Today 01 Dec 2022
banner
নোটিশ
ব্লগিং করুন আর জিতে নিন ঢাকা-কক্সবাজার রুটের রিটার্ন বিমান টিকেট! প্রত্যেক প্রদায়কই এটি জিতে নিতে পারেন। আরও আছে সম্মানী ও ক্রেস্ট!
banner
লেখক সম্পর্কে জানুন |
@ লেখালেখি করি সেই ছোটোবেলা থেকেই। বাবার কাছে হাতেখড়ি। বাবা লিখে আমাকে পড়াতেন। আর আমি লিখে বাবাকে দেখাতাম। তালে তালে তালাতালি! জাতীয় দৈনিকে, রেডিওতে আর্টিকেল, ফিচার, রম্য ও ছড়া লিখতাম একসময়। তারপর শিশুতোষ গল্পের প্রতি ঝুকে পড়ি। ছড়া লিখি মাঝে মধ্যে। @ প্রকাশিত গ্রন্থঃ ছয়টি। @ প্রাপ্ত পুরষ্কারঃ জাতিসংঘ (ইউনিনসেফ) কর্তৃক আয়োজিত দেশব্যাপী বড়োদের গ্রুপে গল্পলেখা প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করে "মীনা মিডিয়া এ্যাওয়ার্ড ২০১১" লাভ করি। @ পেশাঃ চাকরি। @ পেশাগত কারণে ব্যস্ততার মধ্যেই কাটে সময়। এরই মধ্যে সময় করে লেখালেখি করার চেষ্টা করি। প্রিন্ট ও ইলেকট্রিক মিডিয়াতে নিয়মিত লিখছি। লেখায় গতানুগতিক চিন্তা-চেতনার পরিবর্তে স্বকীয়তার ছাপ রাখার চেষ্টা করি। ব্লগে লিখে অনেক আনন্দ পাই। প্রিয় পাঠকদের মন্তব্য, পরামর্শ ও উপদেশ আমার লেখালেখির মতো সৃজনশীল কাজে শুধু অণুপ্রেরণাই যোগায় না; নিজেকে পরিশুদ্ধ ও লেখার উৎকর্ষ সাধনে যথেষ্ট ভূমিকা রাখে।
সর্বমোট পোস্ট: ২৮ টি
সর্বমোট মন্তব্য: ১৬৭ টি
নিবন্ধন করেছেন: ২০১৩-০৫-২৯ ১১:৫১:৫৪ মিনিটে

বারো বছরের মেয়ে অপরাজিতা। তার মনে একটা দুঃখ বারবার জেগে ওঠে, সেটা হলো, সে এখনও কোন মুক্তিযোদ্ধাকে দেখেনি। সে তার বাবার কাছে আফছুছ করে প্রায়ই তার এই দুঃখের কথাটা বলে।

একদিন তার বাবা তাকে বললেন, ‘আমি তোমাকে মুক্তিযোদ্ধা দেখাব মা।’ পরেরদিন

বিস্তারিত পড়ুন

আট ভাই-বোনের মধ্যে মজনু মামা সবার ছোট। ছোট বলেই হোক, আর অত্যধিক
স্নেহ-ভালবাসার কারণেই হোক, তার মধ্যে সবাই কেন জানি নানান
প্রতিভা-সম্ভাবনার বিচছুরণ দেখতে পেলেন। সুতরাং অন্য ছেলে-মেয়েদের চেয়ে
ছোট মামা বড় কিছু হবেন-এমন আশা পোষণ করতেন পরিবারের সবাই। সব আশা সবাইকে
দিয়ে

বিস্তারিত পড়ুন

ঈদের পরে এলাম ফিরে বাসায়
কেমন আছেন বলেন দেখি সবাই,
কাটলো কেমন ত্যাগ মহিমার ঈদ
কতটুকুন কে করেছেন জবাই।

কয়েক জনের দুঃখ ছিল জানা
হাতে টেনে নিলাম আপন করে,
আমার মনে ছিল যত সুখ
বিলিয়ে দিলাম সবার ঘরে ঘরে।

