Today 21 Jul 2019
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

মন্টির ভূত দেখা

লিখেছেন: বিএম বরকতউল্লাহ্ | তারিখ: ২৬/০৮/২০১৩

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 546বার পড়া হয়েছে।

দশ বছরের ছেলে মন্টি। বায়না ধরে বসে আছে, ভূত দেখাতে হবে। একটামাত্র ছেলে। যা চেয়েছে তা এবং যা চায়নি তাও পেয়ে তার অভ্যেস। সুতরাং ভূত দেখতে চাওয়াটা তার জন্য অন্যায় আবদার না। তবে হঠাৎ করে সে কেন যে এমন একটা ভয়ানক আবদার করে বসল এ নিয়ে সবার চিন্তারর শেষ নেই। এদিকে মন্টির শ্লোগান ”এক কথা এক দাবী-ভূত দেখাতে কবে যাবি।”

তার পিতা-মাতা তার কোনো আবদারই অপূর্ণ রাখে নি। সে যখন যা চেয়েছে তাই এনে দিয়েছে। কিন্তু এবারকার আবদারটা এতই বেতাল ধরনের যে, ইচছা করলেই দাবীটা মেটানো যায় না। অতএব মা বাবা উভয়েই একটা দুশ্চিন্তায় পড়ে গেল। শত হোক সন্তানের আবদার!

মন্টির আর তর সয় না। উঠতে-বসতে তার তূত দেখার বায়না। ভূত না দেখা পর্যন্ত সে শান্তি পাচ্ছে না। ভূত দেখাতেই হবে তাকে।
মন্টির মা-বাবা দুজনে এখানে-সেখানে ফিসফাস করে শলাপরামর্শ করে। কিন্তু কোনো কিনারা খুঁজে পায় না। ভূতের নাম শুনলে যেখানে গায়ের লোম খাঁড়া হয়ে যায়, কলজে শুকিয়ে কাঠ হয়ে যায়, সারা গতর থত্থর করে কাঁপে সেখানে ছেলেকে কীভাবে ভূত দেখানো যায় এ নিয়ে মেলা টেনশন ওদের। একটামাত্র আদরের ধন, তার ইচ্ছা অপূর্ণইবা রাখে কী করে?

এদিকে ভূত দেখার বায়না ধরে মন্টি গাল ফুলিয়ে পাল বানিয়ে বসে আছে। খাওয়া-দাওয়া, পড়া-লেখায় মন বসছে না মোটেও। শত যুক্তি-তর্ক করে বহুভাবে ভয় দেখিয়েও তাকে বিরত করা যায়নি। ভূত দেখবেই সে। নানা ভঙ্গিতে ভয় দেখিয়ে কাজের কাজ কিছুই হলো না বরং তার ভূত দেখার আগ্রহটা আরো বেড়ে গেল। মন্টির সাহস দেখে সবাই অবাক! দশ বছরের ছেলে!

অন্ধকার রাত। মন্টির বাবা মন্টিকে বলল, ”তাড়াতাড়ি রেডি হও, এুণি ভূত দেখতে যাব।” মন্টি আনন্দে লাফিয়ে উঠে বলল, বাবা, ”কী পরে যেতে হবে? সাথে কী কী নিতে হব%E

৭৭৩ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
@ লেখালেখি করি সেই ছোটোবেলা থেকেই। বাবার কাছে হাতেখড়ি। বাবা লিখে আমাকে পড়াতেন। আর আমি লিখে বাবাকে দেখাতাম। তালে তালে তালাতালি! জাতীয় দৈনিকে, রেডিওতে আর্টিকেল, ফিচার, রম্য ও ছড়া লিখতাম একসময়। তারপর শিশুতোষ গল্পের প্রতি ঝুকে পড়ি। ছড়া লিখি মাঝে মধ্যে। @ প্রকাশিত গ্রন্থঃ ছয়টি। @ প্রাপ্ত পুরষ্কারঃ জাতিসংঘ (ইউনিনসেফ) কর্তৃক আয়োজিত দেশব্যাপী বড়োদের গ্রুপে গল্পলেখা প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করে "মীনা মিডিয়া এ্যাওয়ার্ড ২০১১" লাভ করি। @ পেশাঃ চাকরি। @ পেশাগত কারণে ব্যস্ততার মধ্যেই কাটে সময়। এরই মধ্যে সময় করে লেখালেখি করার চেষ্টা করি। প্রিন্ট ও ইলেকট্রিক মিডিয়াতে নিয়মিত লিখছি। লেখায় গতানুগতিক চিন্তা-চেতনার পরিবর্তে স্বকীয়তার ছাপ রাখার চেষ্টা করি। ব্লগে লিখে অনেক আনন্দ পাই। প্রিয় পাঠকদের মন্তব্য, পরামর্শ ও উপদেশ আমার লেখালেখির মতো সৃজনশীল কাজে শুধু অণুপ্রেরণাই যোগায় না; নিজেকে পরিশুদ্ধ ও লেখার উৎকর্ষ সাধনে যথেষ্ট ভূমিকা রাখে।
সর্বমোট পোস্ট: ২৮ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ১৬৭ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৫-২৯ ১১:৫১:৫৪ মিনিটে
banner

২ টি মন্তব্য

  1. আবদুল্লাহ আল নোমান দোলন মন্তব্যে বলেছেন:

    হুম………এমন করেই গপ্পবাজদের কল্যাণে ভূত মামা আমাদের মনে স্থায়ী বসত গড়েছে।ধন্যবাদ গপ্পবাজ লেখক।

  2. আমির হোসেন মন্তব্যে বলেছেন:

    ভুতের গল্প দারুন হয়েছে।

go_top