Today 01 Dec 2022
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner

স্পেস-১৪(অংশ-৩)

লিখেছেন: রাজিব সরকার | তারিখ: ১৬/০১/২০১৪

এই লেখাটি ইতিমধ্যে 1082বার পড়া হয়েছে।

-কমিটি থেকে ঠিক করা হল,একজন অতি সাধারণ মানুষ নিয়ে যাওয়া হবে।সাধারণ মানুষ সমস্যা সমাধানের কথা খুব সাধারণভাবে ভাবে।যেটা মহাকাশযানে কোন সমস্যা হলে খুব দরকার।কারণ আমরা যারা আছি,আমরা ভাবব সমস্যাটা জটিল।তাই সিম্পল উপায় খুঁজব না।কিন্তু সমস্যাটা সিম্পলও হতে পারে।আর তুমি সমস্যাটা সিম্পলভাবে ভাববে-সে জন্যই তোমাকে নেওয়া।
-তাহলে যেকোনো কাউকে নিলেয় হত,আমাকে কেন?
-আমরা খুঁজেছি একজন সতেজ মাথার একজন মানুষ,যে কিনা পৃথিবীর সবকিছুকে খুব সিম্পল ভাবে।
শ্রাবন্তী মুচকি হেসে বলে-জানতাম নাতো,আমি সবকিছু খুব সিম্পল ভাবে দেখি।
-একটা উদাহরণ দেয়,তোমার দাদি মারা গেল।সবাই খুব কাঁদছে।অথচ তুমি কাঁদছ না।তুমি মনে করছ,অতি সাধারণ ঘটনা।জন্ম হলে মৃত্যু হবেই,এ নিয়ে কান্না করার কি আছে?
শ্রাবন্তী বেশ অবাক হল।এ ঘটনাতো এই লোকের জানার কথা না।
–আপনি কিভাবে জানলেন?
-সেন্ট্রাল এজেন্সি দিয়েছে।তাদের কাছে সব মানুষ সম্পর্কে তথ্য আছে।
-আপনারা এডুকেটেড একজন লোক নিতে পারতেন যে এরকম।আমিতো পড়ালেখা বলতে,ওই পড়তে লিখতেই জানি।এর বেশি না।
-আমরাও প্রথমে তাই ভেবেছিলাম।কিন্তু এডুকেটেড লোক হতে সিলেক্ট করতে গিয়ে দেখা গেল,তারা প্রত্যেকেই একেকটা মুখস্তবিদ হয়ে গেছে।যে সমস্যার সমাধান শলভ করা আছে,শুধুমাত্র সে সব সমস্যাই সমাধান করতে পারছে।নতুন প্রবলেম শলভ করতে পারছে না।বিশেষ করে যারা খুব হাই-কোয়ালিফাইড,তাদের মধ্যে সমস্যাটা প্রকট।
-তাহলে বোধহয় পড়ালেখা না করাই ভাল।
-সেতো বলতে পারব না।
-তবে মনে হচ্ছে,সমস্যা সমাধান করার ক্যাপাসিটি আমার বেশ।আপনার কথা শুনে মনে হচ্ছে।
-ঠিক ধরেছ।একটা উদাহরণ দেয়,একবার রুম হতে বিশ হাজার টাকা চুরি হল।তোমার বাবা মাতো খুব আপসেট।বাইরের একটা লোক তালা ভেঙ্গে রুম হতে টাকা নিয়ে যাবে,তা কিভাবে সম্ভব?তুমিই বললে,বাইরের লোক টাকা নেয় নি।নিয়েছে ছোট চাচা।কারণ চাচা একটা ব্যবসা করতে চাচ্ছে,সে জন্যই টাকাটা চুরি করেছে।
-আপনিতো সব জানেন দেখি আমার সম্পর্কে।
-সেন্ট্রাল এজেন্সি সব জানে,তাদের কাছে প্রত্যেক মানুষ কখন কি করছে সব তথ্য আছে।
-ও একবার বলেছিলেন।
-তোমাকে সাথে নেওয়ার আরেকটা বিশেষ কারণ আছে?
-কি?
-তোমার ইএসপি ক্ষমতা আছে।কিছুদিন আগে,তুমি তখন খালার বাড়ি যাওয়ার জন্য বাসস্ট্যান্ডে যাচ্ছ।হঠাৎ মনে হল,মায়ের হাতে গরম পানি পড়েছে।মা কষ্টে কাতরাচ্ছে।বাসায় এসে দেখ ঠিক তাই।
শ্রাবন্তী মুচকি হেসে বলে-তাহলে তো আমি সাধারণ কেউ নয়।

১,১১৯ বার পড়া হয়েছে

লেখক সম্পর্কে জানুন |
সর্বমোট পোস্ট: ১৭১ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ২৪৪ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৮-৩০ ১৬:১৭:৫০ মিনিটে
banner

৬ টি মন্তব্য

  1. আরজু মন্তব্যে বলেছেন:

    শ্রাবন্তীর যখন ই এস পি ক্ষমতা আছে তখন সে অসাধারন ক্যাটাগরিতে পড়ে গেল।সিম্পল তো আর থাকল না।

    পড়ছি তোমার বিজ্ঞান কাহিনী।লিখে যাও।আমরা আছি তোমার সাথে। শুভ কামনা।

  2. এস এম আব্দুর রহমান মন্তব্যে বলেছেন:

    বৈজ্ঞানিক কল্প কাহিনী ভাল লাগল । লিখেযান অবিরত । শুভ কামনা ।

  3. আমির হোসেন মন্তব্যে বলেছেন:

    পড়লাম সাথে আছি।

  4. কে এইচ মাহবুব মন্তব্যে বলেছেন:

    ভালো লাগলো ।

  5. এস এম আব্দুর রহমান মন্তব্যে বলেছেন:

    ভাল লাগল বৈজ্ঞানিক কল্প কাহিনী । শুভ কামনা ।

  6. রাজিব সরকার মন্তব্যে বলেছেন:

    ঠিক আরজু দিদি, অসাধারন ক্যাটাগরিতে পড়ে গেল,ধন্যবাদ সবাইকে

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করতে লগিন করুন.

go_top