Today 21 Sep 2019
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

মনমোহনী বৃক্ষ-অংশ ১৬

লিখেছেন: রাজিব সরকার | তারিখ: ২৭/১০/২০১৪

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 528বার পড়া হয়েছে।

মোহনী নীলিতের চুলে হাত ভুলিয়ে দিতে দিতে বলল-খুব ভাল।
দিনের আলো নিভে গেছে।ধরণীর বুকে নেমে এসেছে আধার।নিহাতের বাবা নীলিন আসার সময় হয়ে গেছে।সাতটা বাজে।সাতটা সাড়ে সাতটার মাঝে বাসায় আসেন।ছেলেমেয়েরা সবাই তাকে বেশ ভয় পায়।ভয়ে টিভির সিরিয়াল পর্যন্ত দেখতে পারে না।টিভি চালাতে দেখলেই খুব রেগে যায়।যেন টিভি দেখা মহা-অপরাধ।
-এই শুন বাবা আসার সময় হয়ে গেছে।
মোহনী নিহাতের দিকে তাকাল-তো?
-নীলিত রূপা রুম হতে এখন যা।
-থাক না,ওদের সামনেই বল।
-না বলা যাবে না।
অনিচ্ছা তবুও রূপা নীলিত রুমের বাইরে গেল।
-বাবা কিন্তু খুব কঠিন মানুষ।
-উনি কি বায়বীয় তরলে রূপান্তরিত হতে পারেন না?
-দেখ এটা ফাজলামি করার সময় না।
মুখে গম্ভীরতা এনে বলল-দেখ এটা ফাজলামি করার সময় না।
-উঃ তোমাকে নিয়ে আর পারা যায় না।
-হু বল,এবার আমি সিরিয়াস।
-বাবা এসেই তো মনে হচ্ছে হইচই বাজিয়ে দিবে।
-হইচই বাজাবে কেন?
-আসতে না আসতেই মা তোমার কথা কানে দিবে।ভাগ্যে কি আছে তা শুধু গডই জানে।
-ভাগ্যে যা আছে তা তো হবেই,তা নিয়ে ভেবে লাভ কি?
-শুন বাবা তোমাকে জেরা করতে পারে।কোথায় পড়,বাসা কোথায় জানতে চাইতে পারে।বলবে অণুজীব ইংরেজিতে মাইক্রোবায়োলজি ফাইনাল ইয়ার।বাসা আশে পাশে কোথাও বলবে।
-আশে পাশে বলতে?
-বলতে পার আজিমপুর ছাপড়া মসজিদের পাশে।
-ওকে।কোন বিষয়ে পড়ি বললে?
-অণুজীব।ভাইরাস ব্যাকটেরিয়া নিয়ে পড়াশুনা।
নিহাত ঠিক ভরসা পেল না।মেয়েটা বাবার সামনে কী গণ্ডগোল করে ফেলে কে জানে?তার কপালে যে শনি আছে তা হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছে।

৫১১ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
সর্বমোট পোস্ট: ১৭১ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ২৪৪ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৮-৩০ ১৬:১৭:৫০ মিনিটে
banner

৩ টি মন্তব্য

  1. সহিদুল ইসলাম মন্তব্যে বলেছেন:

    ক্ষমা করবেন ভাই , আমি কয়েকবার পড়েছি, কিন্তু সারমর্ম কি বুঝলাম না।

  2. রাজিব সরকার মন্তব্যে বলেছেন:

    দাদা গল্পটা এখন শেষ হয়নি…যখন শেষ হবে…তখন আশা করি বুঝবেন…ধন্যবাদ আপনাকে

  3. এই মেঘ এই রোদ্দুর মন্তব্যে বলেছেন:

    মজাই লাগতেছে। লিখে যান ভাইয়া।

    #সহিদ ভাই গল্পটা ত সহজ সরল ভাষায় লেখা। না বুঝার কারণ বুঝতেছি না। পুরোটা মনযোগ দিয়ে পড়ুন।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top