Today 01 Dec 2021
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

ওরা চল্লিশেই জীবনের হাল ছেড়ে দেয়….

লিখেছেন: এই মেঘ এই রোদ্দুর | তারিখ: ০১/০৫/২০১৫

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 1055বার পড়া হয়েছে।

ওদের বিয়ে হয় পনের বিশ বছর বয়সে
মা বাবা বিয়ে দেয় মেয়ের সুখ শান্তির প্রয়াসে
কিছুদিনের মাঝেই মেয়েরা মা হয়
হাড় হাড্ডি অস্থি মজ্জার করে ক্ষয়।
বছর ঘুরতেই আবারও সন্তান
ঘর জুড়ে আনন্দের কলতান,
না, তারা এদিক দিয়ে হয় সচেতন
নিজেদের বেলাতেই শুধু অচেতন।

বাচ্চা দুইটি অথবা তিনটিই নেয়
তিনটির পরে সন্তান নেয়া বন্ধ দেয়।
আমিষ গাঁয়ের বধুদের কথা বলছি…..
কবিতা নিয়ে সেদিক পানেই চলছি।

অল্প হউক বা একটু বেশি শিক্ষায় শিক্ষিতের হারও বেশি
রূপে গুণে কেউ কেউ রূপবতী, কেউ বেশি হাসি খুশি।
সচ্চল পরিবারে সুন্দর সংসার
মেনে নিয়ে সব ব্যবহার আচার
হালকা পাতলা সুবিধা অসুবিধা নিয়ে তারা বেশ সুখি…
সংসার নিয়ে ব্যতিব্যস্ত সারাদিন এটাসেটা টুকিটাকি।

তারা সাংসারিক নিত্য কাজ কম্ম শেষে
আয়েস করে পানের বাটা নিয়ে বসে,
সুগন্ধী জর্দা দিয়ে আশপাশের বউদের
নিয়ে এরা
পান খেতে খেতে সুখ অথবা দু:খভরা
গায়ের পাড়া পরশীদের আলোচনা সমালোচনা
করে
গপ সপ সেড়ে সুখি বউরা যায় ঘরে ফিরে।

পরিবারের সবাইকে নিয়ে একসাথে খেতে বসে যায়
সুখে আর তৃপ্তির ঢেকুর তুলে পেট পুড়ে খায়।

মধ্যাহ্ন ভোজের পরের সময়টা এরা নিশ্চিন্তে ঘুমিয়ে কাটায়…
ফলশ্রুতিতে অল্প বয়সেই এরা মুটিয়ে যায়,
চুলে ধরে পাক
ঘুরে জীবনের বাক
শরীরে বাসা বাঁধে নানান রোগ
হাসি মুখেই এরা করে যায় ভোগ।

ওরা এসব অসুখের ধার ধারে না, গুরুত্ব দেয় না
ঘরে অভাব না থাকায় তারা বেশি সুখি, অসুখ আমলে নেয় না।

অতি সুখে তাদের মাঝে অসচেতনতা আসে দেখা দিতে
তাদের মাঝে কদাচিৎই দেখা যায় ডাক্তারের কাছে যেতে।
চল্লিশ ছুঁই ছুঁই কালেই তারা জীবনের হাল দেয় ছেড়ে
অবশেষে অসচেতনাতেই তাদের অসুখ দিনে দিনে যায় বেড়ে।

তাদের স্বাস্থ্য অথবা জীবন সম্পর্কে সচেতন হতে বললেই….
লাল টুকটুক দাঁত বের করে হেসে বলে টলেই..
বাঁচুম আর কয়দিন; জীবনে খাইয়া ধাইয়াই
মরি না হয়
মরে যেতে চায় ওরা, ওদের মাঝে দেখি না ভয়!!
এই আর কি…..
কিছুই নেই বাকি
ওরা চল্লিশেই বুড়িয়ে যায়, ওদের বুঝানো
কঠিন,
যে চল্লিশেই মানুষ ফুরিয়ে যায় না; বদলালে রুটিন…
আরো বহুটা পথ সুন্দর জীবন কাটানো যায়
এবং সম্ভব হতে পারে
বুঝি না এরা চল্লিশেই কেনো হারতে চায়, অবশেষে হারে।

