Today 25 Sep 2022
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

দ্যা ব্লাড ক্যাভ

লিখেছেন: এম আর মিজান | তারিখ: ২৭/০৬/২০১৫

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 1264বার পড়া হয়েছে।

পূর্ব প্রকাশের পর……
যার কোন শিক্ষক নেই তার একজন অদৃশ্য শিক্ষক থাকে।কারো জন্য সেটা সয়ং সৃষ্টিকর্তা নিজে।আবার কারো জন্য সেটা ডিভাইল।সংসারে সমৃদ্ধি হচ্ছে।ছেলে মেয়েরাও বড় হচ্ছে।দৈহিক গঠনাকৃতিতে তারা পৃথিবী শ্রেষ্ঠ। প্রায় ৯০ ফিট দৈর্ঘ্যের আদাম।যা আনুমানিকভাবে ৬০ হাত।সন্তানেরাও সম আকৃতি বিশিষ্ট। সৌন্দর্যে তাবৎকালের শ্রেষ্ঠও তারাই।আদাম ক্রমেই জিবনী শক্তি হারাচ্ছে।এবেল এবং কেনের যৌবন দীপ্তি ছড়াচ্ছে।উদ্দামতা, প্রফুল্লতার এক মহাসমারোহ তাদের জীবন জুড়ে।এবেল বরাবরই বাবা আদামের অনুগত। কিন্তু আদাম তাই তাকে করতে বলে যার জন্য সে নির্দেশিত হচ্ছে। আদিষ্ট হচ্ছে অদৃশ্য বানী দ্বারা। যা সয়ং তাকে আর্থে (পৃথিবীতে) পাঠিয়েছে।যিনি আদামকে অসাধারণত্ব দিয়ে তৈরি করেছেন।মহাশন থেকে যাকে ভালোবেসে চলেছেন নিরন্তরভাবে। অদৃশ্য অথচ সৃষ্ট ডিভাইল দ্বারা প্রতারিত হয়েছে।নিগৃহীত হয়েছে।অবশেষে ফিরে যাওয়ার শর্ত ও পথ দিয়ে এখান থেকে উত্তরনের ব্যবস্থা করেছেন।তাই দেহ এবং ইচ্ছার সমস্ত শক্তি ব্যয় করে হলেও রক্ষা করে চলেছেন।কিন্তু সন্তানদের উদ্দিপ্ত যৌবনের যথার্থ ব্যবহার? যদিও তখনো চেনের প্রনয় পিয়াসু জিঘাংসা অপ্রকাশ্যভাবেই বেড়ে চলছে।এবেল বাবাকে অনুশরণ করে চলেছে সব কিছুতেই।কিন্তু চেন যেন তৃতীয় কোন শক্তির দ্বারা আচ্ছাদিত হচ্ছে।কাজের শেষে কোথায় যেন কাটিয়ে দিচ্ছে বেলা।এবেলকে সাথে নিয়ে খেলছেনা,ঘুরছেনা আর।আকলিমা ও হাওযা দুজনেই নব যৌবনা।দীপ্তি বাহিরে সমান না ছড়ালেও মন, ইচ্ছা আর আকাংখা নারী রুপে বইছে সন্দেহাতীতভাবেই। ভেবে পায়না আদাম কি করবে এমন মুহুর্তে।সময় তাকে এমন মুহুর্তের সামনে দাড় করিয়ে দিয়েছে, যেখানে শত বিচক্ষণতার তীক্ষ্ণতা হেরে যেতে বসেছে।পৃথিবীতে আসার পর হতে অদ্যাবধি সে যা আদিষ্ট হয়েছে,যেভাবে আদিষ্ট হয়েছে সেভাবেই পরিচালিত হয়ে আসছে ইচ্ছার ব্যতিরেকেও।কিন্তু এহেন পরিস্থিতিতে?

১,২৩৯ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
এম আর মিজান।শরীয়তপুর জেলার নড়িয়া থানায় জন্ম।১৯৮৯ সালের ০৫ ই ফেব্রুয়ারি। লেখালেখিতে হাতে খড়ি ক্লাস সেভেন থেকে।আশাহত হওয়াতে ছোট বেলার কোন লেখাই অবশিষ্ট নেই।গান লিখাই ছিল প্রধান। গাইতে চাইতাম, সুযোগ হয়ে ওঠেনি। বিভিন্ন নাট্যদল ছিল প্রিয় সংগ।মনের তাড়নায় লিখি।প্রিয় স্থান :বরিশাল। প্রিয় সৃতি:জান্নাতুল ফেরদৌস। দু:খময় সৃতি:জান্নাতুল ফেরদৌস। প্রিয় ডাক:নানুর নিঝু ডাক।প্রিয় বন্ধু:আতিকুর রহমান। প্রিয় উক্তি:নিজের"পৃথিবীর সবাই তোমাকে কোন না কোন কারনেই ভালো বাসে,তুমিই তোমাকে কারনে অকারনে বোঝ এবং ভালো বাস।প্রিয় প্রত্যাশা :মৃত্যুর অপেক্ষা....
সর্বমোট পোস্ট: ৫৭ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ২৩ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৪-০৬-১২ ১৪:০৬:৩১ মিনিটে
banner

৬ টি মন্তব্য

  1. সবুজ আহমেদ কক্স মন্তব্যে বলেছেন:

    fine

    ভাল লাগলো পড়ে

    শুভ কামনা রঈল

  2. মিলি মন্তব্যে বলেছেন:

    চেন না রে ভাই কেন ,বাইবেল এর বর্ণনা অনুযায়ী এ্যাবল আর কেন এবং আল কুরআন এ বর্ণিত আছে হাবিল আর কাবিল ।

  3. এম আর মিজান মন্তব্যে বলেছেন:

    মিলি আপি,ধন্যবাদ। বিরক্ত লাগার কথাই বটে।লিখতে গিয়ে ভুল হয়ে যাচ্ছে।পরবর্ততে খুব সতর্ক হবো। ভাল থাকার প্রত্যাশা করছি

  4. এই মেঘ এই রোদ্দুর মন্তব্যে বলেছেন:

    লিখে যাব সাথে আছি
    ভাল লাগল

  5. টি. আই. সরকার (তৌহিদ) মন্তব্যে বলেছেন:

    ভাল লিখছেন…! খুব সুন্দর । লিখতে থাকুন ।
    শুভেচ্ছা জানবেন সতত ।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top