Today 02 Aug 2021
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

» পুরাতন-VS-নতুন

লিখেছেন: এই মেঘ এই রোদ্দুর | তারিখ: ০৮/০১/২০১৫

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 1229বার পড়া হয়েছে।

পুরাতনরা আঁকড়ে ধরে রাখতে চায় জরাজীর্ণতা
ফেলনা জিনিসগুলোও পলিথিন দিয়ে মুড়িয়ে দেরাজে তুলে রাখে
যা করে আসছিল সেই ব্রিটিশ আমল থেকে,
সেই একই প্রথা অনুবর্তনে তারা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ।

নিজেদের জায়গা থেকে অবস্থান্তর হতে তাদের জন্য কষ্টসাধ্য ব্যাপার
তাদের সব বিষয়েই টেনশন অধিক,
সবকিছুকেই একহাতে আঁকড়ে ধরে নিজের করে রাখতে চায়,
দায়িত্ব হস্তান্তর করতে চায় না পুরাতনরা সহজে।

ক্ষমতা আমরণ নিজের হাতের মুঠোয় পুরে রাখে/ রাখতে চায়…
ঘরে জরাজীর্ণ তৈজসপত্রগুলো নিয়ে পুরাতনরা দিব্বি কাটিয়ে দেয় দিনের পর দিন;
ওরা সহজে নতুনের মাঝে হাত দেয় না,
নতুনদেরও তাদের মত করে রাখতে প্রাণান্তর চেষ্টা করে যায়।

ফেলনা জিনিসগুলো ছুঁড়ে ফেলে দিতে চাইলে
পুরাতনরা বলে-থাকুক না, নতুনগুলো গুছিয়ে রাখলে নতুনই থাকবে…
তারা প্রচুর তৈজিসপত্র কিনে ঘরে জমায়, রক্ষা করে যক্ষের ধনের মতো।

অপরপক্ষে নতুনরা জরাজীর্ণ জঞ্জাল দুই চউক্ষে দেখতে পারে না,
নতুনরা নতুনেই আনন্দ খুঁজে, ঘরকনের কাজগুলোতেও নতুনত্ব খুঁজে।

একই রান্না তারা বিভিন্ন আঙ্গিকে রেঁধে স্বাধে পরিবর্তন আনতে চেষ্টা করে,
ঘরের জিনিসপত্রগুলো এপাশ ওপাশ করে গুছানোর মাঝে আনন্দ খুঁজে।

নতুনরা খাওয়ার চেয়ে গুছাতে ভালবাসে আর
পুরাতনরা গুছানোর চেয়ে খেতে ভালবাসে.. তারা অসচেতন থেকে জীবন কাটায়
ফলে তাদের মাঝে দেখা দেয় নানাবিধ রোগ ব্যাধী…….
নতুনরা খাওয়া পড়ায়, স্বাস্থ্য সম্পর্কে সর্বদা সচেতন থাকতে চেষ্টা করে
ফলে তারা দীর্ঘদিন সুস্থ থাকে, চল্লিশে বুড়ো হয়ে যায় না।

পুরাতনরা চলে যায় একসময় টেকে থাকে তাদের তৈজস;
আর পুরাতনদের তৈজসপত্রগুলো স্মৃতি হিসাবে
নতুনরা শোপিচ বানিয়ে শোকেসে রেখে দেয় যুগ যুগ ধরে।ঠ
তখন পরবর্তী প্রজন্ম পায় পুরাতন সভ্যতার ঘ্রাণ, রোমন্থন করতে চায় সেইসব দিনগুলোকে।

অন্যদিকে, নতুনরা জরাজীর্ণ তৈজস নষ্ট করে অনেক, অবহেলায় ছুঁড়ে ফেলে দেয়,
অপচয় করা তাদের নিত্যনৈমিত্তিক বিষয়……..
ফলে তাদের রেখে যাওয়া কিছুই স্মৃতি হিসাবে থাকে না
নাম উঠে যায় নতুনদের ভুলে যাওয়া খাতায়।

https://lh3.googleusercontent.com/-901kAcB0D3I/VKuMfghlslI/AAAAAAAACpw/ZLRKIDQHDn0/w426-h240/09133a-496.gif

