Today 21 May 2022
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

বন্ধুর গুণ

লিখেছেন: আমির ইশতিয়াক | তারিখ: ১৯/০১/২০১৪

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 1157বার পড়া হয়েছে।

নম্র ভদ্র ছেলে কুতুব ভাই,
হিংসা অহংকার তার মধ্যে নাই।
তার কোন তুলনা নাই,
তাই আমি তার গুনগান গাই।

মনটা তার খুবই কোমল,
ভাল তার আখলাক আমল।
দেখতে সে ভীষণ কালো,
কিন্তু লেখাপড়ায় খুবই ভালো।

সদা সত্য কথা বলে,
সরল সঠিক পথে চলে।
আমরা সবাই থাকি তার দলে ,
তার কথা যায় না বিফলে।

১,১৯১ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
আমির ইশতিয়াক ১৯৮০ সালের ৩১ অক্টোবর ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর থানার ধরাভাঙ্গা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। বাবা শরীফ হোসেন এবং মা আনোয়ারা বেগম এর বড় সন্তান তিনি। স্ত্রী ইয়াছমিন আমির। এক সন্তান আফরিন সুলতানা আনিকা। তিনি প্রাথমিক শিক্ষা শুরু করেন মায়ের কাছ থেকে। মা-ই তার প্রথম পাঠশালা। প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা শুরু করেন মাদ্রাসা থেকে আর শেষ করেন বিশ্ববিদ্যালয়ে। তিনি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে নরসিংদী সরকারি কলেজ থেকে সমাজবিজ্ঞান বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি ছাত্রজীবন থেকেই লেখালেখি শুরু করেন। তিনি লেখালেখির প্রেরণা পেয়েছেন বই পড়ে। তিনি গল্প লিখতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করলেও সাহিত্যের সবগুলো শাখায় তাঁর বিচরণ লক্ষ্য করা যায়। তাঁর বেশ কয়েকটি প্রকাশিত গ্রন্থ রয়েছে। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য উপন্যাস হলো- এ জীবন শুধু তোমার জন্য ও প্রাণের প্রিয়তমা। তাছাড়া বেশ কিছু সম্মিলিত সংকলনেও তাঁর গল্প ছাপা হয়েছে। তিনি নিয়মিতভাবে বিভিন্ন প্রিন্ট ও অনলাইন পত্রিকায় গল্প, কবিতা, ছড়া ও কলাম লিখে যাচ্ছেন। এছাড়া বিভিন্ন ব্লগে নিজের লেখা শেয়ার করছেন। তিনি লেখালেখি করে বেশ কয়েটি পুরস্কারও পেয়েছেন। তিনি প্রথমে আমির হোসেন নামে লিখতেন। বর্তমানে আমির ইশতিয়াক নামে লিখছেন। বর্তমানে তিনি নরসিংদীতে ব্যবসা করছেন। তাঁর ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা একজন সফল লেখক হওয়া।
সর্বমোট পোস্ট: ২৪১ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ৪৭০৯ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৬-০৫ ০৭:৪৪:৩৯ মিনিটে
Visit আমির ইশতিয়াক Website.
banner

৬ টি মন্তব্য

  1. এস এম আব্দুর রহমান মন্তব্যে বলেছেন:

    ভাই আমির হোসেন আপনার জীবনতো শুরু সবেই । তাই ইতোপূর্বে দুটো ছড়ায় পরামশৃ লিখেও আজ আবার লিখলাম । নাখোশ না হলে খুশী হবো । আপনার ছড়া পড়ে ছন্দের গতি দেখে মনে হলো এটি স্বর বৃত্য ছন্দে লেখ । স্বরবৃত্য ছন্দে মুক্তাক্ষর এক মাত্রা ,বদ্দাক্ষরওএক মাত্রা । সে দিক থেকে——
    নম্র ভদ্র ছেলে কুতুব ভাই = ৯ মাত্রা
    হিংসা অহংকার তার মধ্যে নাই =৯মাত্রা
    তার কোন তুলনা নাই =৭ মাত্রা
    তাই আমি তার গুন গান গাই =৭ মাত্রা
    মনটা তার খুবই কোমল = ৭ মাত্রা
    ভাল তার আখলাক আমল= ৭ মাত্রা
    দেখতে সে ভীষন কালো = ৭ মাত্রা
    কিন্তু লেখা পড়ায় খুবই ভালো =১০ মাত্রা
    সদা সত্য কথা বলে = ৮ মাত্রা
    সরল সঠিক পথে চলে =৮ মাত্রা
    আমরা সবাই থাকি তার দলে=১০ মাত্রা
    তার কথা যায় না বিফলে = ৮ মাত্রা
    পুরু ছড়া সম মাত্রায় লেখা যায়,দুই লাইন করে সম মাত্রায় লেখারও বিধান আছে । কিন্তু আপনার ছড়ার ৭নংও ৮ নং চরণ
    অসম মাত্রাএবং ১১ ও ১২ নং চরণ অসম মাত্রা । ৮ নং চরণের মাত্রা বিভ্রাট এড়ানো যেত । যেমন-
    দেখতে সে ভীষন কালো= ৭ মাত্রা
    লেখা পড়ায় খুব ভালো ।=৭মাত্রা তা ছাড়া ১১ ও ১২ চরণে-
    আমরা থাকি তার দলে = ৮ মাত্রা
    তার কথা না যায় বিফলে=৮ মাত্রা । ধন্যবাদ । লিখে যান অবিরত । শুভ কামনা ।

  2. আমির হোসেন মন্তব্যে বলেছেন:

    নাখোশ হবো কেন ভাই? আমিতো সবে মাত্র শিখছি। আপনার পরামর্শ ও মাত্রার ব্যবহার নিয়ে আলোচনা আমাকে পুলকিত করেছে। আমি চাই আপনাদের মতো গুণী কবিরা আমাকে সব সময় পরামর্শ দিবেন। অসংখ্য ধন্যবাদ। সব সময় এভাবে পরামর্শ দিবেন।

  3. আরজু মন্তব্যে বলেছেন:

    নম্র ভদ্র ছেলে কুতুব ভাই,
    হিংসা অহংকার তার মধ্যে নাই।
    তার কোন তুলনা নাই,
    তাই আমি তার গুনগান গাই।

    ভাল লাগল আপনার কবিতা ধন্যবাদ।

  4. আমির হোসেন মন্তব্যে বলেছেন:

    ধন্যবাদ আরজু।

  5. কে এইচ মাহবুব মন্তব্যে বলেছেন:

    নম্র ভদ্র ছেলে কুতুব ভাই,
    হিংসা অহংকার তার মধ্যে নাই।
    তার কোন তুলনা নাই,
    তাই আমি তার গুনগান গাই।
    মনটা তার খুবই কোমল,

    ভালো লাগলো ।

  6. সবুজ আহমেদ কক্স মন্তব্যে বলেছেন:

    বন্ধুকে নিয়ে লিখা সুন্দর লিখণী
    চমৎকার কবিতা সুন্দর কাব্যতা
    বেশ ভালো লাগলো
    শুভ কামনা রইল

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top