Today 25 May 2018
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

বিশ্রাম কাজেরই অঙ্গ

লিখেছেন: আরজু মূন জারিন | তারিখ: ১৮/০১/২০১৪

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 272বার পড়া হয়েছে।

বিশ্রাম

বিশ্রাম কাজেরই অঙ্গ
একই সঙ্গে পাতা
নয়নের অংশ যেন
নয়নেতে গাঁথা।

(রবীন্দ্রনাথের ক্ষনিকা থেকে)

বিশ্রাম

বিশ্রাম কিছুক্ষন সবার জন্য
আজকের দিনটা
আমার তোমার চলন্তিকার সবার জন্য
আমার গল্পের যত ভূত প্রেত পিশাচ দের জন্য।

একদিনের জন্য সবাইকে ভয়ের রাজ্য থেকে
কঠিন কর্মজগত সরিয়ে
বিশ্রামের রাজত্বে আনতে চাই।

সরে যাও যত ভূত প্রেত পিশাচ
আজ মানুষের লোকালয় ছেড়ে
যাও ফিরে নিজ আবাসে
তোমাদের সমাধিস্থানে।

ভূত প্রেতের কাহিনী লিখতে লিখতে
এই দুইদিনে মাথার চুল অর্ধেক
নাই হয়ে গেছে।
আচ্ছা একটা জিনিস খুব জানতে ইচ্ছে করে
লিখালিখি বা মস্তিষ্কের কাজ বেশী করলে
মনে হয় চুল পড়তে থাকে।

না কথাটা মনে হয় ঠিক হলনা।
তাহলে রবীন্দ্রনাথ নজরুল দুইজনের
যে কেশবতী লম্বা ঝাকড়া চুলের বাহার।
না চুল পড়ার অনেক কারন আছে এটা ঠিক।
চুল পড়ার কারন মনে হয় বিবিধ গবেষনা যোগ্য।
আমি এই কয়টা কারন খুজে পেলাম।

১ টেনশনে চুল পড়ে
২ ঘুম কম হলে নাকি চুল পড়ে
৩ তেল ভাজাভূজি জাতীয় খাওয়ার বেশী
খেলে নাকি স্কিনের সাথে চুলের প্রবলেম হয়।
৪ হজমের প্রবলেমে চুল পড়ে।
৫ পর্যাপ্ত পরিমান বিশ্রামের অভাবে নাকি চুলের অযত্ন হয়।

তবে আমার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশী দেখলাম লিখালিখা আর
বিশ্রামের অভাবে মনে হয় চুল পড়া শুরু করেছে সম্প্রতি।
তাই সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমার চলন্তিকার সব বন্ধুদের আমার
বড়লেখা পড়ার হাত থেকে আজকে একদিন অন্তত রেহাই দিব।
তাছাড়া চিন্তা করলাম আমার ভূতপ্রেত গুলিও সমাধিস্থান
থেকে মানুষের লোকালয়ে আমার সঙ্গে দৌড়াদৌড়ি করে অনেক ক্লান্ত।
তোমরা সবাই ও (চলন্তিকার বন্ধু ও পাঠক) আমার বড় বড় লেখা পড়
আবার কমেন্টস করতে গিয়ে নিশ্চয় ক্লান্ত হয়ে পড়ছ ।বিরক্ত হয়ে পড়ছ।

বিশ্রাম

সবাইকে একদিনের বিশ্রাম দেওয়া গেল।
তবে কালকে আসছি।
শনিবার রাত সব পিশাচ কে
কবরের ডালা খুলে বের করে দেওয়া হবে।
আজকের রাতের জন্য সবাই

অনেক সুখে থাক
শান্তিতে থাক
প্রিয়জনের সথে
ভালবাসায় শান্তিতে
মিলেমিশে থাক
আর আমার জন্য
বেশী বেশী বেশী
দোয়া করতে থাক।

শুভ রাত্রি -শুভ সকাল (যার যে সময় )।

৩৭৭ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
নিজের সম্পর্কে কিছু বলতে বললে সবসময় বিব্রত বোধ করি। ঠিক কতটুকু বললে শোভন হবে তা বুঝতে পারিনা । আমার স্বভাব চরিত্র নিয়ে বলা যায়। আমি খুব আশাবাদী একজন মানুষ জীবন, সমাজ পরিবার সম্পর্কে। কখনো হাল ছেড়ে দেইনা। কোনো কাজ শুরু করলে শত বাধা বিঘ্ন আসলেও তা থেকে বিচ্যুত হইনা। ফলাফল পসিটিভ অথবা নেগেটিভ যাই হোক শেষ পর্যন্ত কোন কাজ এ টিকে থাকি। জীবন দর্শন" যতক্ষণ শ্বাস ততক্ষণ আশ " লিখালিখির মূল উদ্দেশ্যে অন্যকে ভাল জীবনের সন্ধান পেতে সাহায্য করা। মানুষ যেন ভাবে তার জীবন সম্পর্কে ,তার কতটুকু করনীয় , সমাজ পরিবারে তার দায়বদ্ধতা নিয়ে। মানুষের মনে তৈরী করতে চাই সচেতনার বোধ ,মূল্যবোধ আধ্যাতিকতার বোধ। লিখালিখি দিয়ে সমাজে বিপ্লব ঘটাতে চাই। আমি লিখি এ যেমন এখন আমার কাছে অবাস্তব ,আপনজনের কাছে ও তাই। দুবছর হলো লিখালিখি করছি। মূলত জব ছেড়ে যখন ঘরে বসতে বাধ্য হলাম তখন সময় কাটানোর উপকরণ হিসাবে লিখালিখি শুরু। তবে আজ লিখালিখি মনের প্রানের আত্মার খোরাকের মত হয়ে গিয়েছে। নিজে ভালবাসি যেমন লিখতে তেমনি অন্যের লিখা পড়ি সমান ভালবাসায়। শিক্ষাগত যোগ্যতা :রসায়নে স্নাতকোত্তর। বাসস্থান :টরন্টো ,কানাডা।
সর্বমোট পোস্ট: ২২৯ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ৩৬৮৩ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৯-০৫ ০১:২০:৩৫ মিনিটে
banner