দুঃখ-ব্যথা নিয়েছি যতটুকুন
সেগুলো আজ সুখ হয়েছে মনে,
ইচ্ছে হলেই হাত

বিস্তারিত পড়ুন

‘বাহ্, বাহ্ কি চমৎকার নাচ! এমন নাচ আমি জীবনেও দেখিনি! হ্যা, নাচো ইঁদুর ভাই, নাচো। ফাঁকে দাঁড়িয়ে এতক্ষণ তোমার নাচই দেখছিলাম। কী সুন্দর নাচ তোমার! নাচের তারিফ না করে পারলাম না,’ এক বুড়ো বিড়াল ঝোপের ফাঁক দিয়ে মাথা বের করে

বিস্তারিত পড়ুন

১.
দুঃখ যত আসে আসুক
ভয় করোনা তাতে,
দুঃখ গুলো বসত করে
অলস লোকের সাথে।

অলস হয়ে থাকবে যত
দুঃখ ব্যথা বাড়বে তত
তা বলে কি দুঃখ নিয়ে
কাঁদবে অবিরত?

কোথায়

বিস্তারিত পড়ুন

,

বিস্তারিত পড়ুন

একটুখানি হাসি দিলে
একটু অভিমানে,
অমনি আমি ছুটে এলাম
ভালবাসার টানে।

একটুখানি কাছে এসে
একটু দিলে আদর,
অমনি তোমায় বিছিয়ে দিলাম
ভালবাসার চাদর।

একটুখানি হাত বাড়িয়ে
ধরলে যেদিন হাতে,
ঘুম কাতুরের ঘুম নিয়েছ
সুখ নিয়েছ সাথে।

বিস্তারিত পড়ুন

আমার চাচি দুই পুত্র ও দুই কন্যা সন্তানের গর্বিতা মা। মেয়েদের বিয়ে দেওয়া ও ছেলেদের বিয়ে করানোর ষোল আনা কৃতিত্ব চাচির। চাচি জাত-বংশ, চেহারা-চরিত্র, আচার-ব্যবহার, শিক্ষা-দীক্ষা, অর্থ-সম্পদ ইত্যাদি বিষয়ে চুলচেরা বিশ্লেষণ করে খাঁটি সোনার মতো দু’খানা জামাই আর দুখানা বউ

বিস্তারিত পড়ুন

কামাল ভাই গতবার পরীক্ষায় ফেল করে শিক্ষকদের বেত্রাঘাত, পরিবারের সদস্যদের গণপিটুনি আর সহপাঠীদের টিটকারী-তিরস্কারে অতিষ্ঠ হয়ে কানে ধরে শপথ করে বলেছিল, ‘সামনের বার দেখে দেব, পরীক্ষায় আমাকে ফেল করায় কীভাবে। বইয়ের পাতা থেকে প্রশ্ন আসলেই হলো; যদি আমার কলমের কালি

বিস্তারিত পড়ুন

“ভোর বিয়ানে মনুর মা বদনা হাতে বাইরে গেল। আর ঘরে ফেরার নাম নেই। মনুর বাপ মনুর মাকে ডাকতে ডাকতে বাইরে গিয়ে দেখে, মনুর মা বদনা হাতে তালগাছের তলায় দাঁড়িয়ে আছে। কথাও বলছে না, নড়ছেও না! কোনো সাড়া না পেয়ে মনুর

বিস্তারিত পড়ুন

পরীক্ষা শুরু হয়ে গেল। আমরা প্রশ্নপত্র পেয়ে খাতায় লিখতে শুরু করেছি মাত্র। এরই মধ্যে কয়েকজন স্যার অস্থিরভাবে জনে জনে গলা খাটো করে বলতে লাগলেন, “কি রে, পরীক্ষা যে শুরু হয়ে গেল, মনির তো এখনও আসেনি। তার কি কোনো সমস্যা-টমস্যা হলো

বিস্তারিত পড়ুন

দশ বছরের ছেলে মন্টি। বায়না ধরে বসে আছে, ভূত দেখাতে হবে। একটামাত্র ছেলে। যা চেয়েছে তা এবং যা চায়নি তাও পেয়ে তার অভ্যেস। সুতরাং ভূত দেখতে চাওয়াটা তার জন্য অন্যায় আবদার না। তবে হঠাৎ করে সে কেন যে এমন একটা

বিস্তারিত পড়ুন
go_top