Today 14 Dec 2019
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

সোহাগের সুন্দর বন পরিবহন এক্সপ্রেস

লিখেছেন: আরজু মূন জারিন | তারিখ: ০৬/০১/২০১৪

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 537বার পড়া হয়েছে।

দ্বিতীয় পর্ব

বাস আবার রওনা করল।জানা গেল ওই লোকের নাম জহির উদ্দিন।তাকে দুই গালে দুই থাপ্পড় তার সাথে ঠান্ডা পানির ঝাপটা দিয়ে সজ্ঞানে ফিরিয়ে নিয়ে আসা হল।জ্ঞান ফিরে সোহাগকে সামনে দেখে আবার অজ্ঞান হওয়ার উপক্রম করল।শান্ত হল আপাতত যখন বোঝানো হল এটা প্লাষ্টিকের সাপ তখন সবার দিকে তাকিয়ে বোকার মত হাসল কিছুক্ষন।

আসলে ভাইজান ঠিক সাপ দেইখা যে ভয় খাইছি তা না হে হে বলে হাত বাড়িয়ে সাপ ধরার চেষ্টা করল আবার সঙ্গে সঙ্গে হাত সরিয়ে নেয়।

মনে হইল একটু নড়ন চড়ন করতেছে ভাইজান ভয়ে ভয়ে বলল লোকটি।

বেক্কল ব্যাটা পিছন থেকে ট্রানজিষ্টারধারী ফোড়ন কেটে বলে।

তুই বেক্কল তোর মা বেক্কল বাপ বেক্কল তোগ চৌদ্দগুষ্ঠি বেক্কল লোকটি মনের ঝাল মিটিয়ে গাল দেয় পিছনের ট্রানজিষ্টার রে।ট্রানজিষ্টারের গানের শব্দে এখন ও মাথা ব্যাথা করতেছে তার।

কেও একজন দেখা যাচ্ছে বাসের সামনে লাফাচ্ছে বাস থামানোর জন্য।সোহাগ ব্রেক কষে বাস থামাল।যত যাত্রী বাড়ছে সে উৎফুল্ল হয়ে উঠছে।লোকটার ঘাড়ে দেখা যাচ্ছে একটা কথা বলা তোতা পাখী।

মামা ভাল মামা ভাল সারাক্ষন তোতা মাথা ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে এই আবৃত্তি করছে।

চুপ থাক ব্যাটা বদের হাড্ডি।
এই ব্যটা তুই আর তোর তোতার মুখ বাড়ী দিয়া থোতা কইরা দিমু কইতাছি।মামা ভাল মামা ভালা ট্রানজিষ্টার ভেংচি কেটে বলে।

এই তোতা তুই কও আমার লগে বদের হাড্ডি বদের হাড্ডি।

সঙ্গে সঙ্গে তোতা তীক্ষ স্বরে বলে উঠল চুপ থাক তুই ব্যাটা বদমাইশ।তোতা তার লেজ ঘুরিয়ে বারবার ট্রানজিষ্টারের দিকে ঘুরে ঘুরে বলছে

চুপ থাক তুই ব্যাটা বদ । চুপ থাক ব্যাটা বদ।

তোতার মালিক আনন্দে তালি দিয়ে উঠল ঠিক কইছে আমার পাখী আমার ময়না।

তুই ব্যটা শয়তান।

চলন্ত গাড়ীতে দুইজন দুইজনের উপর ঝাপাই পড়ল।তোতা পাখী তাদের চারিদিকে ঘুরতে ঘুরতে বলে সব ব্যাটা শয়তান ।

রশীদ মিঞা একেবারে হতাশ।

বেদ্দব মানুষ গুলারে কিভাবে গনতন্ত্র শিখাই কন তো ভাইজান।মানুষ গুলার কি এক্কেবারে লজ্জাশরম চইলা গেছে।তোগরে বিনা পয়সায় ঘুরত লইয়া যাইতাছি।তোরা এর মধ্যে যুদ্ধ করস বদের বদ।

