Today 01 Dec 2022
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

অণুকবিতা…

লিখেছেন: তাপসকিরণ রায় | তারিখ: ০৬/০৭/২০১৪

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 1460বার পড়া হয়েছে।

564039_530272833653229_1940268060_n

(১)

পলতা বাতাসে ছিঁড়ে গেল–

বাতাস ভাসা উৎসর্গগুলি 

ভেসে যাচ্ছে সময়ে 

যতই আঘাত হানো 

নাড়িয়ে দাও হৃদয় উৎস–

তুমি আসলে পাখির মত। 

546169_458101804232466_1465569893_n

(২)

ছবিতে কবিতা 

একেক রকম ভেবে নিতে পারি 

কিন্তু সেখানটাই তোমার মনগড়িয়ে যাচ্ছে– 

যথেচ্ছা,আছে লাইনার মাপা সীমান্ত–

কিন্তু হিজলের ছায়া তোমায় আঁকতেই হবে। 

1474457_720473464644418_987513601_n

(৩)

চৈতন্য আসলে হাওয়া 

কর্পূর গন্ধ উবে যাবার প্রবণতা 

ধরে রাখতে চাওয়ার বিবর্ণতা ধরা পড়ে, 

মহাভারতের মত চরিত্রগুলি হুবহু ছায়া হলেও 

যদি ফিরে আসার দুর্দান্ত প্রয়াস হত !

 

১,৫৪৪ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
নাম :তাপসকিরণ রায়। পিতার নাম : স্বর্গীয় শৈলেশ চন্দ্র রায়। জন্ম স্থান: ঢাকা , বাংলা দেশ। জন্ম তারিখ:১৫ই এপ্রিল,১৯৫০. অর্থশাস্ত্রে এম.এ.ও বি.এড. পাস করি। বর্তমানে বিভিন্ন পত্র পত্রিকাতে নিয়মিত লিখছি। কোলকাতা থেকে আমার প্রকাশিত বইগুলির নামঃ (১) চৈত্রের নগ্নতায় বাঁশির আলাপ (কাব্যগ্রন্থ) (২) তবু বগলে তোমার বুনো ঘ্রাণ (কাব্যগ্রন্থ) (৩) গোপাল ও অন্য গোপালেরা (শিশু ও কিশোর গল্প সঙ্কলন) (৪) রাতের ভূত ও ভূতুড়ে গল্প (ভৌতিক গল্প সঙ্কলন) (৫) গুলাবী তার নাম (গল্প সঙ্কলন)
সর্বমোট পোস্ট: ১১২ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ১৬৬৯ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৮-১১ ১৫:৪৩:৫৪ মিনিটে
banner

১৪ টি মন্তব্য

  1. সাখাওয়াৎ আলম চৌধুরী মন্তব্যে বলেছেন:

    দারুন সব অনু কবিতা। খুবই ভালো লাগলো

  2. তাপসকিরণ রায় মন্তব্যে বলেছেন:

    অনেক ধন্যবাদ।

  3. প্রহেলিকা মন্তব্যে বলেছেন:

    অনুকাব্য সবসময়ই ভালো লাগে কারণ বহুমুখিতায় পাঠক আচ্ছন্ন হয় এক স্থির চিত্রকল্পে আবদ্ধ থাকে না। শুভেচ্ছা জানবেন কবি।

    • তাপসকিরণ রায় মন্তব্যে বলেছেন:

      সব রকম কাব্যই বহুমুখী হতে পারে–আবার অনুকাব্য স্থিরকল্পে অবশ্যই আবদ্ধ থাকতে পারে।লেখা পড়া ও মন্তব্যের জন্যে অনেক ধন্যবাদ।

  4. আহমেদ রব্বানী মন্তব্যে বলেছেন:

    চমৎকার লিখেছেন দাদা।ভাল লাগল।

  5. আরজু মূন মন্তব্যে বলেছেন:

    ছবিতে কবিতা
    একেক রকম ভেবে নিতে পারি
    কিন্তু সেখানটাই তোমার মনগড়িয়ে যাচ্ছে–
    যথেচ্ছা,আছে লাইনার মাপা সীমান্ত–
    কিন্তু হিজলের ছায়া তোমায় আঁকতেই হবে।

    অসাধারণ কিছু ছবি। সাথে কবিতা টি ও অসাধারণ। শব্দ , ছন্দ বাক্য বিন্যাস চমত্কার ।

    অনেক ধন্যবাদ চমত্কার কবিতার জন্য তাপস দা । শুভেচ্ছা রইল।

    • তাপসকিরণ রায় মন্তব্যে বলেছেন:

      এর প্রত্যেকটিতে একেক ভাব ধরা আছে–হয় ত আক্ষরিক অর্থ বের করা অসুবিধা হবে–কিন্তু হৃদয় ভাবটাকে অনুভব করতে পারবে ঠিক…আমার এ ধরণের কবিতা কলকাতার বেশ কিছু পত্রিকায় প্রকাশিত হয়।তবে দেখেছি এ ধরণের লেখার মুল্য অনেক ব্লগ,কিছু কিছু পত্রিকাও যথাযথ দিতে পারে না।কিছু লোক মিলের আর সহজ বোধের ছন্দ প্রধান কবিতাকেই বেশী প্রাধান্য দেন। সমগ্র বিশ্বের কবিতার চেহারার ধার তাঁরা ধারেন বলে মনে হয় না। যাক অনেক বলে ফেললাম।আপনার লেখালেখির চর্চা ভাল চলছে জানি,কারণ আগে থেকে শতগুণ ভাল লিখছেন আপনি।অনেক ধন্যবাদ।

      • আরজু মূন মন্তব্যে বলেছেন:

        সেতো আমি জানি তাপসদা। ধারণা করতে পারি। আপনি কিন্তু প্রকৃত লেখক কবি। আমি মনে করেন ব্লগার। আপনি কিন্তু লেখক হয়ে গেছেন। আপনার সব লেখা ছাপানোর উপযুক্ত। অনেক শ্রদ্ধা আপনার জন্য। ভাল থাকবেন প্রিয় দা।

  6. এই মেঘ এই রোদ্দুর মন্তব্যে বলেছেন:

    কঠিন কবিতা ভাল লাগল

  7. দীপঙ্কর বেরা মন্তব্যে বলেছেন:

    কত সুন্দর করে গুছিয়ে ভেবে লেখা ।
    ভাল লাগল

  8. সহিদুল ইসলাম মন্তব্যে বলেছেন:

    আমার কাছে গুছানো মনে হয় নি।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top