১,২৩০ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
আমি খুবই সাধারণ একজন মানুষ । জব করি বাংলাদেশ ব্যাংকে । নেটে আগমন ২০১০ সালে । তখন থেকেই বিশ্ব ঘুরে বেড়াই । যেন মনে হয় বিশ্ব আমার হাতের মুঠোয় । আমার দুই ছেলে তা-সীন+তা-মীম ==================== আমি আসলে লেখিকা নই, হতেও চাই না আমি জানি আমার লেখাগুলোও তেমন মানসম্মত না তবুও লিখে যাই শুধু সবার সাথে থাকার জন্য । আর আমার ভিতরে এত শব্দের ভান্ডারও নেই সহজ সরল ভাষায় দৈনন্দিন ঘটনা বা নিজের অনুভূতি অথবা কল্পনার জাল বুনে লিখে ফেলি যা তা । যা হয়ে যায় অকবিতা । তবুও আপনাদের ভাল লাগলে আমার কাছে এটা অনেক বড় পাওয়া । আমি মানুষ ভালবাসি । মানুষকে দেখে যাই । তাদের অনুভূতিগুলো বুঝতে চেষ্টা করি । সব কিছুতেই সুন্দর খুঁজি । ভয়ংকরে সুন্দর খুঁজি । পেয়েও যাই । আমি বৃষ্টি ভালবাসি.........প্রকৃতি ভালবাসি, গান শুনতে ভালবাসি........ ছবি তুলতে ভালবাসি........ ক্যামেরা অলটাইম সাথেই থাকে । ক্লিকাই ক্লিকাই ক্লিকাইয়া যাই যা দেখি বা যা সুন্দর লাগে আমার চোখে । কবিতা শুনতে দারুন লাগে........নদীর পাড়, সমুদ্রের ঢেউ (যদিও সমুদ্র দেখিনি), সবুজ..........প্রকৃতি, আমাকে অনেক টানে,,,,,,,,,আমি সব কিছুতেই সুন্দর খুজি.........পৃথিবীর সব মানুষকে বিশ্বাস করি, ভালবাসি । লিখি........লিখতেই থাকি লিখতেই থাকি কিন্তু কোন আগামাথা নাই..........সহজ শব্দে সব এলোমেলো লেখা..........আমি আউলা ঝাউলা আমার লেখাও আউলা ঝাউলা ...................... ======================== এটা হলো ফেইসবুকের কথা........ ========================== কেউ এড বা চ্যাট করার সময় ইনফো দেখে নিবেন এবং কথা বলবেন...........আর আইস্যাই খালাম্মা বলে ডাকবেন না । পোলার মা হইছি বইল্যা খালাম্মা নট এলাউড......... ================ এই পৃথিবী যেমন আছে ঠিক তেমনি রবে সুন্দর এই পৃথিবী ছেড়ে একদিন চলে যেতে হবে ======================= কিছু মুহূর্ত একটু ভালোবাসার স্পর্শ চিত্তে পিয়াসা জাগায় বারবার এই নিদারুণ হর্ষ ....... ছB ========================= এই হলাম আমি........ =================
সর্বমোট পোস্ট: ৬৩৯ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ৯০০০ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৯-১৫ ০৪:৫২:৪০ মিনিটে
banner

৪ টি মন্তব্য

  1. সহিদুল ইসলাম মন্তব্যে বলেছেন:

    পুরাতন স্মৃতি অনেক সময় সুখ দেয় , কিন্তু দুঃক্ষই দেয় বেশি।

  2. অনিরুদ্ধ বুলবুল মন্তব্যে বলেছেন:

    লালিত সংস্কার কেউই সহজে ত্যাগ করতে পারে না।
    ভাল লেগেছে কবিতা। শুভেচ্ছা জানবেন কবি।

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top