Today 16 Oct 2019
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

এ কাকে দেখছি আমি?
এ কেমন হয়ে গেছ তুমি?
যে চোখে জ্যোৎস্নার বসবাস ছিলো একদিন
সেখানে একি ঘোর অমাবস্যা দেখি আজ,
তোমার সেই দিব্য বিভা নেই, শাড়িতে কোন
কুচি নেই, সেখানে আঁচলের পাখিগুলো
আর খেলে না, মুখের পাশে;
যেখানে নীল ডানার প্রজাপতি উড়তো একদিন
সেখানে আজ শ্মশানের কাকেরা

বিস্তারিত পড়ুন

তবু ডুব সাঁতারে পেয়েছি কিছু পিচ্ছিল কাঁদা
আপনি আমাকে বলেছিলেন একদা;
সে জল ছুঁলেই নাকি আমি প্রেমে পড়বো।
এটা নিশ্চিত!

বস্তুতঃ প্রেম আত্ত্বিক অর্থে আমাকে একজন
প্রেমিকার মুখ মনে করিয়ে দেয়,
সে জানে বহু ডুব সাঁতার কেটেছে ওই দীঘল কালো জলে;
তবু নদী খুঁজে পায়নি বিস্তার।

আপনি আমাকে

বিস্তারিত পড়ুন

অথবা প্রেম ও নিষেধ আমাকে সত্যই
বিভাজিত করে রেখেছে,
তবু,
আরো বহুকাল আগে থেকে নিজেকে গুছিয়ে রেখেছি;
তোমাকে সব কিছু সঁপে দেবো বলে।

আমি হেঁটে গেছি
তুমি ফিরে গেছো।

তোমার কি মনে পড়ে;
আমরা প্রেম করতে চেয়েছিলাম প্রবীর বৃক্ষের উপরে বসে,
কিছু ছায়া থাকবে নিচে
আমরা উপর থেকে নিচ
নিচ থেকে

বিস্তারিত পড়ুন

সে দেহ ছেড়ে এসেছিলো রাতে।

তখনও বাতাসে গ্রহণের সুর বাজেনি ঠিক;
ছাদের স্বপ্নেরা অবস্থান নিলো-
ধীরে ধীরে অজানা রাস্তায়।

সময় ঠিক অসময়।

এখন বেহায়া লতা- গুল্মের দল;
সিঁদুরে রাঙ্গিয়েছে হাত,
অজস্র গল্প ঠোঁটে ঠোঁটে
রাত্রির বুক চৌচির করে;
উসখুশ শব্দেরা খেলা করে।

এক যে ছিলো সূর্য্য;
সে গিলে খেয়ে নিলো সব
এক

বিস্তারিত পড়ুন

ওরা আড়াল খোঁজে
শহর ছেড়ে শহরতলীর দিকে
চলে যায় আড়াল খুঁজতে,
কিছু বন-গাছপালা, আধছেঁরা পাতারা;
ওদেরকে তবু পূর্ণ আড়াল দিকে পারে না।

ওরা একসাথে সিনেমা হলের-
অন্ধকারেও আড়াল খোঁজে,
পর্দার আবছায়া আলো;
তবু ওদের পূর্ণ আড়াল দ্যায়নি কখনো
আমি দেখেছি।

অবশেষে ওরা এক একটা পেইন্টিং হয়ে ঝুলে গেছে!

কফিশপেও ওরা খুঁজেছে

বিস্তারিত পড়ুন

নাহ, এখন আর তার চোখ চেয়ে নেই আমার দিকে।
আমি তো দেখিনা।

যে বিকাল আসার কথা ছিলো রিকশা করে;
তার চোখে রোদ-চশমা;
সে বিকেল দ্যাখে না।

ভুলেই গেছে।

ইদানিং সে ভুলে যায়;
আমাকে ফোন করার কথা,
ইথারেই বিলীন হয় সদ্য জন্মগ্রহণ-
করা কথারা গুমরে কাঁদে’
বাতাস শোনে,
সে আর শোনেনা।

তার আর

বিস্তারিত পড়ুন

‘সাদা স্রোতে বয়ে যাওয়ার হয়েছে সময়’
বলে দাড়িওয়ালা বুড়ো মাঝি হঠাৎ নতুন হাতে
তুলেছে করাত নৌকোর মাঝামাঝি।
যাত্রা হবে শুরু অনিশ্চিতের উদ্দেশ্যে
এতকাল কেবল রবীন্দ্রনাথের বজরা-বিহার।

