Today 20 Nov 2019
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

মমতার মম

লিখেছেন: মুহাম্মদ দিদারুল আলম | তারিখ: ১৬/০৯/২০১৩

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 551বার পড়া হয়েছে।

তিন বছরের ছোট্ট সংসার ছিলো মমতার। স্বামীর অন্য নারীতে আগ্রহের জের ধরে দুজনের মাঝে ঝগড়া হয়। রাগের মাথায় ছোট্ট মেয়েটাকে নিয়ে ভাইয়ের বাসায় চলে আসে মমতা। ভেবেছিলো প্রতিবারের মত এবারও স্বামী তাকে রাগ ভাঙিয়ে ফিরিয়ে নিয়ে যাবে। আবারও স্বামী স্ত্রীর কাছে প্রতিশ্র“তিবদ্ধ হবেন, মেয়ের মাথায় হাত রেখে প্রতিজ্ঞা করবে স্ত্রী যা পছন্দ করে না তা তিনি আর কখনও করবেন না। দিন যায়,মাস যায় কেও আর নিতে আসে না।
অনেক দিন পরে হঠাৎ খবর পান মমতা -তার স্বামী আবার বিয়ে করেছে। তাকে ছাড়াও চলছে। মমতার মাথায় আকাশ ভেঙ্গে পড়ে। তার গোছানো সংসারটায় এখন অন্যজনের আধিপাত্য! এত বড় কষ্ট মমতা সহ্য করবে কিভাবে? তিন তিনটা বছর যে সংসারটা নিজে আস্তে আস্তে গড়ে তুলেছে সে সংসারে এখন অন্যজন! ভাবতে সে অবাক হয়ে যায়। অবশেষে দেনা পাওনার সব হিসাব চুকে এখন একলা জীবন মেয়ে আর মায়ের।
দুই.
মেয়ের মুখের দিকে তাকিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করেননি। মেয়ে মমর অনুভবে একজন দুঃখিনী মা মমতা। মম এখন সব কিছু বুঝতে শিখেছে। ১৭ বছর বয়সী মম এখন উচ্চমাধ্যমিক শ্রেণীর ছাত্রী। মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা মমতার সব দুঃখ তার মেয়ে বুঝতে শিখেছে। মমতার টানাপোড়নের সংসার স্কুল থেকে একমাস বেতন পানতো দুইমাস পান না। টিউশনি করে যখন দিন চলছিলো পারিবারিক কলহে ভাইয়ের সংসার থেকেও বিতাড়িত। ভাইয়ের বউ চান না এত বড় সংসার। নানী,মা আর মমর এখন নতুন সংসার। এর আগে মমর মাকে ছাড়তে হয়েছিলো বাবার সংসার।
দুই রুমের বাসায় আসবাব বলতে দুটি খাট, একটি পড়ার টেবিল ও একটা আলনা। কষ্টেসৃষ্টে কোন রকমে দিন চলছে। অথচ এমন একটা দিন ছিলো- বিশাল খোলামেলা বাসা,গেইটের পাশে শিউলি গাছ; রাতে হাসনাহেনার প্রাণ মাতানো সুগন্ধ। সংগ্রামী আদর্শ মায়ের প্রতি মমর সর্বদা শ্রদ্ধা। কিন্তু অর্থনৈতিক অনিশ্চয়তায় অসহায় মায়ের মুখটা বড়ই করুণ।একসময় তাঁর সবই ছিল, এখন কিছুই নেই। মমর ভাবনায় আসে জীবনে সে পুরুষ লোকের সাথে তার জীবনটা বাঁধবেনা। সব পুরুষকে সে এক পাল্লায় মেপে যায়। এদিকে মমতার চিন্তা দিন দিন বাড়তে তাকে মেয়ে দেখতে দেখতে অনেক বড় হয়ে গেছে। টানাপোড়নের সংসারে কিভাবে মেয়েকে একটা ভালো ছেলের হাতে তুলে দিবে। হঠাৎ তার স্বামীর কথা মনে পড়ে যায় মমতার। ভাবে আমার মেয়ের জীবটা যদি আমার মত হয়! কি করবে মম? ও ছাড়া যে আমার আর কেও আপন নাই।

৬১০ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
সর্বমোট পোস্ট: ৭৭ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ১০১ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৮-২৮ ১১:৫৮:৪৮ মিনিটে
banner

৫ টি মন্তব্য

  1. শাহ্‌ আলম শেখ শান্ত মন্তব্যে বলেছেন:

    ভাল লাগল । অনেক মমতার অবস্থা একই ।

  2. খাদিজাতুল কোবরা লুবনা মন্তব্যে বলেছেন:

    মমতার মম…

    ভালো লাগলো…মুহাম্মদ দিদারুল আলম

  3. আমির হোসেন মন্তব্যে বলেছেন:

    মমতার মম ভাল লাগল।

  4. সহিদুল ইসলাম মন্তব্যে বলেছেন:

    একটা ভালো ছেলের হাতে তুলে দিবে। হঠাৎ তার স্বামীর কথা মনে পড়ে যায় মমতার। ভাবে আমার মেয়ের জীবটা যদি আমার মত হয়! কি করবে মম? ও ছাড়া যে আমার আর কেও আপন নাই।

    আসলে পুরুষ আর নারী বলে কোন কথা নেই , অমানুষরা চিরকাল অমানুষ।

  5. সবুজ আহমেদ কক্স মন্তব্যে বলেছেন:

    ভালো লাগল পড়ে বেশ

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top