১,০৬৮ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
আমি খুবই সাধারণ একজন মানুষ । জব করি বাংলাদেশ ব্যাংকে । নেটে আগমন ২০১০ সালে । তখন থেকেই বিশ্ব ঘুরে বেড়াই । যেন মনে হয় বিশ্ব আমার হাতের মুঠোয় । আমার দুই ছেলে তা-সীন+তা-মীম ==================== আমি আসলে লেখিকা নই, হতেও চাই না আমি জানি আমার লেখাগুলোও তেমন মানসম্মত না তবুও লিখে যাই শুধু সবার সাথে থাকার জন্য । আর আমার ভিতরে এত শব্দের ভান্ডারও নেই সহজ সরল ভাষায় দৈনন্দিন ঘটনা বা নিজের অনুভূতি অথবা কল্পনার জাল বুনে লিখে ফেলি যা তা । যা হয়ে যায় অকবিতা । তবুও আপনাদের ভাল লাগলে আমার কাছে এটা অনেক বড় পাওয়া । আমি মানুষ ভালবাসি । মানুষকে দেখে যাই । তাদের অনুভূতিগুলো বুঝতে চেষ্টা করি । সব কিছুতেই সুন্দর খুঁজি । ভয়ংকরে সুন্দর খুঁজি । পেয়েও যাই । আমি বৃষ্টি ভালবাসি.........প্রকৃতি ভালবাসি, গান শুনতে ভালবাসি........ ছবি তুলতে ভালবাসি........ ক্যামেরা অলটাইম সাথেই থাকে । ক্লিকাই ক্লিকাই ক্লিকাইয়া যাই যা দেখি বা যা সুন্দর লাগে আমার চোখে । কবিতা শুনতে দারুন লাগে........নদীর পাড়, সমুদ্রের ঢেউ (যদিও সমুদ্র দেখিনি), সবুজ..........প্রকৃতি, আমাকে অনেক টানে,,,,,,,,,আমি সব কিছুতেই সুন্দর খুজি.........পৃথিবীর সব মানুষকে বিশ্বাস করি, ভালবাসি । লিখি........লিখতেই থাকি লিখতেই থাকি কিন্তু কোন আগামাথা নাই..........সহজ শব্দে সব এলোমেলো লেখা..........আমি আউলা ঝাউলা আমার লেখাও আউলা ঝাউলা ...................... ======================== এটা হলো ফেইসবুকের কথা........ ========================== কেউ এড বা চ্যাট করার সময় ইনফো দেখে নিবেন এবং কথা বলবেন...........আর আইস্যাই খালাম্মা বলে ডাকবেন না । পোলার মা হইছি বইল্যা খালাম্মা নট এলাউড......... ================ এই পৃথিবী যেমন আছে ঠিক তেমনি রবে সুন্দর এই পৃথিবী ছেড়ে একদিন চলে যেতে হবে ======================= কিছু মুহূর্ত একটু ভালোবাসার স্পর্শ চিত্তে পিয়াসা জাগায় বারবার এই নিদারুণ হর্ষ ....... ছB ========================= এই হলাম আমি........ =================
সর্বমোট পোস্ট: ৬৩৯ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ৯০০৩ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৯-১৫ ০৪:৫২:৪০ মিনিটে
banner

৮ টি মন্তব্য

  1. দীপঙ্কর বেরা মন্তব্যে বলেছেন:

    সুন্দর লেখা

  2. অনিরুদ্ধ বুলবুল মন্তব্যে বলেছেন:

    যাক, আগে তো কুড়িেতই বুড়ি হতো!
    এখন তাহলে বুড়ি হতে দুই কুড়ি লাগে?
    ভাল রাগল কবি। শুভেচ্ছা নিন।

    • এই মেঘ এই রোদ্দুর মন্তব্যে বলেছেন:

      ধুরু না না কুড়িতে বুড়ি হতে যাবে কেনো

      এখন তো বিয়াই হয় ত্রিশের পরে হাহাহাহ

      সুন্দর মন্তব্য ধন্যবাদ ভাইয়া

  3. সবুজ আহমেদ কক্স মন্তব্যে বলেছেন:

    বুলবুল ভাইয়ের সাথে সহমত
    ভাই হক কথা ই তো কইলেন দেখি
    ………………………সো….কবি রোদ্দুর লিখা ইজ নাইস

  4. টি. আই. সরকার (তৌহিদ) মন্তব্যে বলেছেন:

    কবি অনিরুদ্ধ বুলবুল ভাই চমৎকার বলেছেন ! :)
    সত্যিই কি তাই- “বুঝি না এরা চল্লিশেই কেনো হারতে চায়, অবশেষে হারে।”
    সবাই মনে হয় একরকম নয় ! ৪০-এ এসেও ২৫-৩০ হবার প্রাণান্ত চেষ্টা যে অনেকের মাঝেই দেখি !
    সুন্দর লিখেছেন আপু । শুভেচ্ছা নিন ।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top