Today 26 May 2020
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner
লেখক সম্পর্কে জানুন |
আমি পেশায় একজন প্রকৌশলী। সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে একসময় লেখালেখি শুরু করেছিলাম। বর্তমানে আমার লেখা উপন্যাসের সংখ্যা ১৮টি। এখনো লেখা চলছে অবিরত। আমার ফোন নাম্বার-০১৭১৮১৫৭০৭৬
সর্বমোট পোস্ট: ৩৯ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ৮৭ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৮-০২ ০৪:০১:৪৪ মিনিটে
Visit জিল্লুর রহমান Website.

রিমার বয়স যখন আট বছর, তখন ফিরোজ বদলি হয়েছিল জয়পুরহাট। বদলির অর্ডারটা হয়েছিল ডিসেম্বরমাসে, রিমার পরীক্ষা শেষ হয়েছে এমন সময়।
ফিরোজ জয়পুরহাট জয়েন করে অফিসের কাছেই একটা বাসা ভাড়া নিয়েছিল। নিচতলায় বাড়িওয়ালা নিজে থাকতেন, সে বাসারই দ্বিতীয় তলার তিন রুম বিশিষ্ট

বিস্তারিত পড়ুন

রাতের খাবারের পর ফিরোজকে কয়েকটা ঔষধ খেতে হয়, এমনিতেই ফিরোজের কোনদিন ঔষধ খেতে ভুল হয় না তারপরও প্রতিদিন সকাল এবং রাতের খাবারের পর তার বাবার প্রেসক্রিপশন আর ঔষধের ঝুড়িটা নিয়ে রিমা তার বাবার সামনে আসে, রাতের ঔষধ খাওয়ার আগে জিজ্ঞেস

বিস্তারিত পড়ুন

আরশী মোবাইলের বাটন টিপলো, দুঃখিত এই মুহূর্তে মোবাইল সংযোগ দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না, অনুগ্রহপুর্বক কিছুক্ষণ পর আবার ডায়াল করুন।
আরশী মোবাইলটা বিছানার ওপর ছুঁড়ে দিল, তোমারই বা দোষ কি? তোমার সঙ্গে তো আমি নিজেই সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছি, তুমিই বা নতুন করে

বিস্তারিত পড়ুন

এই সেই পথ
বহু দিন আগে
দাদুসহ যাচ্ছিলাম বহুদূরে
ঘন বনের মাঝে সেই মেঠো পথ ধরে
লাঠি হাতে চলছিলো দাদু
আর পাতার শব্দ শুনে বলেছিলো আমায়,
’’দেখিস্ বাঘ, ভল্লুক কোথাও আছে নাকি?’’

আমি আজ দাদু হয়েছি
সেই পথে চলছি নাতির হাত ধরে
আজ নেই সেই বন,
নেই পাতার মর্মর ধ্বনি
নেই

বিস্তারিত পড়ুন

আমাদের স্মৃতি শক্তি ক্ষণস্থায়ী, তাই আমরা সহজে সবকিছু ভুলে যাই। যেমন: আমরা ভুলে গেছি সাগর-রুনি হত্যাকাণ্ড, নারায়নগঞ্জের সেভেন মার্ডার, কাঁটা তারের বেড়ায় লটকে থাকা ফেলানীর কথা। অথবা আমাদের চোখ আছে আমরা দেখি না, আমাদের কান আছে আমরা শুনি না, আমাদের

বিস্তারিত পড়ুন

কয়েকদিন হলো রুমা কোদালকাটি এসেছে। গতকাল মিয়া সাহেব লোক পাঠিয়ে রুমার আজ ঢাকা যাওয়ার কথা বলে আলতাকে তৈরি থাকতে বলেছে। কিন্তু তছিরনের মন কিছুতেই মানছে না। শেষ চেষ্টা হিসেবে সে একবার তার আকাংখার কথা রুমাকে জানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আর সে

বিস্তারিত পড়ুন

সেদিনের পর থেকে তছিরনের চোখে ঘুম নেই। ঠিক আলতার মতো বয়সে তার জীবনে এক অভিশাপ এলো, তো ঠিক আলতার মতো না, তার ওপর ঝড়টা ছিল একটু ভিন্ন। কাজের প্রস্তাব না, তার এলো বিয়ের প্রস্তাব, আয়নালের সঙ্গে। আয়নাল তখন টগবগে যুবক,

বিস্তারিত পড়ুন

আজ আলতা ঢাকা যাবে। মিয়া বাড়ির ছোট মেয়ে রুমা ঢাকায় থাকে, তার একমাত্র মেয়ে সবেমাত্র হাঁটি হাঁটি পা পা করে হাঁটতে শিখেছে, তার সাথে খেলা করার জন্য, তাকে সঙ্গ দেয়ার জন্য আর রুমার সাংসারিক কাজে একটু-আধটু হাত বাড়িয়ে দেয়ার জন্য

বিস্তারিত পড়ুন

পরদিন অর্পনের বাবার সঙ্গে কথা বলে প্রিয়ন্তী অর্পনের জন্য আরো সময় বাড়িয়ে দিয়েছে তাতে তার টিউশন ফি বেড়েছে আরো এক হাজার টাকা। এই বাড়তি সময় পড়াতে গিয়ে প্রিয়ন্তীর ইদানীং বাসায় ফিরতে দেরি হয়। প্রিয়ন্তী প্রায় দিনই বাসায় ফিরে দেখে সুশান্ত

বিস্তারিত পড়ুন

সকালবেলা দু’জনের কোন কাজ থাকে না, প্রতিদিন বিকেলে সুশান্ত কোচিং সেণ্টারেযায় আর প্রিয়ন্তী যায় প্রাইভেট টিউশনি করতে। দুজনের গন্তব্য দু’দিকে, সুশান্তর কোচিং তাদের বাসা থেকে কাছেই কিন্তু প্রিয়ন্তীর প্রাইভেট একটু দূরে, প্রায় দু’কিলোমিটার হবে। প্রিয়ন্তী এই দু’কিলোমিটার রাস্তা হেঁটে যায়,

বিস্তারিত পড়ুন

কয়েক মাস কেটে গেল। এ ক’মাসে তার সব সময় শুধু প্রিয়ন্তীর কথা মনে পড়েছে, চোখের সামনে সবকিছু আছে কিন্তু তবুও অন্তরটা সব সময় খাঁ খাঁ করছে। সব সময় মনে হচ্ছে কি যেন নেই। তার প্রিয়ন্তীর শৈশবের কথা মনে পড়ছে, তার

বিস্তারিত পড়ুন

একটি তিনতলা বাসার তৃতীয় তলায় একটি তিন কক্ষ বিশিষ্ট বাসা পাওয়া গেল। দুইটি বেড রুমের সঙ্গেই একটি করে এটাচ্ড বাথ, একটি করে বারান্দা, পুরো বাসার জন্য একটি ড্রয়িং রুম এবং একটি কিচেন আছে। ড্রয়িং রুমটা দুই পরিবারকে শেয়ার করে ব্যবহার

বিস্তারিত পড়ুন
go_top