Today 15 Oct 2018
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

রিভিউঃ রানা—৪৩৬, জাপানি টাইকুন প্রথম পর্ব ও দ্বিতীয় পর্ব

লিখেছেন: গোলাম মাওলা আকাশ | তারিখ: ২৩/১২/২০১৪

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 411বার পড়া হয়েছে।

রিভিউঃ রানা—৪৩৬, জাপানি টাইকুন প্রথম পর্ব ও দ্বিতীয় পর্ব

df

>>রিভিউ ও কিছু কথাঃ

দুই একদিন আগে কোন এক ভাই প্রশ্ন করেছিল MR9,3G,We পড়ে কিছু শিখি কি না?
>আমার উত্তর ছিল হা শিখি। অনেক কিছুই শিখি। তবে তা পড়ুয়ার মন মানসিকতার উপর সম্পূর্ণ নির্ভরশীল। সে বইটা কি জন্য পড়বে কেন পড়বে তার ভিতরেই এর উত্তর নিহিত।কেও যদি শুধু মনের আনন্দের জন্য পড়ে তবে সে বই এর পাতা হতে শুধু তাই পাবে। যদি সঙ্গে সঙ্গে কেও শিক্ষার উদ্দেশ্য নিয়ে পড়ে সে তাও পাবে। আরও অনেক দৃষ্টিকোণ হতে দেখা যায় যে কোন বই পড়াকে। আমার দৃষ্টি কোন হতে ঐ দুটিই প্রধান। পড়—- আনন্দ নাও এবং কিছু শেখ।
আর আমি সব সময় বলি—ছাপার হরফে যে কোন কিছু হতেই শিক্ষার কিছু না কিছু আছে।
>>আর এই রিভিউ দিয়ে জানার/শিক্ষার কি কি বিষয় এই বই এ আছে তা দেখানোর চেষ্টা আমি করব এবং তা মাত্রয় জানার দৃষ্টিকোন হতে।

>> সারসংক্ষেপ: রানা—৪৩৬, জাপানি টাইকুন প্রথম পর্ব
fg
রানার রক্তপিপাসা বই এর গল্প মনে আছে?
ইনকা সভ্যতার সেই সোনা/গোল্ড এর ট্রেজার হান্ট। এই বইও (ইনকা )সেই রকম এক ট্রেজার হান্টের ।
বন্ধু আলি হায়দার( যে ট্রেজার হান্ট খুঁজে চলেছে পানামায়) এর বিশেষ অনুরোধে প্যারিস হতে পানামা খালের উপর লিখা এক বিশেষ ডাইরি সংগ্রহ করে বাহিরে এসেই অদৃশ্য খুনির তাড়া খেয়ে জান বাঁচাতে রানা ঢুকে পড়ে শহরের ল্যা এম্পায়ার দে ল্যা মর্ততে। তৃতীয় এক পক্ষের সহায়তায় বেঁচে যায় রানা।
হামলার কারণ জানতে নিজের লম্বা নাকটা বাড়িয়ে দিতেই পানামায় হাজির হয় রানা সঙ্গে সুন্দরী অ্যামেরিকান রানী নেফারতিতি( ঈজিপ্ট এর রানী)। বন্ধুর ট্রেজার হান্ট এলাকায় গিয়ে দেখে ক্যাম্পের সবায় নীরব মৃত্যুর কোলে (ইরাপশনের কারণে মৃত্যু ) ঢলে পড়েছে এবং কারা যেন লাশের শরীরে গুলি করে অন্য কিছু বোঝাবার প্রচেষ্টা নিয়েছে।
তদন্তে বেরিয়ে পড়ে ওর প্রতিপক্ষ জাপানি এক টাইকুন। বন্ধু সোহেল নেফারতিতি ও স্থানীয় এক বাসিন্দার সহায়তায় তদন্ত করতে টাইকুনের গ্লোবাল ট্রান্সপোর্টেশন এর পানামায় অবস্থিত কন্টেইনার ফ্যাসিলিটি তে ঢু মারতে গিয়ে বিপদে পড়ে রানা ও নেফারতিতি। আবার ওদের উদ্ধার করে তৃতীয় পক্ষ।
এবার তৃতীয় পক্ষের সহায়তায় বন্ধু বন্ধু আলি হায়দার এর সাইট দখল করে রাখা টাইকুনের ক্যাম্পে ঢু মারে রানারা। সেখানে বিপদে পড়ে আবার রানারা । হারায় দুই সাথি। রানারা পালায় হেলিকপ্টার নিয়ে। টাইকুনের তিন হেলিকপ্টার গান-শিপ পিছু নেয় ওদের ।
শত্রুর গান-শিপের আঘাতে ওদের হেলিকপ্টারকে জরুরি অবতরণ করতে হয় এক অটো-ক্যারিয়ার জাহাজে।
সেখানে ইঁদুর বিড়াল খেলায় অন্য সাথিরা পালাতে পারলেও রানা ধরা পড়ে টাইকুনের দলের হাতে। সেখানে ড্রাগা নামে সার্বিয়ান এক ম্যানিয়াক ইন্টারোগেটর এর মুখ মুখি রানা বাঁচবে তো?
বাকিটা বই কিনে পড়তে হবি, আর না হলে বছর খানেক পড় পিডিএফএ পড়তে হবি। আমি অবশ্য ২য় খণ্ডের অপেক্ষায়।
এবার আসুন জানার বিষয় গুলি কি?
১। ইনকা সভ্যতা
২। পানামা ও পানামা খাল
৩। রানী নেফারতিতি( ঈজিপ্ট এর রানী)।
৪।ইরাপশন
৫।ল্যা এম্পায়ার দে ল্যা মর্ততে
আমার চোখে এই পাঁচটি বিষয় সামগ্রিক ভাবে ধরা পড়েছে। এবার ইন্টারনেট ঘেঁটে পড়ে ফেলুন বিষয়গুলি। দেখুন এর পর বই পড়তে ভাল লাগবে।( চাইলে আমি দিয়ে দিতেও পারতাম,কিন্তু একটু কষ্ট করে খুঁজে পড়লে মজা পাবেন। সেই আনন্দ মাঠি করতে আমি চাইনা)।

