Today 19 Jun 2021
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

নিঃশঙ্ক কারাগার

লিখেছেন: অনিরুদ্ধ বুলবুল | তারিখ: ২৯/০৪/২০১৫

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 1117বার পড়া হয়েছে।

জন অরণ্যের অনতি দূরে

জেগে উঠা প্রবালে

বিরচে সহায়ের সরস দ্বীপ –

হেথা এক ‘রবিণসন ক্রুশো’;

দূর্জ্ঞেয় আবেগে গড়ে তুলে

অরণ্য প্রাসাদ – আপনার মনে।

 

মন্দাকিনীর ঢেউ এসে

ভাসিয়ে নিয়ে যায়

যোজন পাথারের অথৈ চূড়ায়

সর্বনেশে ঝড় হানে স্বর্গবাসে,

অবশেষে মথ হয়; রচে যায়

‘নিঃশঙ্ক কারাগার’ – আপন লালায়।

 

আশাহীন মরু বুকে ভুলে প্রতিবাদ

সর্বনেশে বহ্নিশিখায় জ্বালায়

বিদ্রোহের আগুন, নিষ্প্রাণ হতাশায়

ছড়ায় দাহচ্ছটা, অন্ধকার

বন্ধ-কূপে সমর্পিত ‘ক্রুশো’

অসহায় প্রাণ; ছট্‌-ফট্ বিদারণ

অসীম কুণ্ড থেকেও ফিরে দেখা –

আর কিছু পিছুটান, আর কোন ভয়?

 

গোবী-সাহারার বুকে যদি একটি সতেজ শিষ!

কী আশা তার বেঁচে বর্তে

ফলবান হওয়ার? কী বা দাম হেন

অঙ্কুরে লুকোনো প্রাণের?

ভবিষ্যৎ বিহীন –

জড়ান্ধ জীবনের কী বা লোভ এত?

শত প্রতিকূলতার মাঝেও

জীবনের দল মেলার কী বা প্রয়োজন?

 

বেঁচে আছে কি মরে আছে –

বোধ হয় না কোন,                 

পাষাণ রুদ্ধ গুহা মাঝে

যেন এক কানা-মাছি খেলা,

অসহায় জীবনের মুমূর্ষুক্ষণ

মেপে মেপে গড়ায় বেলা।

 

ক্ষয়িষ্ণু প্রাণের অন্তে যদি বলে – আসি এবার;

কার কি বা দুঃখ তাতে আ-র কি বা খেদ!

ভারবাহী পশু, ছেড়ে দিয়ে হাল;

স্বপ্ন নিঃশেষিত চোখে চেয়ে থাকে

নির্বিকার, যেন শেষ দেখা –

জগতের স-ব সূধা-রস…

তারপর দুনিয়াকে সেলাম!

…. কে বা মনে রাখে তারে আর?

১,১১০ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
কৈফিয়ত - তোমরা যে যা-ই ব'ল না বন্ধু; এ যেন এক - 'দায়মুক্তির অভিনব কৌশল'! যেন-বা এক শুদ্ধি অভিযান - 'উকুন মেরেই জঙ্গল সাফ'!! প্রতিঘাতের অগ্নি-শলাকা হৃদয় পাশরে দলে - শুক্তি নিকেশে মুক্তো গড়ায় ঝিনুকের দেহ গলে!! মন মুকুরের নিঃসীম তিমিরে প্রতিবিম্ব সম - মেলে যাই কটু জীর্ণ-প্রলেপ ধূলি-কণা-কাদা যত। রসনা যার ঘর্ষনে মাজা সুর তায় অসুরের দানব মানবে শুনেছ কি কভু খেলে হোলি সমীরে? কাব্য করি না বড়, নিরেট গদ্যও জানিনে যে, উষ্ণ কুসুমে ছেয়ে নিয়ো তায় - যদি বা লাগে বাজে। ব্যঙ্গ করো না বন্ধু আমারে অচ্ছুত কিছু নই, সীমানা পেরিয়ে গেলে জানি; পাবে না তো আর থৈ। যৌবন যার মৌ-বন জুড়ে ঝরা পাতা গান গায় নব্য কুঁড়ির কুসুম অধরে বোলতা-বিছুটি হুল ফুটায়!! ভাল নই, তবু বিশ্বাসী - ভালবাসার চাষবাসে, জীবন মরুতে ফুটে না কো ফুল কোন অশ্রুবারীর সিঞ্চনে। প্রাণের দায়ে এঁকে যাই কিছু নিষ্ঠুর পদাবলী: দোহাই লাগে, এ দায় যে গো; শুধুই আমার, কেউ না যেন দুঃখ পায়।
সর্বমোট পোস্ট: ১৪৩ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ২৪২২ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৫-০২-১৪ ০২:৫৯:৫৩ মিনিটে
banner

৬ টি মন্তব্য

  1. এই মেঘ এই রোদ্দুর মন্তব্যে বলেছেন:

    . কে বা মনে রাখে তারে আর?

    হুম সুন্দরলিখেছেন ভাইয়া

    শুভকামনা সতত

  2. অনিরুদ্ধ বুলবুল মন্তব্যে বলেছেন:

    আপনাকেও প্রীতিময় শুভেচ্ছা রইল –

  3. সবুজ আহমেদ কক্স মন্তব্যে বলেছেন:

    মুগ্ধকর লিখা
    বেশ ভাল লিখা
    পড়ে ভালো লাগলো কবি ভাই

  4. টি. আই. সরকার (তৌহিদ) মন্তব্যে বলেছেন:

    //অবশেষে মথ হয়; রচে যায়
    ‘নিঃশঙ্ক কারাগার’ – আপন লালায়।//
    কি পংক্তি ! অসাধারণ বললেও মনে হয় কম বলা হবে ।
    শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা জানবেন প্রিয় কবি ।

    • অনিরুদ্ধ বুলবুল মন্তব্যে বলেছেন:

      কবির এতটুকু ভাল লেগে থাকলে আমার এ লেখা সার্থক বিবেচনা করব।
      অনেক প্রীতিময় শুভেচ্ছা জানবেন কবি।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top