১৯ টি মন্তব্য

  1. মৌনী রোম্মান মন্তব্যে বলেছেন:

    ও আপু তোমার দেয়া ছুটির দিনে আমার বিশ্রাম নেই, একটু পর পরীক্ষা !
    ভালো থেকো আর দোয়া করো আমার জন্য

  2. আরজু মন্তব্যে বলেছেন:

    ইনশাআল্লাহ।দোয়া করছি। কি পরীক্ষা।

  3. আমির হোসেন মন্তব্যে বলেছেন:

    বিশ্রাম কাজেরই অঙ্গ
    একই সঙ্গে পাতা
    নয়নের অংশ যেন
    নয়নেতে গাঁথা।———-কথাগুলো একদম ঠিক। আপনিও এখন একটু বিশ্রাম নিন।

  4. সাঈদ চৌধুরী মন্তব্যে বলেছেন:

    সবার চুল অটুট থাকুক । টেনশন কমে যাক । জীবন হয়ে উঠুক আনন্দময় । ধণ্যবাদ সুন্দর লোর জন্য ।

  5. আরজু মন্তব্যে বলেছেন:

    ধন্যবাদ সুন্দর গুড উইশের জন্য।ভাল থাকবেন ।শুভ কামনা।

  6. ওয়াহিদ উদ্দিন মন্তব্যে বলেছেন:

    শক্তি ফিরে পাওয়ার জন্য বিশ্রাম অবশ্যই প্রয়োজন। ভাল লিখেছেন।

  7. আরজু মন্তব্যে বলেছেন:

    ধন্যবাদ কমেন্টসের জন্য।শুভকামনা।ভাল থাকবেন।

  8. তাপসকিরণ রায় মন্তব্যে বলেছেন:

    লেখাতে অনেক সময় কেটে যায় কি ? না লিখলে ভাবনাগুলি কি আপনাকে নিপীড়ন করে?মাঝে মাঝে পড়বেন–নিজের লেখার স্বার্থেই।ভাবনাগুলি ভাল লাগলো।

    • আরজু মন্তব্যে বলেছেন:

      ধন্যবাদ তাপসদা সুন্দর উপদেশের জন্য।ঠিক বলেছেন পড়া উচিত।ভাল লিখতে চাইলে আগে বড় বড় রাইটারদের বই বেশী বেশী পড়া উচিত।এখন আসলে ওইভাবে সময় হয়ে উঠেনা।তবে চলন্তিকাতে আপনাদের সবার লেখা পড়ি।বহিবিশ্বের আর বাংলাদেশী ইদানীংকালের বইগুলি পড়া হয়নি ।ধন্যবাদ আপনাকে।

  9. আবদুল্লাহ আল নোমান দোলন মন্তব্যে বলেছেন:

    বিশ্রাম আর দিলেন কই?কত্ত বড় লেখা!!পড়তে পড়তে ছুটির দিনটাও তো কেটে গেল।

  10. কে এইচ মাহবুব মন্তব্যে বলেছেন:

    বিশ্রাম কাজেরই অঙ্গ
    একই সঙ্গে পাতা
    নয়নের অংশ যেন
    নয়নেতে গাঁথা।

    অনেক অনেক ভালো লাগলো ।

  11. এস এম আব্দুর রহমান মন্তব্যে বলেছেন:

    বিশ্রাম কাজেরই অঙ্গ বলেইতো সপ্তাহে দুই দিন ছুটি থাকা সত্যেও মালিক বেতন কেঁটে নেয়না । কবিতাটি
    ভাল লাগল । শুভ কামনা ।

  12. এই মেঘ এই রোদ্দুর মন্তব্যে বলেছেন:

    বিশ্রামটাও ভালই দিছ আপি। ধন্যবাদ

  13. আরজু মন্তব্যে বলেছেন:

    আআ দূঃখিত দোলন ভাই ।এটা একটা বাজে স্বভাব হয়ে গেছে বকার।লেখা কেন জানি বড় হয়ে যায়।তারপরে ও যে কষ্ট স্বীকার করে পড়েছেন তার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ।চেষ্টা করুন না ছুটির দিনগুলোতে নুতুন করে লাইব্রেরীটকে আবার গড়ে তুলতে।

    ধন্যবাদ আপনাকে মন্তব্যের জন্য।ভাল থাকবেন।

  14. আহসান হাবীব সুমন মন্তব্যে বলেছেন:

    কোন বিশ্রাম চলবে না ।

    আরো অনেক অনেক লেখা চাই ।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top