Today 19 Oct 2019
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

রাজিয়া ভিলা -৩

লিখেছেন: জসীম উদ্দীন মুহম্মদ | তারিখ: ২৫/০৬/২০১৪

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 397বার পড়া হয়েছে।

০৩

অনবরত কলিং বাজছে । জুলফিকার সাহেব নির্বিকার । কোন ভ্রুক্ষেপ নেই তার । দরজা খোলার কোন আগ্রহ পাচ্ছেন না । মস্তিষ্কের সাড়া নেই । কেনই বা সাড়া থাকবে ? কার জন্য থাকবে ? এতদিন রাজিয়ার জন্য অপেক্ষা করতেন; এখন কার জন্য করবেন ? স্ত্রী-পুত্র-কন্যা কোথাও কেউ নেই । সব ফাঁকা । শুধুই ফাঁকা ।

অনেকক্ষণ পর দরজা খুলে দিলেন । জরিনা । কাজের বুয়া । মধ্যবয়সী মহিলা । কথা না বলে থাকতে পারেন না । এটা সেটা বলতেই থাকেন । জুলফিকার সাহেবকে মামা বলে ডাকেন । বেশ কয়েক বছর হল সে এখানে কাজ করছে । স্বভাব চরিত্র ভাল । হাত টানের অভ্যাস নেই । রান্না বান্নার হাতও নেহায়েত মন্দ নয় । পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন । সারাদিন কাজ করে সন্ধ্যার পর পর চলে যান । কিছু একটা বলার জন্য জরিনা অনেকক্ষণ ধরে চেষ্টা করছে । কেন জানি বলতে পারছে না । বিষয়টি জুলফিকার সাহেবের অভিজ্ঞ চোখকে এড়াতে পারল না । জুলফিকার সাহেব জিজ্ঞেস করলেন, কিছু বলবে জরিনা ?
জী মামা, একখান কথা কইতাম ।
বল ।
জরিনা কিছু বলছে না । চুপ করে আছে । সুনসান নীরবতা । জুলফিকার সাহেব বিষয়টি আঁচ করতে পেরে বললেন, তোমার কোন ভয় নেই । নিশ্চিন্তে বলে ফেল ।
জরিনা মাথা নিচু করে আমতা আমতা করতে করতে বলল, মামা আমি আর কাজে আসুম না ।
জুলফিকার সাহেব আকাশ থেকে পড়লেন না । তাঁর মুখ দেখে মনে হচ্ছে বিষয়টি তিনি জানতেন । তাছাড়া কাজ করা না করার ব্যাপারটি তার সম্পূর্ণ ইচ্ছাধীন । তবু বললেন,
কেন কাজ করবে না জানতে পারি কী ?
বাসায় একা একা সারাদিন আমার ভালা লাগে না ।
কেন আমি তো আছি ।
আপনার সাথে কি এত কথা বলা যায় ?
কেন বলা যাবে না; আমি কী মানুষ না?
সেইটা না মামা ।
জুলফিকার সাহেব আর কথা বাড়ালেন না । বাথরুমে ঢুকলেন । কোন প্রয়োজন নেই তবু । একাকীত্ব আর নির্জনতাকে আরও বাড়িয়ে তোলার অপপ্রয়াস মাত্র !
(চলমান)

৪০১ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
সর্বমোট পোস্ট: ২২৬ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ১৬০৬ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৪-০১-২৪ ১৬:৪০:১২ মিনিটে
banner

৩ টি মন্তব্য

  1. এই মেঘ এই রোদ্দুর মন্তব্যে বলেছেন:

    ভাল লাগল

  2. সবুজ আহমেদ কক্স মন্তব্যে বলেছেন:

    খুব ভালো লাগলো পড়ে

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top