Today 01 Dec 2022
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

দুইজন অমরাবতীর গল্প

লিখেছেন: আরজু মূন জারিন | তারিখ: ২৮/০৯/২০১৩

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 1055বার পড়া হয়েছে।

পূর্ব প্রকাশিতের পর

আজ  ২৮  সেপ্টেম্বর ৪০৮০ সাল বিজ্ঞানের ইতিহাসে আবার সংযোজিত হয়েছে এক নুতুন অধ্যায় এর l

টানা নয়মাস   জেরমিক্স  ও এথেনা র  অক্লান্ত  প্রচেষ্টায় এ মানবের মস্তিস্ক এবং হার্ট এর সংযোজনে এ  ক্লোন টি যখন ল্যাব থেকে বের সবার উদ্দেশ্যে হাই বলে হাসলো সবাই আনন্দে উল্লাস করে উঠলো ত্রিনিদাদ কে যারা চিনত সবার ই মনে হলো আমাদের ত্রিনিদাদ আমাদের কাছে ফিরে ফিরে এসেছে l

আনন্দে এথেনার চোখে পানি এসে গেল l

ত্রিনিদাদ ভাই আমার বলে ছুটে যেতে গেল সদ্য প্রাণ পাওয়া ক্লোন টির দিকে

জেরমিক্স হাত বাড়িয়ে বাধা দিয়ে তাকে বসালো হাতে  কফি দিয়ে বলল

মহামান্য এথেনা এ সুধু ই ত্রিনিদাদ এর শারীরিক অবয়ব  ব্যক্তিত্য  চিন্তা চেতনা সম্পূর্ণভাবে একজন ক্লোন এর তার মানুষের মত ভাবার মত চিপস টা এখনো সংযোজন করা হয়নি সম্রাজ্ঞী l

তোমাকে ধন্যবাদ জেরমিক্স এক অসাধ্য সাধন করেছ তুমি আমার মাথা অবনত করে তোমাকে সন্মান প্রদর্শন করছি বলে এথেনা মাথা নত করলো জেরমিক্স এর সামনে l

ছি ছি তা করবেন না অযাচিত সন্মান প্রদর্শন করবেন না যদি বলেন আপনি কিছু কম কষ্ট করেন নি দিনরাত আমার সাথে থাকা প্রেরণা দেওয়া বলা যায় আপনাকে ভালোবেসে এ  কাজ করেছি আমি এথেনা আবেগ এর স্বরে বলে জেরমিক্স l

ঠিক একই সময়ে এই মহাকাশের আরেক মাতৃসদন ল্যাব এ জন্ম নিল এক মানব শিশু এক নুতুন প্রাণ এর সে নীরা আর ত্রিনিদাদ এর পুত্রসন্তান l

 

শিশু টি জন্মের পর একটু পিটপিট করে তাকালো প্রথমে  তারপর হাত মুষ্টিবদ্ধ করে চিত্কার করে জানালো তার প্রথম  প্রতিবাদ একজন মানব সন্তান হিসাবে

তার অভিযোগ কেন তাকে মায়ের নিরাপদ প্রকোষ্ঠ থেকে এই বিপদজনক পৃথিবী তে আনা হলো ?

 

তার পক্ষে  কল্পনা করা সম্ভব নয় এই প্রকৃতির রহস্য বিধাতার রহস্য

তাকে আনতে গিয়ে প্রকৃতিতে সংঘঠিত হয়েছে কত ধংশ যজ্ঞ

তার ভ্রুণ যখন মায়ের প্রকোষ্ঠে ঢুকছিল একই সঙ্গে তাকে জন্ম দেওয়া পিতা ত্রিনিদাদ এর প্রাণ পাখি

চলিয়া যাইতেছিলো পরজগতের  দিকে l

 

নার্স রোবট টি এসে নীরার কোলে তুলে দিল তার সন্তানটিকে

অতি মনোহর হইয়াছে দেখতে আপনার সন্তানটি বলল নার্স টি আনন্দের গলায় l

 

নীরার মনে কোনো আনন্দ হইতেছিলোনা সে শুন্য  সিলিং এর তাকিয়ে ভাবতে লাগলো

 

হায় আমার ত্রিনিদাদ তুমি কোথায় ?

