেশগুলোতে । সেবা পাওয়া থেকে শুরু করে সব ক্ষেত্রেই দুর্নীতির বেড়াজালে দেশ অস্থির । তার মধ্যে নতুন সংযোজন ছোট্ট বাচ্চাদের পরীক্ষার প্রশ্ন ফাসেঁর দুর্নীতি । একই বেঞ্চে দুজন পরীক্ষার্থী থাকলে একজন যদি প্রশ্ন পেয়ে পরীক্ষা দেয় অন্যজন এমনিতেই তার দ্বারা প্রভাবিত হবে এবং অন্য শিক্ষার্থীটিও ঐ পথ অনুসরন করার চেষ্টা করবে । এটা কি ঐ শিক্ষার্থীর দোষ বলা যায় নাকি দুর্নীতির শিকার বলা যায় । ছোটবেলা থেকেই এই যে দেখে দেখে পাশ করার পদ্ধতি বড় হলে তাদের মধ্যে কি মনোভাবের জন্ম দেবে বা তারা তাদের সন্তানকেই বা কি শিক্ষা দেব আর আমরাই বা কি মেধা পাবো তাদের কাছ থেকে ? ভর্তি থেকে শুরু করে শিক্ষার সবজায়গায় দুর্নীতির চরম অরাজকতা চলছেই । এই দুর্নীতি বন্ধ না করতে পারলে কোনভাবেই জাতীয়ভাবে দুর্নীতি বন্ধ সম্ভব নয় । আবার আইন করা হল সরকারি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগের মামলা করতে হলে সরকারের অনুমোদন লাগবে !হাস্যকর একটি ব্যপার হয়ে গেলোনা ? যা যা করতেই হবে দুনীর্তি প্রতিরোধে তা তুলে ধরার চেষ্ট করছি আশা করছি সংশ্লিষ্ট মহল বিষয়টি নিয়ে অধিকতর ভেবে সিদ্ধান্ত নেবে । -সম্প্রতি যে আইনটি করা হয়েছে অর্থাৎ সরকারি চাকুরেদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে গেলে সরকারের অনুমোদন লাগবে সেটি সম্পূর্নভাবে পরিবর্তন করে সরাসরি মামলা করার অনুমোদন দেওয়া । -শিক্ষাক্ষেত্রে দুর্নীতি বন্ধের জন্য নাগরিক ঐক্য কমিটি গঠন করা । -দুদকের জেলা, উপজেলা ভিত্তিক যে কমিটি গুলো রয়েছে সেগুলোকে আরো গতিশীল করা । -বিভিন্ন পরীক্ষায় যে যে প্রশ্নগুলো ফাস হয়েছে তদন্ত সাপেক্ষে তাদের খুজেঁ বের করে শাস্তির ব্যবস্থা করা । -শিক্ষাক্ষেত্রের জন্য আলাদা দুর্নীতি দমন ভ্রাম্যমান আদালত গঠন করা । আমরা চাই শিক্ষার জায়গাটা কালো তালিকার বাইরে থাক । আমাদের সন্তানেরা যেন সঠিক একটি শিক্ষা পেয়ে দেশ গড়ার কারিগর হয় । এই চাওয়া পূরনের জন্য অবশ্যই একটি স্বচ্ছ শিক্ষাব্যবস্থা গড়ে তোলা প্রয়োজন । দুর্নীতি প্রতিরোধ করতে হলে অবশ্যই মূল্যবোধের শিক্ষা ছোটবেলা থেকেই শিশুদের মধ্যে প্রতিস্থাপন করতে হবে ।

দুর্নীতি প্রতিরোধে স্ব, স্ব জায়গা থেকে সক্রিয় হউন ।

৭১৭ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
দুর্নীতি মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার জন্য কাজ করে যেতে চাই ।
সর্বমোট পোস্ট: ১৯০ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ৬৯২ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৯-১৭ ১২:১২:৫১ মিনিটে
banner

১১ টি মন্তব্য

  1. আরজু মন্তব্যে বলেছেন:

    বাহ চমৎকার পরামর্শ দিলেন তো কিভাবে সঠিক মূল্যবোধের শিক্ষায় শিক্ষিত করা যাবে ।আপনার প্রতিটা লেখায় একসঙ্গে থাকছে দেশের সমস্যা সমস্যার প্রতিকার কল্পে করনীয় কি এবং সবশেষে থাকে আপনার বোধদয় বা মেসেজ ।ভাল লাগল আপনার বক্তব্য।

    আপনি ভাল থাকবেন।

  2. শাহ্‌ আলম শেখ শান্ত মন্তব্যে বলেছেন:

    বর্তমান শিক্ষা ব্যবস্থাই
    একসময় দুর্নীতির জন্য
    প্রধানতম দায়ী হবে !
    সহমত ।

  3. এই মেঘ এই রোদ্দুর মন্তব্যে বলেছেন:

    সুন্দর পরামর্শ । ভেবে অবাক হই পিএসসির মত পরীক্ষারও প্রশ্ন পত্র ফাঁস হয় তা আবার ফেবুতে দেখি সবাই আমন্ত্রণ জানাচ্ছে যে কারো প্রশ্ন লাগবে কিনা । মনটাই খারাপ হয়ে যায় । আমার ছেলে আগামী বছর পিএসসি দিবে । আল্লাহই জানেন তখন কি হবে ।

    • সাঈদ চৌধুরী মন্তব্যে বলেছেন:

      ভবিষ্যৎ উদ্বিগ্নের হয়ে দাঁড়াচ্ছে আমাদের জন্য । এ্যাড দিয়ে প্রশ্ন বিক্রি হওয়ার পরও বোর্ডের কাছ থেকে প্রাপ্তি তদন্ত কমিটি!এরকম হতে দেয়া যায় না । আমাদেরও সচেতনতার প্রয়োজন । আমরা যেন নকল প্রশ্নে পরীক্ষা দিতে আমাদের সন্তানদের প্রশ্ন এনে না দেই । এই দায়িত্বগুলো আমাদের নৈতিক আচরনের মধ্যেই পড়ে । ধণ্যবাদ আপনার মন্তব্যের জন্য । ভালো থাকুন সবসময় ।

  4. এস এম আব্দুর রহমান মন্তব্যে বলেছেন:

    সুন্দর পরামর্শের জন্য ধন্যবাদ । ভাল থাকুন ।

  5. আমির হোসেন মন্তব্যে বলেছেন:

    তাই নাকি! ভাল লাগল আপনার লেখা।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top