পাশে অপেক্ষাকৃত বয়স্ক ধীরস্থির এক ব্যাক্তি বসেছিল সে এতক্ষন চুপচাপ বসেছিল।আমাদের দেশের মানুষ স্বাধীন হয়েছে এখন ও মনে হয় বিশ্বাস করতে পারছেনা।গনতন্ত্রের সংজ্ঞা শিখবে কোথ্থেকে?যে যেভাবে পারে মানুষের মাথায় বাড়ি দিয়া অন্যের অধিকার ছিনতাই করে বিন্দুমাত্র কেয়ার না করে গনতন্ত্রকে বৃদ্ধাংগুলি দেখায়।

গনভবন থেকে বস্তি গনতন্ত্রের সংজ্ঞা কেও জানেনা ।তার প্রয়োগ ও কোথায় নাই ।

রশীদ কি বুঝল কে জানে।বুঝদারের মত মাথা নেড়ে বলল

হ স্যার খাটি কথা কইছেন।

সুন্দরবনে আসতে আসতে প্রায় সন্ধা হয়ে আসল।

(পরবর্তীতে)

৫৮২ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
নিজের সম্পর্কে কিছু বলতে বললে সবসময় বিব্রত বোধ করি। ঠিক কতটুকু বললে শোভন হবে তা বুঝতে পারিনা । আমার স্বভাব চরিত্র নিয়ে বলা যায়। আমি খুব আশাবাদী একজন মানুষ জীবন, সমাজ পরিবার সম্পর্কে। কখনো হাল ছেড়ে দেইনা। কোনো কাজ শুরু করলে শত বাধা বিঘ্ন আসলেও তা থেকে বিচ্যুত হইনা। ফলাফল পসিটিভ অথবা নেগেটিভ যাই হোক শেষ পর্যন্ত কোন কাজ এ টিকে থাকি। জীবন দর্শন" যতক্ষণ শ্বাস ততক্ষণ আশ " লিখালিখির মূল উদ্দেশ্যে অন্যকে ভাল জীবনের সন্ধান পেতে সাহায্য করা। মানুষ যেন ভাবে তার জীবন সম্পর্কে ,তার কতটুকু করনীয় , সমাজ পরিবারে তার দায়বদ্ধতা নিয়ে। মানুষের মনে তৈরী করতে চাই সচেতনার বোধ ,মূল্যবোধ আধ্যাতিকতার বোধ। লিখালিখি দিয়ে সমাজে বিপ্লব ঘটাতে চাই। আমি লিখি এ যেমন এখন আমার কাছে অবাস্তব ,আপনজনের কাছে ও তাই। দুবছর হলো লিখালিখি করছি। মূলত জব ছেড়ে যখন ঘরে বসতে বাধ্য হলাম তখন সময় কাটানোর উপকরণ হিসাবে লিখালিখি শুরু। তবে আজ লিখালিখি মনের প্রানের আত্মার খোরাকের মত হয়ে গিয়েছে। নিজে ভালবাসি যেমন লিখতে তেমনি অন্যের লিখা পড়ি সমান ভালবাসায়। শিক্ষাগত যোগ্যতা :রসায়নে স্নাতকোত্তর। বাসস্থান :টরন্টো ,কানাডা।
সর্বমোট পোস্ট: ২২৯ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ৩৬৮৩ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৯-০৫ ০১:২০:৩৫ মিনিটে
banner

৯ টি মন্তব্য

  1. আহসান হাবীব সুমন মন্তব্যে বলেছেন:

    বেদ্দব মানুষ গুলারে কিভাবে গনতন্ত্র শিখাই কন তো ???

