Today 21 Sep 2019
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

বিজ্ঞানী আলবার্ট আইনষ্টাইন আমার পূর্বপুরষ ছিলেন?(রস রচনা)

লিখেছেন: আরজু মূন জারিন | তারিখ: ২২/১১/২০১৩

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 839বার পড়া হয়েছে।

কালকে রাতে দুইটায় ঘুমাতে গিয়েছি।সাহিত্যের সাধনায় নিয়োজিত থাকতে থাকতে আপন অস্তিত্ব নাওয়া খাওয়া ঘুম সব জৈবিক প্রাকৃতিক ক্রিয়াকান্ড নাকি ভূলে যেতে বসেছি। প্রিয়জনদের এই মত আমার সম্পর্কে। আমি নিজে ও এখন এটা ভাবতে শুরু করেছি হয়তবা যে কোনভাবে হোক আইনষ্টাইন হয়তবা ছিলেন আমার দাদার পরদাদা বা পরদাদার পরদাদা। যে কোন ভাবে নিশ্চয় ই আমি আইনষ্টাইনের সাথে আমার লিন্ক আছে। ঘটনা বর্ননা করলে সবাই তা উপলব্ধি করতে পারবে।

আইনষ্টাইন তার থিয়োরী অব রিলেটিভিটি আবিস্কার করতে গিয়ে অনেক অন্যমনস্কতার সম্মুখীন হয়েছেন। তিনি নাকি তার লাঠিটিকে বিছানায় শুইয়ে তারপর সারারাত জেগে দাড়িয়ে থাকতেন লাঠির জায়গায়। আমার ও সম্প্রতি এরকম হচ্ছে পায়ের জুতা খুলে বিছানায় শুইয়ে আমি দাড়িয়ে থাকি জুতার স্টন্ডের পাশে।

আমার অন্যমনস্কতার গল্প (যা আমার মা বাবার কাছে থেকে শোনা) শুনলে সবাই তা একবাক্যে স্বীকার করবে আমি অবশ্যই আইনষ্টাইনের উত্তরসূরী।

ছোটবেলায় যখন আমি পঞ্চম শ্রেনীতে পড়ি তখন নাকি এরকম করতাম রোড ক্রস করার সময় ভূলে যেতাম রাস্তার ওই পাড়ে যাওয়ার কথা। আমি নাকি দুলকি চালে রাস্তার মাঝখান দিয়ে হাটতে থাকতাম। আমার পিছনে বিপদজনক ট্রাক হর্ন দিতে থাকত। আমি হর্ন ও শুনতাম না। যাই হোক ওই ট্রাক গুলি ছিল জুটমিলের ট্রাক ।তাই তারা আমাকে পিষ্ট করে কখন ও চলে যায়নি। কিন্তু আমার আব্বাকে তারা বলত ডি সি সাহেব আপনার মেয়ের পিছনে বাস ট্রাক হর্ন দিতে থাকে তার কোন খবর থাকেনা সে কি যেন ভাবতে থাকে সারাদিন।

টরন্টো তে আসার পরে যেটা হয়েছে সবসময় যখন বাসে উঠি অবধারিতভাবে আমি আমার স্টপ ছেড়ে অন্য স্টপে নেমে পড়ি।গাড়ী চালাতে গিয়ে রেড লাইট ক্রস করে চলে যাই।এজন্য গাড়ী চলানো এখন আমার জন্য বিপদজনক ।

তো সবাই ভেবে দেখ আইনষ্টাইন এর সাথে কি সম্পর্কীভূত না।

৯২৬ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
নিজের সম্পর্কে কিছু বলতে বললে সবসময় বিব্রত বোধ করি। ঠিক কতটুকু বললে শোভন হবে তা বুঝতে পারিনা । আমার স্বভাব চরিত্র নিয়ে বলা যায়। আমি খুব আশাবাদী একজন মানুষ জীবন, সমাজ পরিবার সম্পর্কে। কখনো হাল ছেড়ে দেইনা। কোনো কাজ শুরু করলে শত বাধা বিঘ্ন আসলেও তা থেকে বিচ্যুত হইনা। ফলাফল পসিটিভ অথবা নেগেটিভ যাই হোক শেষ পর্যন্ত কোন কাজ এ টিকে থাকি। জীবন দর্শন" যতক্ষণ শ্বাস ততক্ষণ আশ " লিখালিখির মূল উদ্দেশ্যে অন্যকে ভাল জীবনের সন্ধান পেতে সাহায্য করা। মানুষ যেন ভাবে তার জীবন সম্পর্কে ,তার কতটুকু করনীয় , সমাজ পরিবারে তার দায়বদ্ধতা নিয়ে। মানুষের মনে তৈরী করতে চাই সচেতনার বোধ ,মূল্যবোধ আধ্যাতিকতার বোধ। লিখালিখি দিয়ে সমাজে বিপ্লব ঘটাতে চাই। আমি লিখি এ যেমন এখন আমার কাছে অবাস্তব ,আপনজনের কাছে ও তাই। দুবছর হলো লিখালিখি করছি। মূলত জব ছেড়ে যখন ঘরে বসতে বাধ্য হলাম তখন সময় কাটানোর উপকরণ হিসাবে লিখালিখি শুরু। তবে আজ লিখালিখি মনের প্রানের আত্মার খোরাকের মত হয়ে গিয়েছে। নিজে ভালবাসি যেমন লিখতে তেমনি অন্যের লিখা পড়ি সমান ভালবাসায়। শিক্ষাগত যোগ্যতা :রসায়নে স্নাতকোত্তর। বাসস্থান :টরন্টো ,কানাডা।
সর্বমোট পোস্ট: ২২৯ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ৩৬৮৩ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৯-০৫ ০১:২০:৩৫ মিনিটে
banner

১৫ টি মন্তব্য

  1. শাহ্‌ আলম শেখ শান্ত মন্তব্যে বলেছেন:

    ভাল লাগল
    আপনার সাথে আইনস্টাইনের একটু শৈশবের মিল ।
    এখনো কি ট্রাক হর্ণ দিলে সাইট দেননা ?