“ ”

তবু

বিস্তারিত পড়ুন

ইন্দ্রপ্রস্থ,
বিষবাণে ঘায়েল করো না আর
নিষেধের দেয়াল ভেঙ্গে;
পাড়ি দিতে হবে, এটা জিদ আমার
ইচ্ছে ঘুড়ি ওড়াতে হবে;
রঙধনু আকাশের-
ইঞ্চি ইঞ্চি জুড়ে, বর্ণিল সামিয়ানায়
একজন,
যে এখনো অপেক্ষায় বসে আছে আমার।

সময়,
তুমি পিছু ডেকো না আর
একজন,
অপেক্ষায় বসে আছে আমার
দিয়ে দাও না’হয় একটু ছুটি এই বেলা,
দিয়ে দাও আমায়
একটু

বিস্তারিত পড়ুন

কতখানি মহান তুমি;
সেটা নিজেও জানো না,
আমাকে নিশ্চিন্তে তুলে দিয়েছো-
তোমার সব আচরণ,
যা আমাকে নিয়তঃ মহৎ-
হতে সাহায্য করে চলেছে।

তুমি খাও এক কাপ চা;
আমিও তাই,
তুমি শুকতে থাকো ফুলের সুবাস;
আমিও তাই।

তুমি মাটি থেকে ছিঁড়ে আনো-
সবুজ ঘাস;
আমি দেখি আর আহ্লাদিত হই,
তুমি অল্প-আলোয় রোজ মাতাল হয়ে

বিস্তারিত পড়ুন

শুষ্ক বক্ষে বয়ে যায়
হতাশার জল,
পারদ সাগরে নামে;
থইথই কোলাজ,
গা ভেজাই।

রং আছে তুলি নেই
প্রপেলারে ভাসমান মেঘ,
মনে নেই, চরে নেই
কোথাও কি নেই?
একটু শাদা ওষ্ঠের গুপ্ত ওম!

এসব ভাসে শাদা তুর্ণির মুখে,
ভেসে যায় আবছায়া দৃষ্টির-
নন্দন-কাননে।

কার ওষ্ঠে কত বিষ;
ছোঁবলে বুঝি,
হুশ হারাতে;
এঁকে দিই বিষদাঁতের ছাপ
নষ্টামীর চতুর্দর্শী নামে
প্রবল

বিস্তারিত পড়ুন

সুন্দর লতানো গাছ
উড়ে যায় ফড়িং মন;
এধার-ওধার,
ভাবেনা সাত-পাঁচ।

চারাগাছ,
তল শুষে;
তুলে নেয় পলল জমিন,
মাথা রাখে ফেরোমনে
অলিকবাস।

হাতে আছে এক অজানা-
সাম্রাজ্যের ম্যাপ,
দলিলে লেখা আছে-
অগোছালো গন্তব্য
অনবরতঃ
অবিরত-
হেঁটে যাবার অভিপ্রায়,
আছে নাভিশ্বাস নিমন্ত্রণ
চোখে জড়ানো আছে;
সুপ্ত রৌতিসা।

অনাবাসী মেঘ পঁচন খোঁজে
সৌখিন বিষাদে;
হাত-পা অবশ হয়ে
গল্প হয় শেষ।।

ছবিঃ ইন্টারনেট থেকে সংগৃহীত।

বিস্তারিত পড়ুন

আমি প্রথমবার তোমাকে ভুলে গিয়েছিলাম;
দ্বিতীয়বার স্মরণের আগে,
তোমার চোখভর্তি তারকারাজির শহর;
আমার ছিলোনা, ছিলো পুতুলের,
ছিলো ভোজবাজি পুরোটাই।
শিকার হয়েছিলো রাত,
এই আকাট বৃক্ষের ডাল, সবুজ পাতাটি;
এটা দিনের আলোর মত পরিস্কার।

আমি প্রতিবার চোখ খুলতাম;
আর ভুলে যেতাম তোমার মুখ
আমি ভুলে যেতাম কোন একদিন;
ঈশ্বরকে স্বাক্ষী রেখে,
আমাদের হৃদয়

বিস্তারিত পড়ুন
go_top