Today 21 May 2022
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

ভূতুরে হসপিটাল____♣

লিখেছেন: মনো জগৎ | তারিখ: ২৫/১০/২০১৪

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 1321বার পড়া হয়েছে।

আমেরিকার ম্যাসাচুচেস্ট অঙ্গরাজ্যের
সালেম নগরীতে অবস্থিত ডেনভার
স্টেট হসপিটালটি ভৌতিক কর্মকান্ডের
জন্য কুখ্যাতি অর্জন করেছে !
এটি মূলত একটি মানসিক হাসপাতাল ছিল যা ১৮৭৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় ॥
মানসিক রোগিদের চিকিত্সার জন্য
স্যার উইলিয়াম হার্বার্ট এই হাসপাতালটি প্রতিষ্ঠা করেন ॥
শুরুর দিকে হাসপাতালটির কর্মকান্ড ভালভাবে চললেও বছর পাঁচেক পর এক মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনায় স্যার উইলিয়াম হার্বার্টের মৃত্যু হলে হাসপাতালটির কর্মকান্ডে আসে আমূল পরিবর্তন॥
স্যার উইলিয়াম হার্বার্টের মৃত্যুর পর
এইখানকের রোগীদের উপর আহ্মরিক
অর্থেই নরক নেমে আসে ॥

রোগীদের মারধর ,ইলেকট্রিক শক
থেকে শুরু করে হাইড্রোথেরাপি পর্যন্ত দেওয়া হত ॥
এরই ধারাবাহিকতায় ১৮৮৫ সালে ব্রায়ান হ্যারিস নামকএক মানসিক রোগীর উচ্চ ইলেকট্রিক শকের দরুন মৃত্যু হয় !

পরে তার লাশ অত্যন্ত গোপনীয়তার সাথে হাসপাতালেরই এক নির্জন জায়গায় কবর দেওয়া হয় !
এই ঘটনার এক সপ্তাহের মাথায় হাসপাতাল কর্মী মাইক হ্যারিসের মৃত্যু হয় ॥
তার মুন্ডুহীন লাশ হাসপাতালের পিছনের
উঠানে আবিষ্কৃত হয় !
এরও ঠিক এক সপ্তাহ পর হাসপাতালের ডাক্তার এফ .হেনরির ঝুলন্ত লাশ পাওয়া যায় তারই কহ্মে!
এই দুইজনই ছিলেন ব্রায়ান হ্যারিসের হত্যাকারী !
তারা তাদের পৌশাচিক আনন্দ লাভের
জন্য রোগীদের উপর বিভিন্ন নির্যাতন
চালাত! হতভাগ্য ব্রায়ান হ্যারিস
ছিলেন তাদের সেই পৌশাচিক
আনন্দের শিকার ॥
এই ঘটনার পর হাসপাতালটি বন্ধ করে দেওয়া হয় ॥

তবে আজও গভীর রাতে হাসপাতাল থেকে ভেসে আসে যন্ত্রনাকাতর
চিত্কার!
মাঝে মাঝে আলোর ঝলকানিও চোখে পড়ে !
এখানকার নিরাপত্তাকর্মীর মাঝে মাঝে ভারী পায়ে হেঁটে যাওয়ার আওয়াজও
শুনতে পান !
কেউ যদি হাসপাতালটি দেখতে চান
তবে তাদেরকে শুধু হাসপাতাল চত্বরেই
প্রবেশ করতে দেওয়া হয় কখনই
হাসপাতালটির ভিতরে প্রবেশ করতে দেওয়া হয় না !

১,২৯২ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
আমি অতি সাধারণ একজন মানুষ। সাদামাটা জীবনযাপন পছন্দ করি। নিজ কাজের প্রতি দায়বদ্ধ। লেখালেখি করি মনের তাড়না থেকে। পছন্দ করি সবার সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক। ভালবাসি মা,মাটি ও মানুষকে। আমার দ্বারা কারো কোনো ক্ষতি হোক কখনোই তা কামনা করিনা। জীবনে চলার পথে সকল বাঁধা বিপত্তিকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে চলেছি___ আমি এখনও পথ চেয়ে বসে আছি সেই মহান নেতার আশায়, যার আগমনে কলুষমুক্ত হবে আমার দেশ, আমার মাটি, আমার মা____
সর্বমোট পোস্ট: ২৩ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ৩৭ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৪-০৯-১১ ১০:২১:৩২ মিনিটে
banner

৬ টি মন্তব্য

  1. শওকত আলী বেনু মন্তব্যে বলেছেন:

    এই নিয়ে একবার একটি প্রবন্ধও পড়েছিলাম অনেক আগে। আবার নতুন করে জানলাম । ভালো লিখেছেন । অনেক ধন্যবাদ চমত্কার একটি বিষয় উপস্থাপনের জন্যে ।

  2. সহিদুল ইসলাম মন্তব্যে বলেছেন:

    কেউ যদি হাসপাতালটি দেখতে চান
    তবে তাদেরকে শুধু হাসপাতাল চত্বরেই
    প্রবেশ করতে দেওয়া হয় কখনই
    হাসপাতালটির ভিতরে প্রবেশ করতে দেওয়া হয় না !

    তাও ভালো যে এটি আমাদের বাংলাদেশে নয়। বাংলাদেশে এমনটি হলে কেউ বলতো হাজার হাজার লোক মেরে ফেলা হচ্ছে আবার কেউ বলতো একজনও মারা হয়নি।

  3. দীপঙ্কর বেরা মন্তব্যে বলেছেন:

    আপনার লেখায় অনেক কিছু জানা যাচ্ছে ,
    ধন্যবাদ

  4. এই মেঘ এই রোদ্দুর মন্তব্যে বলেছেন:

    বাপরে কি ভয়ংকর।
    লেখা ভাল লেগেছে।

  5. মুহাম্মদ দিদারুল আলম মন্তব্যে বলেছেন:

    ভূতুরে হসপিটাল রহস্যে ঘেরা…

  6. সবুজ আহমেদ কক্স মন্তব্যে বলেছেন:

    বিষয় ইজ নাইস

    ভালো লাগা জানিয় গেলাম

    শুভ কামনা থাকলো

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top