    • আরজু মন্তব্যে বলেছেন:

      এখন ডিসিস আরও বাড়ছে।রেড লাইটে গাড়ী চালানো শুরু করি আইনস্টাইনের ফরমুলা মনে করতে করতে।ধন্যবাদ শান্ত ভাই মজার কমেন্টস এর জন্য।

  2. শাহ্‌ আলম শেখ শান্ত মন্তব্যে বলেছেন:

    আজকেই আপনার প্রোফাইল পড়লাম । বেশ সাঁজিয়েছেন কবি ও সাহিত্যিক হিসেবে যেমনটা দরকার ঠিক তেমনি ।
    জেনে ভাল লাগল তবে জন্ম স্থানের পরিচয়টি দিলে বেশ হতো ।
    আর লক্ষ্য করলাম করেকটি বানানে ত্রুটি আছে , হয়তোবা টাইপে ভুল হয়েছে এটা সমস্যা নয় এডিট করে নিবেন ।
    আপনার সফলতা কামনা করি ।

    • আরজু মন্তব্যে বলেছেন:

      আমার হোম ডিস্টিক্ট কুমিল্লা।তবে আমার জন্ম ঢাকায়।এখন আমার আব্বা আম্মার বাসা ঢাকা ঝিকাতলা রায়ের বাজার ।

      ইস হ্যা এটা ঠিক বলেছেন।আমি লিখতে গিয়ে অনেক বানান ভূল করি।
      আপনাকে ধন্যবাদ কমেন্টস এর জন্য।

  3. এম, এ, কাশেম মন্তব্যে বলেছেন:

    মিস টরেন্টো,
    আপনি তো আমার প্রতিবেশী,
    এত দিন এটা খেয়াল করিনি,
    হ্যাঁ, এসব দেশে থাকলে আইনস্টাইনের
    উত্তরসূরী না হয়ে কি উপায় আছে?
    ফেইস বুকে আপনার আই ডি দিয়ে খোজলাম,
    কিন্তু পেলাম না, আই ডি কি ইংরেজীতে লিখে দিবেন?

    অনেক ভাল লাগা।

  4. শ্যাম পুলক মন্তব্যে বলেছেন:

    আইনস্টাইন কিন্তু বাড়ির নাম্বার ভুলে যেতেন। ভবিষ্যতে আপনার সেই রকম অবস্থা হবার সম্ভাবনা আছে কিন্তু।

    আর এখন দেখা যাক আপনি কি সুত্র আবিষ্কার করেন। আইনস্টাইন তো থিওরি অফ রিলেটিভিটি আবিষ্কার করেছিলেন।
    ভাল থাকবেন সবসময়। তবে মন্দ থাকলেও ভাল। লেখালেখির জন্য মন্দ থাকাটাই ভাল।

    • আরজু মন্তব্যে বলেছেন:

      এটা আমার প্রায় সময় হয়।এমনি এমনি কি আর বললাম আমার পূর্বপুরূষ আইনস্টাইন।আমার বাসা উনিশ তালায়।১৯০৩ বাসা। আমি কোনদিন নেমে পড়ি ১৮ তলা কোনদিন ১৭ তলায়।এটা কমন সিনারী।দরজায় লক না দিয়ে প্রায় সময়ই বের হয়ে যাই। ভাগ্যিস আল্লাহ সবসময় আমাকে সহি সালামতে রাখছে সব অনিষ্ট থেকে।এবং এটার কারনে আমার সংসার যুদ্ধ হয়।আমি খুব অগোছালো কেয়ারলেস ওয়াইফ হিসাবে পরিচিত।

      আইনষ্টাইন কাজে ভূলে যেত আর আমি ভূলে যাই অকাজে।

    • আরজু মন্তব্যে বলেছেন:

      পূলকের লেখায় সবসময় পূলকের সঞ্চার হয়।দোয়া করবেন আমি এক অন্যরকমের সুত্রের খোজে আছি।কোন লেখা দিয়ে আমদের সমাজকে বিশাল ঝাকুনি দেওয়া যায়।স্বপ্ন দেখি রুশ বিপ্লব ফরাসী বিপ্লব এর মত হবে একদিন এই সমাজে।আমাদের রুপান্তর হবে সচতন মানবগোষ্ঠী রুপে।

  5. আমির হোসেন মন্তব্যে বলেছেন:

    অন্যরকম। শুভ কামনা ।

  6. মৌনী রোম্মান মন্তব্যে বলেছেন:

    লেডি আইন্সটাইনের সাথে আমার পরিচয় আছে জেনে গর্ব হচ্ছে ! :)
    উদ্যম লেখালেখি চলুক আপনার সারাজীবন, তবে রাস্তায় সাবধানে চলাফেরা করবেন । নিরাপদে থাকবেন

  7. আরজু মন্তব্যে বলেছেন:

    ধন্যবাদ মোনী র ।

  8. সাঈদ চৌধুরী মন্তব্যে বলেছেন:

    ভালো লেগেছে আপনার রসরচনাটি । ধণ্যবাদ ।

  9. আরজু মন্তব্যে বলেছেন:

    ধন্যবাদ সাঈদ ভাই ।আমার লিখা পড়ার জন্য।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top