Today 25 Sep 2022
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

জেনে নিন নীরব ঘাতক ‘সিজোফ্রেনিয়া’র লক্ষণ

লিখেছেন: অনিরুদ্ধ বুলবুল | তারিখ: ০৫/০৬/২০১৫

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 1390বার পড়া হয়েছে।

Sejofrenia

সিজোফ্রেনিয়া একটি ভয়ানক মানসিক রোগের নাম। আমাদের দেশে মানসিক রোগকে সাধারণত কেউ পাত্তা দিতে চান না, যার কারণে একেবারে শেষ মুহূর্তে চিকিৎসা শুরু হয় মানসিক রোগের। কিন্তু মানসিক রোগটিকে অবহেলা করার কারণ বেশ মারাত্মক হতে পারে। বর্তমানে পুরো বিশ্বে শুধুমাত্র সিজোফ্রেনিয়াতে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ২ কোটির বেশি যার বেশীরভাগই মূলত অবহেলার শিকার। সাধারণ মানুষের গড় আয়ুর তুলনায় সিজোফ্রেনিয়াতে আক্রান্ত রোগীর আয়ু প্রায় ১৫-২০ বছর কম থাকে। অর্থাৎ সিজোফ্রেনিয়ায় আক্রান্ত হলে রোগীর মৃত্যু সাধারণ মানুষের তুলনায় বেশ আগে হয়। ২০-৪৫ বছর বয়েসি কিশোর-কিশোরী, নারী-পুরুষ যে কেউ এই রোগে আক্রান্ত হতে পারেন। তাই প্রাথমিক লক্ষণ দেখার সাথে সাথেই শরণাপন্ন হওয়া উচিত মানসিক রোগ বিশেষজ্ঞের কাছে। সামান্য অবহেলা মৃত্যু ডেকে আনে, সুতরাং অবহেলা নয় মোটেই। জেনে নিন সিজোফ্রেনিয়া রোগের প্রধান লক্ষণগুলো।

সিজোফ্রেনিয়া রোগের লক্ষণগুলো মূলত ৩ ভাবে প্রকাশ পায়-

 

চিন্তার মধ্যে অসংলগ্নতা:

১) মনে অযথা সন্দেহ আসা: সন্দেহ মানুষ মানুষকে করতেই পারে, কিন্তু এই রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিরা রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাওয়া মানুষকেও সন্দেহ করতে থাকেন। তারা ভাবতে থাকেন সবাই তাকে নিয়ে মজা করছে, সমালোচনা করছে কিংবা বিশেষ দৃষ্টিতে তাকিয়ে আছেন।

২)ভুল জিনিসে দৃঢ় বিশ্বাস করা: সিজোফ্রেনিয়ায় আক্রান্ত ব্যক্তি অহেতুক এবং অবাস্তব জিনিসকে সত্য ভাবতে থাকেন, যেমন-
– সবাই তার ক্ষতি করছে।
– খাবারে বিষ মেশানো রয়েছে।
– তিনি না বললেও কেউ তার মনের গোপন কথা জেনে যায় ভাবেন।
– তাকে অন্য কেউ নিয়ন্ত্রণ করছে ভাবতে থাকা।
– স্বপ্নের মধ্য দিয়ে বিশেষ ক্ষমতা লাভ করছেন ভাবা ইত্যাদি।

আচরনগত সমস্যা:

১) হুট করেই তুমুল হাসি আবার কোনো কারণ ছাড়াই কান্না করা।
২) খুব বেশি রেগে বা উত্তেজিত হয়ে মারতে যাওয়া।
৩) মানুষের সাথে একেবারেই মিশতে না চাওয়া।
৪) আত্মহত্যার চেষ্টা করা কোনো কারণ ছাড়াই।
৫) এক স্থানে ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থাকা।
৬) আগে একেবারেই যা করতেন না সে ধরনের আচরণ করতে থাকা।
৭) পাবলিক স্থানে গায়ের কাপড় খুলে ফেলার চেষ্টা করা।

অনুভূতি বিষয়ক সমস্যা:

১) কথা-বার্তা শুনতে পাওয়া যদিও কেউ তার সাথে কথা বলছেন না। সিজফ্রেনিয়ার রোগীরা মানুষের কথা শোনেন তার সাথে কেউ কথা না বললেও এমনকি পশুপাখির আওয়াজ শুনতে থাকেন। একারণে মাঝে মাঝে কানে তুলো বা আঙুল দিয়ে বসে থাকেন।
২) গায়ে পোকামাকড়ের হাঁটার অনুভূতি পান, তারা মনে করেন চামড়ার নিচে কি যেনো হেঁটে চলেছে।
৩) বিশেষ কোনো কিছুর গন্ধ পেতে থাকা যদিও অন্যেরা কেউই পাচ্ছেন না।