বই রিভিউঃ জাপানি টাইকুন (দ্বিতীয় খণ্ড)

hhj

প্রথম পর্বে বন্দী রানাকে উদ্ধার করতে টোয়েন্টি ডেভিলস মাইনে রেসকিউ টিম নিয়ে হাজির প্রানের বন্ধু সোহেল। রানাকে কি উদ্ধার করবে নিজেরায় ফাঁদে পড়ে নিজেদের জান বাঁচাতেই অস্থির সোহেল, নেফারতি ও ফ্রান্স লিজনের সৈনরা। শেষে রেসকিউ টিমকেই রেসকিউ করে নিজের চেষ্টায় উদ্ধার হওয়া রানা।
উদ্ধার হবার পর জাপানি টাইকুনের আসল খেল কি তা ধরে ফেলে রানার টিম। টাইকুন চাইছে পানামা খাল বন্ধ করে দিতে। আর সেটি এমন করে বন্ধ করে দিতে চাইছে যেন তা মনে হয় একটা দুর্ঘটনা। আর সেইন জন্য টাইকুন টাকা দিয়ে কিনে নিয়েছে পানামা প্রশাসনের বেশ কিছু দুর্নীতিবাজ অফিসারকে।
শুধু এইটুকু হলে না হয় চলত—মাঠে নেমে রানারা আরও জানতে পারে আরেক ভয়ঙ্কর খেল। জাপানে ফেলা আমেরিকার (দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়) পারমানবিক বোমার বিভীষিকা এবার আমেরিকার বুকে রচনা করতে চাইছে যুদ্ধ শিশু জাপানি টাইকুন। আর বোমা দিয়ে টাইকুনকে হেল্প করছে আমেরিকা বিদ্বেষী এক দেশ।
প্রথম পরিকল্পনা রচনা হচ্ছে দ্বিতীয় পরিকল্পনাকে সঠিক ভাবে সম্পাদনের জন্য।
রানারা কি পারবে ঠেকাতে এই পরিকল্পনা?
জানতে হলে পড়তে হবে রানা ৪৩৭।

kk

>>এবার আসুন জানার বিষয় গুলি কি?
১। অ্যাঙ্গেল অভ রিপোজ—জিয়োলজির একটি সুত্র
২। কংকুইস্টেডর
৩। এল কামিনো রয়েল
৪। ইনকাদের টোয়াইস ট্রেজার
৫। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের ইতিহাস
৬।আটিলারি অ্যাসল্ট
৭।ড্রোন
৮।ভিজিএএস ফায়ার
৯।স্পটার এয়ারক্র্যাফট
১০।সাবমারসিবল
১১। স্যালভেজ শিপ
১২।টাগবোড
১৩।কেজ করা
১৪।লিকুয়িফ্যাকশন
১৫।বাল্ক ক্যারিয়ার
১৬।ডিএফ-থারটি ওয়ান ইন্টারমিডিয়েট রেঞ্জ মিসাইল

>>> আর আমি অনুরোধ করব। যারা রিভিউ দিবেন তাঁরা যেন সেই বই এ বিশেষ জানার বিষয় গুলি তুলে ধরেন। তাতে নতুন অজানা বিষয়ে পাঠকের আগ্রহ বাড়ে।

৪০০ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
আমি খুব সাধারণ।
সর্বমোট পোস্ট: ১৩৩ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ৯৭৪ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৪-০৮-২২ ১৬:৩০:৪৭ মিনিটে
banner

৬ টি মন্তব্য

  1. সহিদুল ইসলাম মন্তব্যে বলেছেন:

    অনেক ধন্যবাদ , জেনে অনেক ভাল লাগলো, ভাল থাকবেন সর্বদা ।

  2. দীপঙ্কর বেরা মন্তব্যে বলেছেন:

    জানলাম কিছু কিছু

  3. এই মেঘ এই রোদ্দুর মন্তব্যে বলেছেন:

    বাপরে কঠিন সব শব্দের গল্পের বই

    ধন্যবাদ শেয়ারের জন্য।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top