 

অপরদিকে ত্রিনিদাদ এর ক্লোন টি রহস্যময় কারণে উঠে বসলো এবং নিয়তির অমোঘ আকর্ষণে রওয়ানা হলো তার মানবীর মাতৃসদন রুম এ

 

তাকে নিয়া আসিতেছিল এথেনা ও জেরমিক্স  কেননা ত্রিনিদাদ এর মৃত্যুর সময় তার শেষ যোগাযোগ ছিল নীরা

 

নীরা ত্রিনিদাদ এর হেটে আসার আওয়াজ শুনছে হৃদ্স্পন্ধন শুনছে নীরা উত্তেজনায় বিছানায় উঠে বসলো l

 

সেই সময়ে দরজা খুলে ভিতরে ঢুকলো এথেনা জেরমিক্স ত্রিনিদাদ

 

নীরা  কাওকে দেখছে না সুধু  ত্রিনিদাদ কে

ত্রিনিদাদ ত্রিনিদাদ তুমি এসেছ  ?

 

(পরবর্তিতে)

১,১০৮ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
নিজের সম্পর্কে কিছু বলতে বললে সবসময় বিব্রত বোধ করি। ঠিক কতটুকু বললে শোভন হবে তা বুঝতে পারিনা । আমার স্বভাব চরিত্র নিয়ে বলা যায়। আমি খুব আশাবাদী একজন মানুষ জীবন, সমাজ পরিবার সম্পর্কে। কখনো হাল ছেড়ে দেইনা। কোনো কাজ শুরু করলে শত বাধা বিঘ্ন আসলেও তা থেকে বিচ্যুত হইনা। ফলাফল পসিটিভ অথবা নেগেটিভ যাই হোক শেষ পর্যন্ত কোন কাজ এ টিকে থাকি। জীবন দর্শন" যতক্ষণ শ্বাস ততক্ষণ আশ " লিখালিখির মূল উদ্দেশ্যে অন্যকে ভাল জীবনের সন্ধান পেতে সাহায্য করা। মানুষ যেন ভাবে তার জীবন সম্পর্কে ,তার কতটুকু করনীয় , সমাজ পরিবারে তার দায়বদ্ধতা নিয়ে। মানুষের মনে তৈরী করতে চাই সচেতনার বোধ ,মূল্যবোধ আধ্যাতিকতার বোধ। লিখালিখি দিয়ে সমাজে বিপ্লব ঘটাতে চাই। আমি লিখি এ যেমন এখন আমার কাছে অবাস্তব ,আপনজনের কাছে ও তাই। দুবছর হলো লিখালিখি করছি। মূলত জব ছেড়ে যখন ঘরে বসতে বাধ্য হলাম তখন সময় কাটানোর উপকরণ হিসাবে লিখালিখি শুরু। তবে আজ লিখালিখি মনের প্রানের আত্মার খোরাকের মত হয়ে গিয়েছে। নিজে ভালবাসি যেমন লিখতে তেমনি অন্যের লিখা পড়ি সমান ভালবাসায়। শিক্ষাগত যোগ্যতা :রসায়নে স্নাতকোত্তর। বাসস্থান :টরন্টো ,কানাডা।
সর্বমোট পোস্ট: ২২৯ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ৩৬৮৩ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৯-০৫ ০১:২০:৩৫ মিনিটে
banner

২ টি মন্তব্য

  1. শাহ্‌ আলম শেখ শান্ত মন্তব্যে বলেছেন:

    চমত্‍কার লিখেছেন তো !
    ভাল লাগা জানিয়ে দিলাম ।
    ভাল থাকবেন প্রত্যাশা রইল ।

  2. আমির হোসেন মন্তব্যে বলেছেন:

    সাথে আছি। ভাল লাগছে।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top