উপরের লক্ষণগুলো যদি কারো মধ্যে ৬ মাসের বেশি দেখতে পাওয়া যায় তাহলে তিনি সিজোফ্রেনিয়াতে আক্রান্ত। তবে ঘাবড়ে যাওয়ার কিছু নেই। দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ এবং আপনজনের মায়া-মমতাতে রোগী অনেক ক্ষেত্রেই সুস্থ হয়ে যান। সুতরাং অবহেলা নয় একেবারেই।

তথ্যসূত্রঃ http://www.newsevent24.com/detail/event/19541

১,৩৭০ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
কৈফিয়ত - তোমরা যে যা-ই ব'ল না বন্ধু; এ যেন এক - 'দায়মুক্তির অভিনব কৌশল'! যেন-বা এক শুদ্ধি অভিযান - 'উকুন মেরেই জঙ্গল সাফ'!! প্রতিঘাতের অগ্নি-শলাকা হৃদয় পাশরে দলে - শুক্তি নিকেশে মুক্তো গড়ায় ঝিনুকের দেহ গলে!! মন মুকুরের নিঃসীম তিমিরে প্রতিবিম্ব সম - মেলে যাই কটু জীর্ণ-প্রলেপ ধূলি-কণা-কাদা যত। রসনা যার ঘর্ষনে মাজা সুর তায় অসুরের দানব মানবে শুনেছ কি কভু খেলে হোলি সমীরে? কাব্য করি না বড়, নিরেট গদ্যও জানিনে যে, উষ্ণ কুসুমে ছেয়ে নিয়ো তায় - যদি বা লাগে বাজে। ব্যঙ্গ করো না বন্ধু আমারে অচ্ছুত কিছু নই, সীমানা পেরিয়ে গেলে জানি; পাবে না তো আর থৈ। যৌবন যার মৌ-বন জুড়ে ঝরা পাতা গান গায় নব্য কুঁড়ির কুসুম অধরে বোলতা-বিছুটি হুল ফুটায়!! ভাল নই, তবু বিশ্বাসী - ভালবাসার চাষবাসে, জীবন মরুতে ফুটে না কো ফুল কোন অশ্রুবারীর সিঞ্চনে। প্রাণের দায়ে এঁকে যাই কিছু নিষ্ঠুর পদাবলী: দোহাই লাগে, এ দায় যে গো; শুধুই আমার, কেউ না যেন দুঃখ পায়।
সর্বমোট পোস্ট: ১৪৩ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ২৪২২ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৫-০২-১৪ ০২:৫৯:৫৩ মিনিটে
banner

৯ টি মন্তব্য

  1. সবুজ আহমেদ কক্স মন্তব্যে বলেছেন:

    ভালো লাগলো

    বেশ উপকারে আসবে

    নাইস ভাবনা

  2. অনিরুদ্ধ বুলবুল মন্তব্যে বলেছেন:

    শুভেচ্ছা ও ধন্যবাদ জানাই কবিকে।
    ভাল থাকুন নিরন্তর –

  3. এস এম আব্দুর রহমান মন্তব্যে বলেছেন:

    তথ্য বহুল লেখা । স্বচেতনতা বাড়বে সকলের । ধন্যবাদ আপনাকে । শুভ কামনা ।

  4. এই মেঘ এই রোদ্দুর মন্তব্যে বলেছেন:

    অনেক সুন্দর বিষয় তুলে ধরেছেন ভাইয়া

    সচেতনতামূলক পোস্ট

    এ পোস্টটিও স্টিকি হওয়ার যোগ্য

    আশা করছি মাননীয় পরিচালক মান সম্মত পোস্টই স্টিকি করবেন।

  5. টি. আই. সরকার (তৌহিদ) মন্তব্যে বলেছেন:

    ‘সিজোফ্রেনিয়া’! এমন মানসিক রোগী চোখে পড়েনি এখনো ! দু’একজনের মধ্যে হয়তো দু’ একটি লক্ষণ দেখেছি কিন্তু তা এ রোগের সাথে যায় না !

    সবাই সুস্থ থাকুক । সুন্দর সচেতনতামূলক পোস্টের জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ ।

  6. অনিরুদ্ধ বুলবুল মন্তব্যে বলেছেন:

    মৃগী বোগীদের মাঝে এর নানান উপসর্গগুলো দেখতে পাওয়া যায় বেশি।
    পড়ার জন্য ধন্যবাদ।

  7. Adobe Flash CS4 Professional Classroom in a Book – Adobe Creative Team

    About the AuthorThe Adobe Creative Team of designers, writers, and editors has extensive, real-world knowledge of Adobe products. They work closely with

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top