    উত্তরটা জানা আমাদের জাতিয় জীবনের জন্যও বড় জরুরী হয়ে দাঁড়িয়েছে ।

    আশা করছি লেখিকার লিখার কোথাও হয়তো বা তার খোঁজ মিলবে ।

    ধন্যবাদ ।

  2. আরজু মন্তব্যে বলেছেন:

    গনতন্ত্র এটা বোধের ব্যাপার ।আসলে শেখানোর তো কিছু নাই।তবে আমাদের দেশের প্রেক্ষাপটে মনে হয় আমাদের আসলে গনতন্ত্র সম্পর্কে সম্যক ধারনা এখন ও হয়নি।

    ধন্যবাদ সুন্দর মন্তব্যের জন্য।

  3. কে এইচ মাহবুব মন্তব্যে বলেছেন:

    তুই বেক্কল তোর মা বেক্কল বাপ বেক্কল তোগ চৌদ্দগুষ্ঠি বেক্কল –
    আপু তুমি কি আভাবেই গালাগাল করো নাকি ? তোমাকে অনেকদিন আমার পাতায় দেখিনা । ভালো থেকো ধন্যবাদ ।

    • আরজু মন্তব্যে বলেছেন:

      আল্লাহ আমিতো তোমাকে কয়েকবার কমেনটস করতে গিয়ে ব্যার্থ হলাম।কমেন্টস আর ক্লোসড এটা শো হচ্ছিল।আমি ভাবছিলাম শেফালীকে আরও বরন করে নিব।আর শেফালী নিয়ে কোন বকা দিবনা।
      না না এই জীবনে কাওরে গালি গালাজ বাজে কথা বলিনি।তবে রাগ বেশী আমার।খুব বেশী রাগ হলে চিৎকার দেই।এটা আমার বাজে একটা নেগেটিভ দিক।কন্টোল করার চেষ্টা করছি।অনেকটা কন্ট্রোলে চলে এসেছি।ধন্যবাদ ভাই আমার লিখায় মন্তব্যের জন্য।অনেক শুভকামনা।

  4. এম, এ, কাশেম মন্তব্যে বলেছেন:

    পরবর্তী সংখ্যার অপেক্ষায়…………

    অনেক ভাল লাগা।

    • আরজু মন্তব্যে বলেছেন:

      আসিতেছে খুব শীঘ্রই।তবে এই লেখা টা একটু অভদ্র ক্যাটাগরির হবে ওই সেন্সে ভাষা থাকবে কিছুটা স্ল্যাং।এখন কন্ডাকটার বা ড্রাইভার তারা তো আর শেষের কবিতা আবৃতি করবেনা।বাস্তবসম্মত করার জন্য একটু কমেডী ধাচ আনানোর জন্য গালিগুলি ইউস করলাম।সরি সেই কারনে।আমি যেইভাবে বাসের কন্ডাকটারদের পেয়েছি মাঝে মাঝে সেইভাবে বর্ননা করার চেষ্টা।

      ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্য।

  5. আমির হোসেন মন্তব্যে বলেছেন:

    গল্পের সার্থকতা নামের মধ্যে। কিন্তু প্রায়ই দেখি আপনার গল্প বা উপন্যাসের নাম গুলো হয় দীর্ঘ। যা আমার কাছে বেমানান মনে হয়। অনেক পাঠক আছে শুধু নাম দেখেই বুঝে নেই গল্পের পটভূমি কি হতে পারে।

  6. আরজু মন্তব্যে বলেছেন:

    আমির ভাই এই নাম টা কি ঠিক হয়নি? নাম নিয়ে আমি খুব কনফিউশানে ভূগি ।
    ধন্যবাদ আমির ভাই মন্তব্যের জন্য।এই গল্পের কি নাম হলে ভাল হবে আপনার মতে? আমি সত্যি জানতে চাচ্ছি।

  7. এই মেঘ এই রোদ্দুর মন্তব্যে বলেছেন:

    এই পর্ব মিস গেছিল । পড়ে ফেললাম

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top